বৃহস্পতিবার-২১শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং-৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:৪১, English Version
বাজার অস্থিতিশীলকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে -রমেশ চন্দ্র সেন গোবিন্দগঞ্জে আগ্নিকান্ডে ৩০০ দোকান পুড়ে ছাই পরিবহন ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছে হিলি স্থলবন্দরে গোবিন্দগঞ্জে ট্রাকে ঝরল বৃদ্ধের প্রাণ রুদ্ধদ্বার বৈঠক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে সড়কে ধর্মঘট প্রত্যাহার পলাশবাড়ীতে বাস থেকে পড়ে হেলপারের মৃত্যু ক্রেডিট কার্ড: গ্রাহকরা কী করতে পারেন, কী পারেন না

লালপুরে ভুট্টা চাষে ঝুকছে চাষীরা

প্রকাশ: সোমবার, ১০ এপ্রিল, ২০১৭ , ৩:১২ অপরাহ্ণ , বিভাগ : কৃষি,রাজশাহী,সারাদেশ,

মোঃ আশিকুর রহমান (টুটুল), নাটোর জেলা প্রতিনিধি,
বাংলাদেশের মান চিত্রে উষ্ণ ও কম বৃষ্টি পাতের এলাকা নাটোরের লালপুর থানা । এই অঞ্চলের চৈত্র মাসের চাষ যোগ্য আবাদের মধ্যে অন্যতম আখ, মুগডাল, পাট ও তিল । চলতি ১৫/১৬ আখ মাড়াই মৌসুমে নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল কর্তৃক আখের সঠিক মূল্য না পাওয়ায় এবং মুগডাল, পাট ও তিল চাষে আশানুরুপ ফলন ও দাম না থাকাই এই অঞ্চলের কৃষকরা ভুট্টা চাষের দিকে ঝুকছে। অন্যান্য ফসলের চেয়ে কম সময়ে ও স্বল্প পরিমানে পানি সেচ, সার ও কীটনাশক প্রয়োগ ও উচু-নিচু যে কোন জমিতে সারা বছর ভুট্টা চাষ হয়। উৎপাদিত ভুট্টা সহজে বাজার জাত ও ভুট্টার ব্যাপক চাহিদ থাকায় নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া সহ প্রায় গ্রামের কৃষকরা অধিক পরিমানে ভুট্টা চাষ করছে। প্রতি এক বিঘা জমিতে ৮-১০ হাজার টাকা ব্যয় করে ২৫-৩০ মন ভুট্টা উৎপাদন করা যায়। ভুট্টার কিছু উল্লেখ্যযগ্য জাত হলো লাল তীর,ডন-১১। এই ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার হাবিবুল ইসলাম খাঁন প্রতিবেদক কে জানায়, ভুট্টা চাষ এই অঞ্চলের নতুন একটা আবাদ এই অঞ্চলের কৃষক বিগত দিনে খুব অল্প সংখ্যক জমিতে ভুট্টা চাষ করতো গত বছর লালপুর থানায় ভুট্টা চাষের লক্ষ্য মাত্রা ছিল ১৮হেক্টর, চলতি বছরে উপজেলায় ২৮ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষের লক্ষ্য মাত্রা ধরা হলে ও লক্ষ্য মাত্রা অধিক পরিমান জমিতে ভুট্টার চাষ হয়েছে। ভুট্টা চাষে তেমন রোগ দেখা যায় না এই ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিস মাঠ পর্যায়ে সার্বিক সহযোগিতা করছে। আবহাওয়া অনকুলে থাকলে লালপুর থানায় ভুট্টার বাম্পার ফলন হবে । এদিকে গত বছর থেকে ভুট্টা চাষ করে কিছু কিছু কৃষকের ভাগ্য বদলের কারনে এই বছর উপজেলা ওয়ালিয়া গ্রামে প্রায়ই কৃষই এখন অন্যান্য ফষলের চাষ বাদ দিয়ে ভুট্টা চাষ করছে। উপজেলার ওয়ালিয়া গ্রামের ভুট্টা চাষী হাবিবুর রহমান, সোহেল রানা, হেলাল, চিত্তরঞ্জন প্রতিবেদক কে জানায়, আমারা সনাতন নিয়ম অনুসারে চৈতালী ফসল কেটে পাট, তিল, মুগডালের চাষ করে থাকি। কিন্ত এই সকল ফসল চাষ করে আশানুরূপ ফলন হয় না আবার ফলন হলে ও উৎপাদিত ফসলে দাম অনেক কম থাকায় যে পরিমান অর্থ খরচ হয় তার চেয়ে কম টাকা আয় হয় এবং উৎপাদিত ফসল বাজার জাত করতে ও অনেক সমস্যার সম্মুখিন হতে হয়। এই সকল দিক থেকে বিগত বছর থেকে চৈত্র মাসে ভুট্টা চাষে অনেক কম সময়ে অল্প অর্থ বিনিয়োগ করে অধিক টাকা আয় ও উৎপাদিত শস্য ব্যাপক চাহিদা থাকাই সহজেই বাজার জাত করা যায় । ভুট্টা সারা বছর চাষ করা যায় বলে আমরা অনান্য ফসলের চাষ বাদ দিয়ে ভুট্টা চাষ করছি। এই বছর আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে ভুট্টার বাম্পার ফলন হবে।

আপনার মতামত লিখুন

কৃষি,রাজশাহী,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ