শনিবার-১১ই এপ্রিল, ২০২০ ইং-২৮শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১:২৬, English Version
র‌্যাব কোম্পানীকর্তৃক করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত অভিযান পরিচালনা করেন পার্বতীপুরে কুমারদের দিন কাটছে অনাহারে। পার্বতীপুরে কাপড় শ্রমিকদের কষ্টে কাটছে দিন। নারায়ণগঞ্জে করোনা আক্রান্ত গিটারিস্টের নির্মম মৃত্যু পার্বতীপুরে ত্রাণের দাবীতে মানবন্ধন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় যে চা বুবলি মা হয়েছেন!

বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

প্রকাশ: রবিবার, ১৫ মার্চ, ২০২০ , ১২:১৩ অপরাহ্ণ , বিভাগ : জাতীয়,

এমএন২৪.কম ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫ মার্চ ‘বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস’ উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন:“বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস-২০২০ উপলক্ষে আমি দেশবাসী এবং প্রবাসী বাঙালিসহ বিশ্বের সকল ভোক্তা সাধারণকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার- সুরক্ষিত ভোক্তা-অধিকার’ -এ প্রতিপাদ্যকে কেন্দ্র করে দিবসটি উদ্‌যাপনের কর্মসূচি গ্রহণ এবং এ দিবসেই ‘ভোক্তা বাতায়ন’ শিরোনামে হটলাইন সার্ভিস চালুর মাধ্যমে বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস উদ্‌যাপনে বহুমাত্রিকতা যোগ হবে বলে আমি মনে করি।

আওয়ামী লীগ সরকার আগের মেয়াদে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ প্রণয়ন করেছে- যা দেশের ভোক্তা সাধারণের অধিকার সমুন্নত রাখার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই আইন দেশের ভোক্তাসাধারণের অধিকার লঙ্ঘনজনিত অভিযোগ নিষ্পত্তি করতে সাহায্য করছে এবং জনগণ এর সুফল পেতে শুরু করেছে। ভোক্তা স্বার্থ সমুন্নত রাখতে অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে নকল, ভেজাল, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বা ওষুধ, ধার্যকৃত মূল্যের অধিক কোনো পণ্য বা সেবা বিক্রয় এবং পরিমাপে কম দেওয়ার মতো ভোক্তা অধিকার বিরোধী কার্যক্রম প্রতিরোধ করা সম্ভব হচ্ছে। নিয়মিত বাজার তদারকির মাধ্যমে দ্রব্যমূল্য যৌক্তিক ও সহনশীল রাখতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। ভোক্তা স্বার্থ সংরক্ষণে প্রণীত আইনটি সময়োপযোগী ও কার্যকর হিসেবে ইতোমধ্যে পরিচিতি লাভ করেছে।

আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। গত ১১ বছরে আমরা দেশের প্রতিটি সেক্টরে অভাবনীয় অগ্রগতি অর্জন করেছি। আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে রোল মডেল। ইতোমধ্যে আমরা উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত হয়েছি। আমরা ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করব, ইনশাআল্লাহ।

ভোক্তা অধিকারকে আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে হবে। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের সুফল প্রতিটি ঘরে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী যথাযথ ভূমিকা রাখবে বলে আমি বিশ্বাস করি। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলবো।

আমি ‘বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস-২০২০’ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সফলতা কামনা করছি।    পি আই ডি

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু

বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

আপনার মতামত লিখুন

জাতীয় বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ