শুক্রবার-১০ই এপ্রিল, ২০২০ ইং-২৭শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১:২৯, English Version
যে কারণে দেশে ফেরার ঝুঁকি নেন খুনি মাজেদ করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে মাথা ন্যাড়া করার হিড়িক! ৯বছরের শিশুকে ধর্ষনে অভিযোগে রক্তাক্ত অবস্থায় থানায় মায়ের আহাজারি করোনা ভাইরাস এর কারনে পার্বতীপুরের কাচা বাজার কয়েকটি মাঠে বসার প্রস্তাব। সৈয়দপুরে এক যুবক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হাকিমপুরে অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে আটা বিতরণ পবিত্র শবে বরাতে প্রধানমন্ত্রীর বার্তা

হাইকোর্ট জি কে শামীমের জামিন প্রত্যাহার করেছেন

প্রকাশ: রবিবার, ৮ মার্চ, ২০২০ , ৪:০৬ অপরাহ্ণ , বিভাগ : আইন ও আদালত,

এমএন২৪.কম ডেস্ক : হাইকোর্ট অস্ত্র ও মাদক আইনে করা পৃথক দুটি মামলায় বিতর্কিত ঠিকাদার জি কে শামীমের জামিন মঞ্জুর আদেশ প্রত্যাহার করেছেন । রোববার বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মুজিবুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আগের আদেশ প্রত্যাহার করে এ আদেশ দেন। এর ফলে ওই মামলায় জি কে শামীমের জামিন আর থাকল না।

আদালতে এদিন শামীমের পক্ষে ছিলেন মমতাজ উদ্দিন মেহেদী। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. ফজলুর রহমান খান।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফজলুর রহমান খান (এফ আর খান) তার জামিন বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শনিবার (৭ মার্চ) তার আইনজীবী শওকত ওসমান জানিয়েছিলেন, গত ফেব্রুয়ারি মাসের ৪ ও ৬ তারিখে তিনি হাইকোর্টের দুই বেঞ্চ থেকে অস্ত্র ও মাদক আইনের দুই মামলায় জামিন পেয়েছেন। একটিতে এক বছর ও অপরটিতে ছয় মাস। মানিলন্ডারিং ও দুদকের আরো দু’টি মামলা আছে সেগুলোর জন্য অলরেডি হলফনামা করা হয়েছে।

ক্যাসিনোবিরোধী অভিযোগে গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর গুলশানের নিকেতনে শামীমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় ওই ভবন থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা, এফডিআর, আগ্নেয়াস্ত্র ও মদ উদ্ধার করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

অভিযানের সময় জি কে শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক, অর্থ পাচার ও জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মোট চারটি মামলা হয়।     সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল

অস্ত্র মামলায় দেয়া অভিযোগপত্রে বলা হয়, জি কে শামীম একজন চিহ্নিত চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, অবৈধ মাদক এবং জুয়ার ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। তার সহযোগীরা উচ্চ বেতনভোগী দুষ্কর্মের সহযোগী। তারা অস্ত্রের লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ করে প্রকাশ্যে এসব অস্ত্রশস্ত্র বহন ও প্রদর্শন করেছেন। এর মাধ্যমে জনমনে ভীতি সৃষ্টি করে বিভিন্ন ধরনের টেন্ডারবাজি, মাদক ব্যবসাসহ স্থানীয় বাস টার্মিনাল ও গরুর হাটবাজারে চাঁদাবাজি করে আসছিলেন। আসামি শামীম অস্ত্রের শর্ত ভঙ্গ করে ক্ষমতার অপব্যবহার করে মাদক ব্যবসা ও মানি লন্ডারিং করে আসছিলেন।

গত বছরের ২১ অক্টোবর জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে জিকে শামীমের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মামলায় শামীমের বিরুদ্ধে ২৯৭ কোটি ৯ লাখ টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ থাকার অভিযোগ আনা হয়।

আপনার মতামত লিখুন

আইন ও আদালত বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ