- মুক্তিনিউজ24.কম - https://www.muktinews24.com -

“জলঢাকায় ভিজিএফ চাল বিতরণ”

রবিউল ইসলাম রাজ,(জলঢাকা) নীলফামারী :
পবিত্র ঈদ-উল-আযাহা উপলক্ষে সারা বাংলাদেশে গরীব-দুখী,দুঃস্ত মানুষদের একটু ভালো রাখতে। ঈদের আনন্দ সবার কাছে ছড়িয়ে দিতে,সুখ পাইতে সরকার ব্যবস্থা করেছেন ভিজিএফ রিলিফ কার্ডের চাল।যা বর্তমান সরকারের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচী আওতায় একজন ভিজিএফ কার্ডধারীরা ১০ কেজির পরিবর্তে প্রতিজনে ২০ কেজি করে চাল পাবে।সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার কৈমারী ইউনিয়নে শনিবার সকালে ভিজিএফ এর চাল আনুষ্ঠানিক ভাবে হতদরিদ্র মানুষদের মাঝে বিতরন শুরু করে। অনুষ্ঠানে ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল হক বাবু এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোস্তফা এমপি,বিশেষ অতিথি ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ছাইদার রহমান মাস্টার।অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৈমারী স্কুল এ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রউফ খান (দুলু),উপজেলা যুবলীগ নেতা মোকছুদার রহমান লেলিন,ইউপি সচিব মানিক চন্দ্র রায়,জাতীয় ছাত্র সমাজ জলঢাকা উপজেলা শাখার সদস্য সচিব রবিউল ইসলাম রাজ,২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জবেদুল ইসলাম,জাতীয় ছাত্র সমাজ কৈমারী ইউনিয়নের সদস্য সচিব তপন কুমার রায়,গ্রাম্য পুলিশ আলাল হোসেনসহ মেম্বারবৃন্দ প্রমূখ। চাল বিতরন চলবে আরো দুই/তিন দিন।এবারে এই ইউনিয়নে ১০ হাজার ৫ শত ৫৯ কার্ডের বিপরীতে ২ শত ১১ দশমিক ১৮ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। অপরদিকে,উপজেলার গোলনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম (পান কবীর) ১০ জুলাই ভিজিএফ এর চাল বিতরন শুরু করেছে।এই ইউনিয়নে ৬ হাজার ৯ শত ৫১ কার্ডের বিপরীতে ১ শত ৩৯ দশমিক দুই মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। চেয়ারম্যান নিজে তদার্কীর মাধ্যমে শান্তিপূর্ন্যভাবে চাল বিতরন করছে। ধর্মপাল ইউনিয়নের জামিনুর রহমান চেয়ারম্যান ৯ জুলাই হতদরিদ্র দুঃস্ত মানুষদের মাঝে ভিজিএফ এর চাল বিতরন শুরু করে। তবে ভিজিএফ এর চাল পাচারের অভিযোগের গুজ্জব উঠলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) আবুল কালাম আজাদ পরিবেশ বুঝে ইউপি খাদ্যগুদাম সিলগালা করেন।পরবর্তিতে তদন্ত শেষে চাল বিতরনের আশ্বাস দেন।
আপনার মতামত লিখুন