বৃহস্পতিবার-১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং-২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ১১:৪৪
চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ সুপার অতিরিক্ত (এডিশনাল ডিআইজি)। অভিযুক্ত ২৫ জন প্রাইমারি স্কুলের সভাপতি হতে থাকতে হবে স্নাতক ডিগ্রি কলাপাড়ায় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থ্য চারশ পরিবারকে সরকারি ত্রান সহায়তা।। বরিশালে খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের পাঠদান হিলিতে পানিতে ডুবে দুই বছরের এক শিশুর মৃত্যু শৈলকুপায় জেএসসি পরীক্ষার্থী বহিস্কার

ধুনটে কৃষকের জমিতে জোড়পূর্বক ঘর নির্মাণ : বাঁধা দেওয়ায় কুপিয়ে জখম

প্রকাশ: সোমবার, ৫ জুন, ২০১৭ , ১০:০৭ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : কৃষি,বগুড়া,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: বগুড়ার ধুনটে কৃষকের বসতবাড়ীর জায়গা দখল করে জোড়পূর্বক ঘর নির্মাণ করেছে প্রতিপক্ষ। এসময় বাঁধা দিতে গেলে দুই কৃষককে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। আজ সোমবার সকাল ১১টায় উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের শৈলমারী গ্রামে এঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, উপজেলার শৈলমারী গ্রামের খোকা সরকারের ছেলে কৃষক শফিকুল ইসলাম (৪৫) ও তার ভাই ঠান্ডু মিয়া (৩৫)। আহতদের ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে ভর্তি করা হয়েছে। স্থানীয়সূত্রে জানাগেছে, ২০০৪ সালে উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের শৈলমারী গ্রামের মৃত নছের সরকারের ছেলে খোকা সরকার ও মোজাম্মেল হক সরকার একই গ্রামের জাবেদ আলীর মেয়ে মাজেদা খাতুন ও বুলি খাতুনের স্বত্ব দখলীয় এলাঙ্গী মৌজার ৮৬৮ খতিয়ানের ৬০১১/৬০১২ নং দাগের ৬শত ক্রয় করেন। কিন্তু জমি ক্রয়ের পর থেকেই পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ওই জমিতে জোড়পূর্বক ঘর নির্মানের চেষ্টা করে আসছিল প্রতিবেশি হবিবর রহমান ও তার লোকজন। এঘটনায় ইতিপূর্বে তাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলাও দায়ের করা হয়। সোমবার সকালে খোকা সরকারের স্বত্বদখলীয় জমিতে আবারও ঘর নির্মান করতে যায় প্রতিপক্ষ হাবিবর রহমান ও তার লোকজন। এসময় বাঁধা দিতে গেলে প্রতিপক্ষ হবিবর রহমান, তার ছেলে বাবলু মিয়া, বাবুর আলী, শহিদুল ইসলাম ও তারাকান্দি গ্রামের মোজাফ্ফর হোসেনের ছেলে সিরাজুল ইসলাম সহ ১৫/২০ জন সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র দিয়ে কৃষক খোকা সরকারের ছেলে শফিকুল ইসলাম ও ঠান্ডু মিয়াকে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে ভর্তি করেছে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কৃষক শফিকুল ইসলাম ও ঠান্ডু মিয়া বলেন, প্রতিপক্ষরা কোন প্রকার কাগজপত্র ছাড়াই দীর্ঘদিন যাবত আমাদের ক্রয়কৃত জমিতে জোড়পূর্বক ঘর নির্মানের চেষ্টা করে আসছিল। আজ সোমবার সকালে হাবিবর রহমান ও তার লোকজন আমাদের জমিতে আবারও জোড়পূর্বক ঘুর তুলতে আসে। এসময় বাঁধা দিতে গেলে তারা আমাদেরকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে। পরে স্থানীয় লোকজন আমাদের হাসপাতালে ভর্তি করলে এই সুযোগে প্রতিপক্ষরা সেখানে জোড়পূর্বক ঘর নির্মান করেছে। ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, এবিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন

কৃষি,বগুড়া বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ