বৃহস্পতিবার-৯ই এপ্রিল, ২০২০ ইং-২৬শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ৩:১১, English Version
অঘোষিত লকডাউন মধ্যে দিয়ে নশিপুর ঘোষ পাড়াতে ব্যক্তিগত উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বাংলাদেশ চ্যালেঞ্জ ক্যাম্পেইন উদ্বোধন করলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পার্বতীপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির উদ্যোগে খাদ্য সহায়তা নীলফামারীর ডোমারে সর্দি-জ্বরে এক ব্যক্তির মৃত্যু, পুলিশ ছাড়া কেউ এলো না দাফনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীর মৃত্যু সৈয়দপুরে দেড়শ কর্মহীন পরিবারের সহায়তায় হাত বাড়ালো গোলামে মুস্তফা কমিটি অসহায়দের ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা এ্যাপোলো

ইয়াহু বিক্রি পেছালো

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০১৭ , ১০:৫৭ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : তথ্য-প্রযুক্তি,

মুক্তিনিউজ24.কম ডেস্ক:  ইতিহাসের বৃহত্তম তথ্য চুরির জের ধরে পিছিয়ে গেল ভেরাইজনের ইয়াহু অধিগ্রহণ। এ অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া পেছানো হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট ইয়াহুর পক্ষ থেকে। গত বছর দুটি বৃহত্ তথ্য চুরির ঘটনা প্রকাশের পর থেকেই এ অধিগ্রহণ নিয়ে সংশয়ে ছিলেন সংশ্লিষ্টরা। অন্যদিকে পুঁজিবাজারে ভেরাইজনের শেয়ারমূল্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে এ অধিগ্রহণ পেছানোর সংবাদ।

ইয়াহুর ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট-সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিগত তথ্য চুরির দুটি ঘটনা সামনে আসে গত বছর। ওই সময় আলোচনাধীন নিউজার্সিভিত্তিক মার্কিন টেলিকম প্রতিষ্ঠান ভেরাইজনের ইয়াহু অধিগ্রহণ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন।

৪৮০ কোটি ডলার মূল্যের এ অধিগ্রহণের নতুন সময়সীমা নির্ধারণ করে ইয়াহুর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) মধ্যেই এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। তবে এ সময়ে মূল ব্যবসা বিক্রির বিষয়ে ভেরাইজনের সঙ্গে অধিগ্রহণ পরিকল্পনা চূড়ান্তকরণের বিষয়টি চলমান থাকবে বলে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়েছে ইয়াহু।

সবচেয়ে পুরনো সার্চ ইঞ্জিনগুলোর অন্যতম ইয়াহু ইতিহাসের বৃহত্তম তথ্য চুরির শিকার হয় ২০১৩ সালে। ওই সময় প্রায় ১০০ কোটি গ্রাহকের তথ্য চুরি করে হ্যাকাররা। গত বছরের ডিসেম্বরে ইয়াহুর পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এরও আগে ২০১৪ সালে আরো ৫০ কোটি গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য চুরির বিষয়টি স্বীকার করেছিল ইয়াহু।

ক্রমাগত লোকসানের মুখে প্রধান ব্যবসা সার্চ ইঞ্জিনে মনোযোগ বাড়িয়েছে ইয়াহু। যদিও সোমবার প্রকাশিত প্রতিষ্ঠানটির আর্থিক প্রতিবেদনে দেখা যায়, গত বছরের শেষ প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর) ইয়াহুর সার্চ ইঞ্জিন ব্যবসায়ে রাজস্ব কমেছে প্রায় ৬ শতাংশ। যদিও এ সময় প্রতিষ্ঠানটির মোবাইল, ভিডিও ও সোস্যাল অ্যাডভার্টাইজিংসহ অন্যান্য ব্যবসায়িক খাতে এ সময় কিছুটা প্রবৃদ্ধির ধারা দেখা গেছে। গত বছরের অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ের মধ্যে ইয়াহুর মুনাফা হয়েছে ১৬ কোটি ২০ লাখ ডলার।

তবে অধিগ্রহণের সময় পিছিয়ে দিলেও এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের নেতিবাচক মনোভাব ব্যক্ত করেনি ইয়াহু। সোমবারের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশের পর ভেরাইজনের সঙ্গে ইয়াহুর সম্ভাবনা এখনো উজ্জ্বল বলে মন্তব্য করেন মারিসা মায়ার।

তবে ভেরাইজনের সঙ্গে ইয়াহুর ভবিষ্যত্ যতটাই উজ্জ্বল হোক না কেন, মারিসা মায়ার যে তা উপভোগের সুযোগ পাচ্ছেন না এ বিষয় প্রায় নিশ্চিত। চলতি মাসের শুরুর দিকে এসইসিকে ইয়াহু জানায়, ভেরাইজনের সঙ্গে একীভূতকরণ প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর পরই প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ থেকে পদত্যাগ করবেন মারিসা মায়ার।

আপনার মতামত লিখুন

তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ