রবিবার-১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং-৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সন্ধ্যা ৬:৫১, English Version
সৈয়দপুরে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল দিনাজপুর শিশু একাডেমির উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস-২০১৯ উপলক্ষে শিশুদের বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত গাইবান্ধায় কুখ্যাত ইয়াবা সম্রাট ও সন্ত্রাসী সাদ মাহমুদ আটক সাদুল্লাপুরে মমেনাকে নৃসংসভাবে হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন শিবগঞ্জে জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত ১০ হাজার ৭৮৯ রাজাকারের তালিকা প্রকাশ হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক সভাপতি ও রেজাউল করিম সাধারন সম্পাদক

মোকামে চালের দর কিছুটা কমেছে, প্রভাব নেই খুচরা বাজারে

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ , ৭:০৪ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : অর্থনীতি,

 মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: সরকারের সাথে বৈঠকের পর দেশে চালের সবচেয়ে বড় মোকাম কুষ্টিয়ায় চালের দর কেজি প্রতি দুই টাকা কমেছে। গতকাল বুধবার এই মোকামে মিনিকেটসহ সব ধরনের চালের দাম কেজিতে দেড় থেকে ২ টাকা কমে বিক্রি হয়েছে। এছাড়া দাম কমেছে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের মোকামগুলোতে। তবে খুচরা বাজারে এর কোন প্রভাব পড়েনি। এখনো রাজধানীর খুচরা বাজারে ৫০ টাকা কেজির নীচে মোটা চাল নেই। সরু চাল নাজিরশাইল বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়।

উল্লেখ্য, লাগামহীনভাবে চালের দর বাড়তে থাকায় গত মঙ্গলবার সচিবালয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে বৈঠক করে সরকার। বৈঠকের পর চালের দাম কমানোর আশ্বাস দেন ব্যবসায়ীরা। তবে এক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের দাবি অনুযায়ী চাল আমদানিতে পাটের পরিবর্তে প্লাস্টিকের বস্তার ব্যবহার মেনে নেয়া হয়।
গতকাল সচিবালয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ   সাংবাদিকদের বলেছেন, চালের বাজার স্বাভাবিক হয়ে যাবে। নভেম্বরের শেষ ও ডিসেম্বরের প্রথমে নতুন ফসল উঠবে। কাজেই চিন্তিত হওয়ার কোনও কারণ নেই। চালের কোনও সংকট নেই। হাওরে অকাল বন্যায় যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তার চেয়ে বেশি চাল আমদানি করা হচ্ছে। তবে তিনি বলেন, চালের অবৈধ মজুদের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী অভিযান অব্যাহত থাকবে। যারা চালের অবৈধ মজুদ করবে তাদের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থান কঠোর। কোনও ছাড় নাই।
এদিকে একই দিন সচিবালয়ে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে খাদ্য সচিব মোহাম্মাদ কায়কোবাদ হোসাইন সাংবাদিকদের বলেন, সরকার ইতোমধ্যে ৯ লাখ টন চাল আমদানির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। এরমধ্যে দুই লাখ টন চাল সরকারের হাতে এসে পৌঁছেছে। জাহাজ থেকে খালাসের অপেক্ষায় আছে আরও দেড় লাখ টন চাল। বাকি সাড়ে ৫ লাখ টন চাল আগামী ১২ নভেম্বরের মধ্যে দেশে পৌঁছাবে। এছাড়া বৈঠকে ৫০ হাজার টন নন-বাসমতি চাল আমদানির ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি মোস্তাফিজুর রহমান মঞ্জু জানান, সরকারের উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক ও জেলায় টাস্কফোর্সের অব্যাহত অভিযানে কুষ্টিয়ার খাজানগর মোকামে চালের দর কেজি প্রতি দুই টাকা কমেছে। তবে খুচরা বাজারে চালের দামে কোন প্রভাব পড়েনি। আগের বাড়তি দামেই চাল বিক্রি হচ্ছে। সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গতকাল কুষ্টিয়ায় খুচরা বাজারে মিনিকেট চাল ৬২ টাকা, বাসমতি চাল ৭০ টাকা, আটাশ ও কাজললতা ৫৬ টাকা এবং স্বর্ণা (মোটা) চাল ৪৪ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে মোকামের কয়েকজন চালকল মালিক জানান, গত মঙ্গলবার থেকে এই মোকামে মিনিকেটসহ সব ধরনের চালের দাম কেজিতে দেড় থেকে ২ টাকা কমে বিক্রি হয়েছে। খুচরা বাজারেও চালের দাম কমবে বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
হাকিমপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতা জাহিদুল ইসলাম জানান, দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের মোকামগুলোতে সব ধরণের চালের দাম কমতে শুরু করেছে। গত দুইদিন আগে প্রতি কেজি ৪৫ থেকে ৪৬ টাকায় বিক্রি হলেও আজ সেই চাল ৪৩ থেকে ৪৪ টাকায় পাইকারি দামে বিক্রি করা হচ্ছে। ফলে পাইকারি বাজারে কমেছে কেজিতে ২ টাকা। এই বন্দর দিয়ে ভারত থেকে গড়ে প্রতিদিন ১০০ এর উপরে চালবাহী ট্রাক দেশে প্রবেশ করলেও গতকাল মঙ্গলবার থেকে এই সংখ্যা কমে এসেছে।
এদিকে বন্দরের চাল আমদানিকারক মোস্তাফিজুর রহমান দুদুসহ অনেকে জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে চালের গুদামে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনা করায় কোনো ব্যবসায়ী বন্দরে চাল কিনতে আসছেন না। তারা আমাদের বলছেন গুদামে যদি চাল মজুদ করা না যায়, তাহলে চাল কিনে কোথায় রাখবো। ব্যবসায়ীদের মনে একপ্রকার ভীতি কাজ করছে। তাই বিভিন্ন স্থান থেকে ব্যবসায়ীরা চাল নিতে আসছেন না।
১৩ চাল ব্যবসায়ীকে জরিমানা:ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) সংবাদদাতা জানান, গতকাল ভেড়ামারা কলেজ বাজারে চালপট্টিতে ৮ চাল ব্যবসায়ী-আড়ত্দারের কাছ থেকে মোট ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। কারণে এদের কাছে লাইসেন্স নেই, কিন্তু দেড় লাখ  টন চাল মজুত রয়েছে।
পাংশা (রাজবাড়ী) সংবাদদাতা জানান, রাজবাড়ীর পাংশায় পাঁচ চাল ব্যবসায়ীকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। দুপুরে পৌর শহরের চাউল বাজারে এ ভ্রাম্যমান অভিযান পরিচালনা করা হয়। চাউল কেনার রশিদ, রেজিস্টার খাতা, মূল্য তালিকা এবং প্রতিষ্ঠানের কোন সাইনবোর্ড না থাকায় এ জরিমানা করা হয়।
আপনার মতামত লিখুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ