শনিবার-২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং-৯ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৭:০৮, English Version
পার্বতীপুরে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা মহান শহীদ দিবস ও মাতৃভাষা দিবসে গাইবান্ধায় দেশসেরা কামেরাবন্দি ওরা দু ভাই স্মৃতির মিনারে লাখো জনতার ঢল আগামীকাল মহান ‘শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ চিরিরবন্দরে জেলা পরিষদ ডাক বাংলো ভবনের উদ্বোধন লালমনিরহাটের প্রায় দেড় হাজার বছরের পুরোনো ঐতিহাসিক হারানো মসজিদের পুন:নির্মাণ

ওজন কমাতে ঘুমানোর আগে পান করুন এই তিন তরল

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : লাইফস্টাইল,

এমএন২৪.কম ডেস্ক :  বাড়তি ওজন নানারকম স্বাস্থ্য সমস্যা সৃষ্টি করে। অতিরিক্ত ক্যালরি সমৃদ্ধ খাদ্য গ্রহণ, ঘুমের অভাব, হরমোনজনিত সমস্যা ইত্যাদি কারণে ওজন বৃদ্ধি পায়। সুস্থ থাকতে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুরি। এমন কিছু তরল রয়েছে যা প্রতিদিন ঘুমানোর আগে গ্রহণের মাধ্যমে ওজন কমাতে পারেন আপনি। এই তরলগুলো সম্পর্কে চলুন জেনে নেওয়া যাক।

দুধ

প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম ও ট্রিপটোফ্যান রয়েছে দুধে। ঘুমানোর আগে এক গ্লাস ঠান্ডা বা গরম দুধ খেতে পারেন। এটি শারীরিক ও মানসিক চাপ কমায়। সেসঙ্গে কমায় ওজনও।

সয়া দুধ

ক্যালরি সমৃদ্ধ একটি পানীয় সয়া দুধ। এতে রয়েছে অ্যামিনো অ্যাসিড ও ট্রিপটোফ্যান। এই উপাদানগুলো ভালো ঘুম হতে সাহায্য করে ও ওজন কমায়। এছাড়া সয়া দুধ মস্তিষ্কে উপকারী হরমোন তৈরি করে, যা বাড়তি ওজন কমায়।

আঙুরের রস

তাজা আঙুরের রস ওজন কমাতে সাহায্য করে। রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাস আঙুরের রস পান করুন। এতে ভালো ঘুম হবে। অতিরিক্ত চর্বিও কমবে। শুধু এই পানীয়গুলো পান করলেই হবে না, তার সঙ্গে গোছানো ডায়েট মানতে হবে। তবে ওজন কমিয়ে সুস্থ থাকতে পারবেন আপনি।

আপনার মতামত লিখুন

লাইফস্টাইল বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


বিশ্বের নানা দেশ ভ্রমণের আগে সেসব দেশের আচার-আচরণ কিছুটা হলেও জেনে নেওয়া উচিত। অন্যথায় বিরূপ পরিস্থিতিতে পড়ার আশঙ্কা থাকে। মুসলিম দেশে পোশাক সাবধান : বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিমপ্রধান দেশে খোলামেলা পোশাক পরলে মারাত্মক সমস্যায় পড়ার আশঙ্কা আছে। নারীদের বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মসজিদসহ নানা ধর্মীয় স্থান ভ্রমণ করা যায়। তবে নিয়ম-কানুন আগেই জেনে নিতে হবে। ফ্রান্সে কথা হবে আস্তে : ফরাসিরা পাবলিক প্লেসে খুব নিচু স্বরে বা আস্তে কথা বলে। কেউ যদি সেখানে জোরে কথা বলে, তা হলে তাতে তারা খুবই বিরক্ত হয়। এমনকি মোবাইল ফোনেও কথা বলার সময় সতর্ক থাকতে হয়। ফ্রান্সে কোনো অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেলে টেবিলের পানীয় নিজে ঢেলে খাওয়া যাবে না। চীনে কারো দিকে আঙুল তোলা মানা : চীনের মানুষ কয়েকটি বিষয় মেনে চলে এবং অন্যদের কাছ থেকেও সেগুলো আশা করে। যেমন- চীনে কারো দিকে আঙুল তোলা অত্যন্ত গুরুতর বিষয় বলে ধরা হয়। তাই এ কাজটি করা যাবে না। এ ছাড়া শব্দ করে কিছু খাওয়া, অপরিচিত কাউকে ব্যক্তিগত প্রশ্ন করা থেকে সতর্ক থাকতে হবে। চীনে কেউ রেস্তোরাঁয় খাওয়ালে বিল দেওয়ার চেষ্টা করা যাবে না। যিনি আয়োজক বা বয়স্ক, তিনিই বিল দেবেন। জাপানে টিপস নয় : জাপানে কারো ব্যক্তিগত বাড়িতে বা মন্দিরে প্রবেশের আগে অবশ্যই জুতা খুলে নিতে হবে। এ ছাড়া রেস্তোরাঁয় গিয়ে টিপস দেওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। এতে বরং ওয়েটাররা বিব্রত হন। বাস বা ট্রেনে যাতায়াতের সময় মোবাইল ফোনে কথা না বলাই ভালো।   রাশিয়ায় হাসি নয় : আমেরিকা ও ইউরোপের নানা দেশে অপরিচিত মানুষের সঙ্গে দেখা হলে একটু হাসি বিনিময় করা প্রচলিত বিষয়। কিন্তু রাশিয়ায় এ কাজটি না করাই ভালো। রাশিয়ায় বিনা কারণে হাসলে তা বোকামি বা সন্দেহজনক কিছু বলেই ধরা হয়। নরওয়েতে গাড়ির হর্ন নয় : ইউরোপের বিভিন্ন দেশে গাড়ির হর্ন ব্যবহার না করার বিষয়টি বেশ প্রচলিত। তবে নরওয়ের লোকজন এ বিষয়টি সবচেয়ে বেশি মেনে চলে। গাড়িতে হর্ন থাকলেও তা তারা কোনোভাবেই বাজায় না।