মঙ্গলবার-১৫ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং-৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১০:৪৪
মেহেন্দীগঞ্জে বিদ্রোহী প্রার্থী নির্বাচিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয় বরং তারাই হতে পারে দেশের উন্নয়নের সহায়ক ফুলবাড়ীতে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ বিষয়ক ওরিয়েন্টেশেন সভা ॥ ঘুমন্ত তুহিনকে কোলে করে নিয়ে আসেন বাবা, খুন করেন চাচা বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির সাবেক ৭ এমডিসহ ২৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা লালপুরে মাচায় লাউ চাষ করে সফল হয়েছেন চাষী রনি কুষ্টিয়া চলে গেলেন আবরারের ছোট ভাই

মুক্তিযুদ্ধে নারীর অবদান একধাপ বেশি : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৬ , ৪:২৭ অপরাহ্ণ , বিভাগ : মুক্তিযুদ্ধ,

inu_44095মুক্তিনিউজ24.কম ডেস্ক: মুক্তিযুদ্ধে নারীর অবদান একধাপ বেশি উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, একাত্তরে নারীর যুদ্ধটা পুরুষের চেয়ে অনেক কঠিন ছিল। নারী এবং পুরুষ দু’জনই যুদ্ধ করেছে দেশ রক্ষার জন্য। কিন্তু নারীর আরেকটি যুদ্ধ ছিল ইজ্জত রক্ষার যুদ্ধ। পুরুষদের সেটা করতে হয়নি। সুতরাং এদেশের মুক্তিযুদ্ধে নারীর অবদান একধাপ বেশি। এছাড়া কোন নারী পাকিস্তানের দালাল বা আল-বদর বাহিনীর সদস্য ছিল না, রাজাকার বাহিনীতে কোন নারী ছিল না। নারীরা ইজ্জত দিয়েছে, কিন্তু পাকিস্তানীদের পায়ে ধরেনি। আজ বৃহস্পতিবাররাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল একাডেমির উদ্যোগে ‘স্টুডেন্ট এলামনাই কংগ্রেস’ এ প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল একাডেমির এর উপ পরিচালক মো. সরোয়ার হোসেন মোল্লা ও ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন মো. শাহনেওয়াজ মজুমদার।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, যেসব যুদ্ধাপরাধীর এখন বিচার হচ্ছে, একাত্তরে তাদের এই শারীরিক অবয়ব ছিল না। একাত্তরে এরা যুবক ছিল, হত্যাকারী ছিল। এসব হত্যাকারীদেরই এখন বিচার হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের দেশপ্রেমিক হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, হৃদয়ে দেশপ্রেম আছে কি না তা একটি দেশের নাগরিকের জন্য এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যে মত বা পথেরই হোন আপনার মধ্যে দেশপ্রেম না থাকলে আপনি সমাজের বোঝা হয়ে যাবেন।
সাংবাদিকদের সচেতনতার প্রতি গুরুত্বারোপ করে মন্ত্রী বলেন, গণমাধ্যমকর্মীদের সদা সকল বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে। যদি তারা সজাগ না থাকে তাহলে দেশ হোচট খাবে। অতএব তাদের সচেতনতার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল একাডেমির নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ নুরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ এম ইসলাম ও বৃটিশ কাউন্সিল অব বাংলাদেশের উপ পরিচালক জিম স্কার্থ। এবিনিউজ

আপনার মতামত লিখুন

মুক্তিযুদ্ধ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ