সোমবার-১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং-৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৭:৫০, English Version
সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির নীতিমালা প্রকাশ মিয়ানমারের পেঁয়াজ টিসিবিতে বিক্রি শুরু, কেজি ৪৫ টাকা লালপুরে নিজের পাওয়ার ট্রলির চাপায় চালক নিহত! আরামকোর দাম দেড় লক্ষ কোটি ডলার ছাড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর গ্রান্ড দুবাই এয়ারশো ২০১৯-এ যোগদান পার্বতীপুরে গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়নে ৫৬ প্রকল্পের কাজ শুরু ৩ হাজার ২ জন অতিদরিদ্র নারী-পুরুষের কর্মসংস্থান চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার শিবগঞ্জ আদর্শ হাসপাতালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ডা: মাহাফুজ জামান এমবিবিএস এমডি

ফারুক কবির আহমদ এমপি হলে গোবিন্দগঞ্জে কি কি করবেন

প্রকাশ: বুধবার, ৩১ অক্টোবর, ২০১৮ , ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : রংপুর,সারাদেশ,

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা ঃ ৩২, গাইবান্ধা-৪ গোবিন্দগঞ্জ আসনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি’র) মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক কবির আহমদ। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের ল্েয তাঁর বিশাল কর্মবাহিনী দিনরাত উপজেলায় কাজ করে যাচ্ছে। ফারুক কবির আহমদ জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে গোবিন্দগঞ্জের জন্য কি কি করবেন তাঁর ৫টি প্রশ্নভিত্তিক সাাৎকার পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:-
একটি সমৃদ্ধ গোবিন্দগঞ্জ গড়তে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন ফারুক কবির আহমদ। শিাদীা কর্মসংস্থানে সাবলম্বী উপজেলা প্রতিষ্ঠা করার স্বপ্ন দেখেন তিনি। দল মতের উর্দ্ধে থেকে রাজনৈতিক সহাবস্থানের অনন্য গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা প্রতিষ্ঠা করতে চান তিনি। ফারুক কবির আহমদ একাদশ জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচনে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে গোবিন্দগঞ্জে তিনি অবকাঠামোগত উন্নয়নের আমূল পরিবর্তন করবেন। বর্তমানের কাগজে উন্নয়নের পরিবর্তে টেকসই উন্নয়ন হবে তাঁর প্রধান কাজ। উপজেলায় বরাদ্দকৃত অর্থ যেভাবে তছনছ হচ্ছে তা তিনি কঠোর হাতে দমন করবেন। তিনি বলেন, উন্নয়ন একটি চলমান প্রক্রিয়া। সরকার পরিবর্তনের সাথে মৌলিক উন্নয়নের তেমন পরিবর্তন হয় না। কিন্তু এই মৌলিক উন্নয়নকে তিনি উন্নয়ন বলে মনে করেন না। ভৌগলিক অবস্থানগত কারণে গোবিন্দগঞ্জ যে সুবিধাজনক অবস্থায় আছে সেই অবস্থাকে কাজে লাগিয়ে তিনি গোবিন্দগঞ্জে উৎপাদনমুখী উন্নয়নের প্রবর্তন করবেন। দীর্ঘ দশ বছরের আওয়ামী লীগের অপশাসনে গোবিন্দগঞ্জে তেমন প্রাতিষ্ঠানিক উন্নয়ন হয়নি। তিনি উপজেলায় প্রতিষ্ঠানিক বৃত্তিমূলক উন্নয়নের ব্যবস্থা করবেন।
কিভাবে বিএনপিকে সংগঠিত করবেন এই প্রশ্নের জবাবে ফারুক কবির আহমদ বলেন, দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে গোবিন্দগঞ্জে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। বর্তমানে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা মিথ্যা রাজনৈতিক মামলা মোকদ্দমায় জর্জরিত। আমার সাধ্যমত নেতাকর্মীদের সহযোগিতা করে যাচ্ছি। সেই সাথে নেতাকর্মীদের আইনী সহায়তা প্রাপ্তির চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব নিয়ে শত প্রতিকূলতার মাঝেও দেশনেত্রী বিএনপির চেয়ারপার্রসন বেগম খালেদা জিয়ার যেকোন নির্দেশ পালনের জন্য একটি উপযুক্ত দল গড়ে তুলেছি। ভবিষ্যতে তিনি উপজেলা বিএনপিকে দেশের অন্যতম প্রধান সাংগঠনিক ইউনিট হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, আপনারা অবগত আছে উপজেলা বিএনপি একতরফা অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন কিভাবে প্রতিহিত করেছিলো। তিনি আরো জানান, আমরা সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী ছিলাম বলেই উপযুক্ত কর্মসূচীর মাধ্যমে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে অংশগ্রহণের জন্য উপজেলাবাসী আমাকে চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে বিপুল ভোট দিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরিবর্তি উপজেলা বিএনপি কিভাবে সক্রিয় অংশগ্রহণ করে গণমানুষের অধিকার রায় কেন্দ্রিয় বিএনপির সবধরণের কর্মসূচী পালন করেছে। ভবিষ্যতে উপজেলা বিএনপিকে তিনি আরো শক্তিশালী জনসমর্থনপূর্ণ সংগঠন রুপে গড়ে তুলবেন বলে জানান।
বিরোধী দল কে কিভাবে মোকাবিলা করবেন এই প্রশ্নের জবাবে ফারুক কবির আহমদ জানান, বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। তিনি বর্তমান আওয়ামী লীগের মত বিরোধীদলকে রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করবেন না। তিনি জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে গোবিন্দগঞ্জে সব রাজনৈতিক দল ও মতের সহাবস্থান নিশ্চিত করবেন। মানুষের সাংবিধানিক মৌলিক অধিকার কোন ভাবেই তিনি ুন্ন করবেন না।
রুটিন উন্নয়নের বাহিরে কি কি উন্নয়ন করবেন এমন প্রশ্নে জবাবে ফারুক কবির আহমদ বলেন, উন্নয়ন একটি চলমান প্রক্রিয়া। রাস্তাঘাট কালভার্ট নির্মাণ, বিদ্যুৎ সংযোগ এগুলো প্রকৃত অর্থে উন্নয়ন মধ্যে পরে না। মানুষের জীবনের আর্থসামাজিক অবস্থার পরিবর্তন না করে কোন উন্নয়নই টেকসই হতে পারে না। বিপুল জনসংখ্যার গোবিন্দগঞ্জে তিনি বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করবেন বলে জানান। তিনি আরো জানান, কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা ছাড়া গোবিন্দগঞ্জের প্রকৃত উন্নয়ন সম্ভব নয়। স্বাধীনতার এতো বছর পরেও গোবিন্দগঞ্জে একটি মানসম্মত আধুনিক হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা হয়নি। তিনি গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিকে ২০০ শষ্যা বিশিষ্ট আধুনিক হাসপাতাল হিসেবে প্রতিষ্ঠা করবেন। তিনি সড়ক দুর্ঘটনা প্রবণ গোবিন্দগঞ্জে একটি ট্রমা সেন্টার স্থাপন করতে চান। তিনি আরো জানান, গোবিন্দগঞ্জে প্রশাসনের সরাসরি ব্যবস্থাপনায় উচ্চ শিা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করে মানসম্মত শিা নিশ্চিত করবেন। গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার গর্ব কোচাশহর হোসিয়ারী শিল্পকে কেন্দ্র করে কোচাশহরে তিনি বিশেষায়িত বিসিক শিল্পনগরী গড়ে তুলবেন। তিনি আরো জানান, এমপি নির্বাচিত হলে জেলার একমাত্র ভারী শিল্প প্রতিষ্ঠান রংপুর সুগার মিলকে আধুনিকীকরণ করবেন। এই মিলের পাশাপাশি সর্ম্পূরক আরো শিল্প কারখানা গড়ে তুলে মিলকে সারা বছর উৎপাদনে নিয়োজিত রাখবেন।
সুষম উন্নয়ন কিভাবে নিশ্চিত করবেন এই প্রশ্নে জবাবে ফারুক কবির আহমদ জানান, তাঁর রাজনীতিতে পপাতিত্বের কোন স্থান নেই। তিনি সমগ্র উপজেলাব্যাপী সুষম উন্নয়ন শতভাগ নিশ্চিত করবেন। মাদক জুয়া সহ সবধরণের অনৈতিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে তাঁর জিরো টলারেন্স অবস্থান থাকবে। যেকোন মূল্যে গোবিন্দগঞ্জকে তিনি মাদক মুক্ত উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবেন।
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি যদি আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে রাষ্ট্রীয় মতায় যেতে পারে তবে তিনি এমপি হয়ে গোবিন্দগঞ্জ কে উত্তর জনপদের সবচেয়ে অগ্রসরমান উন্নত আধুনিক উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবেন। গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মানুষ কর্মঠ পরিশ্রমী শুধু চাই পৃষ্টপোষকতা। তিনি এমপি নির্বাচিত হলে উপজেলাবাসীর মঙ্গলে সর্বাত্বক সহযোগিতা ও পৃষ্ঠপোষকতা করে যাবেন।

আপনার মতামত লিখুন

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ