মঙ্গলবার-১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং-২৭শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৬:১৬
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ছয়জনের মৃত্যু বরিশালে কাঁচা ঘরবাড়ি গাছপালা ও আমন ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি ঠাকুরগাঁওয়ে যুবলীগের ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন পার্বতীপুরে যুবলীগের ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত সৈয়দপুরে বখাদের হাতে নিহত শ্রমিক সোহেলের ২ জন আসামী গ্রেফতার উপজেলা সভাপতি পদে মনোনীত হওয়ায় সৈয়দপুরে আ’লীগ নেতা বাদলের সংবর্ধনা ঠাকুরগাঁওয়ে ৬০তম রুহিয়া আজাদ মেলার উদ্বোধন উন্নয়নের জন্য শান্তি এবং সম্প্রীতি বজায় রাখা জরুরি : প্রধানমন্ত্রী

স্যামসাংয়ের বাজার ধরার চেষ্টা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানগুলোর

প্রকাশ: সোমবার, ৭ নভেম্বর, ২০১৬ , ৪:৪৪ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : তথ্য-প্রযুক্তি,

apple-takesমুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: একেই বলে কারো পৌষ মাস আর কারো সর্বনাশ। কারণ স্যামসাংয়ের বিস্ফোরণ কাণ্ডে কপাল খুলেছে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানগুলোর।

এরইমধ্যে ঘোষণা দিয়ে স্যামসাংয়ের বাজার ধরতে রণকৌশল সাজিয়েছে চীনা মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াই। বর্তমানে চীনের এই আইসিটি প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বের তৃতীয় বড় মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

তাদের আশা স্যামসাংয়ের বাজার ধরতে পারলে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হবে না।

এ বিষয়ে হুয়াইয়ের কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স ব্যবসার প্রধান রিচার্ড ইউ বলেন, গ্রাহকের সামনে এখন সময় এসেছে সেরা পণ্যটি বেঁছে নেয়ার, আর এভাবেই আমরা আমাদের ব্যবসার সম্প্রসারণ ঘটিয়ে যাব।

এদিকে সম্প্রতি প্রকাশিত এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, স্যামসাং কান্ডে তাদের অর্ধেকেরও বেশী ক্রেতা ঝুঁকেছে অ্যাপেলের আইফোনের দিকে, সংখ্যায় যেটা ৫০ থেকে ৭০ লাখের মত হতে পারে।

তাই পূর্বের যে কোন সময়ের তুলনায় এবার আইফোন বিক্রির হার অনেক অনেক বেশী। আর এজন্য অবশ্যই পরোক্ষ ভূমিকা রেখেছে বাজার হারানো স্যামসাং।
এদিকে স্যামসাং থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়া বাকী অর্ধেক গ্রাহকরা নির্দিষ্ট কোন ব্রান্ডের ব্যাপারে তাদের আগ্রহের কথা জানাননি। তাই অবধারিতভাবেই বিপুল সংখ্যার এসব গ্রাহকরা থাকছেন অন্যান্য সব ব্র্যান্ডের সম্ভাব্য ক্রেতার তালিকায়।

সেইসব ক্রেতাকে কাছে টানার মানসে ইতিমধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু করে দিয়েছে নামী সব ব্রান্ডগুলো। জিওমি নামের একটি ব্র্যান্ড তো সবাইকে ছাপিয়ে ঠিক গ্যালাক্সি নোট-৭ এর মত দেখতে আরেকটি ফোন বাজারে নিয়ে এসেছে। মি নোট-২ নামের ওই ফোনটি যে স্যামসাং বিমুখ ক্রেতাকে টানতে নিয়ে আসা হয়েছে তা অবশ্য গোপন করেনি তারা।

অন্যদিকে মোবাইল নিয়ে বিড়ম্বনায় থাকলেও তাদের অন্যান্য সব পণ্য নিয়ে এতদিন স্বস্তিতে ছিল স্যামসাং।

কিন্তু গত শুক্রবার শুধু যুক্তরাষ্ট্র থেকে তাদের ২.৮ মিলিয়ন ওয়াশিং মেশিন প্রত্যাহারের ঘোষণায় সেখানটাতেও বেড়েছে অস্বস্তি। আর ওয়াশিং মেশিনগুলোও প্রত্যাহার করতে হচ্ছে এক প্রকার বাধ্য হয়ে, কারণ সেগুলো গ্রাহকের জন্য জীবন ঝুঁকির কারণ হয়ে দাড়াচ্ছিল।

আপনার মতামত লিখুন

তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ