বুধবার-২২শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং-৯ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৬:৪২, English Version
নীলফামারীতে আবারও মৃদু শৈত্যপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত সরকার লবণচাষিদেরকে সুরক্ষা প্রদান করবে নির্বাচন কমিশনের বিধি-বিধান বিএনপি’র জন্য লাভজনক -তথ্যমন্ত্রী সুন্দরগঞ্জে আবিষ্কার ফাউন্ডেশনের কম্বল বিতরণ নীলফামারীতে আজ মিজানুর রহমান আজহারীর তাফসিরুল কুরআন মাহফিলে ১০ লক্ষাধিক মানুষের উপস্থিতির টার্গেট নাচোলে লটারির টিকিট বিক্রির অপরাধে ১৩ কারাদণ্ড। পার্বতীপুরে জোড়া হত্যাকান্ড মামলার পলাতক আসামী গ্রেফতার

পার্বতীপুরে কিশোরী মা রেজিনা খাতুন স্ত্রীর মর্যাদা ও সন্তানের পিতার স্বীকৃতি চায়

প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২০ , ৬:১২ অপরাহ্ণ , বিভাগ : রংপুর,সারাদেশ,

আতাউর রহমান,  ঃ
স্ত্রীর মর্যাদা ও সন্তানের পিতার স্বীকৃতির দাবীতে রেজিনা খাতুন ওরফে মোছাঃ এমিনা আকতার (১৭) নামে এক কিশোরী মা গত এক পক্ষকাল ধরে প্রেমিক আল আমিনের (২১) বাড়ীতে অবস্থান করছেন। এ ঘটনাটি ঘটেছে, দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের উত্তর শালন্দার শাহপাড়া গ্রামে। গত ৩ জানুয়ারী রেজিনা খাতুন (১৭) তার আড়াই মাসের কন্যা সন্তানকে নিয়ে প্রেমিকের বাড়ীতে প্রবেশ করলে প্রেমিক আল আমিন (২১), তার মা সালমা বেগম ও বাবা জমির উদ্দীন বাড়ীর সবকটি ঘরের দরজায় তালা লাগিয়ে পালিয়ে যান।
জানা গেছে, উত্তর শালন্দার শাহপাড়া গ্রামের কৃষক জমির উদ্দীনের ছেলে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আল আমিনের সাথে একই এলাকার উত্তর শালন্দার মন্ডল পাড়া গ্রামের দিন মজুর রিয়াজ উদ্দীনের ৭ম শ্রেনিতে পড়–য়া কিশোরী কন্যা রেজিনা খাতুন ওরফে মোছাঃ এমিনা আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দুই বছরের বেশি সময় ধরে দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক চলাকালে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিক আল আমিন মেয়েটির সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। এতে রেজিনা খাতুন অন্তঃসত্বা হয়ে পড়ে। গত প্রায় আড়াই মাস পূর্বে সে এক কন্যার সন্তানের জন্ম দেয়। এতে গ্রামে হৈচৈ পড়ে যায়। এসময় এনিয়ে গত ২৭ অক্টোবর/১৯ গভীর রাতে মেয়ের বাবার বাড়ীতে শালিস বসলে আল আমিন সেখানে উপস্থিত হয়ে সবার সামনে নবজাতকের পিতৃত্বের বিষয়টি সে স্বীকার করে নেয়। ওই শালিস বৈঠকে স্থানীয় ইউপি সদস্য (৭নং ওয়ার্ড) মেনহাজুল হক, (৮নং ওয়ার্ডের) ইউপি সদস্য জসিম উদ্দীন, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা মোখলেছুর রহমান, গ্রামবাসী কফিল উদ্দীন (৪৫) ও বাদশা আলগীরসহ ৩০-৩৫ জন গ্রামবাসী উপস্থিত ছিলেন। সে সময়মত ধর্মীয় রীতি মোতাবেক তাকে বিয়ে করে বাড়ীতে তোলার প্রতিশ্রুতি দেয়। এজন্য আল আমিন ও রেজিনা খাতুন ওরফে মোছাঃ এমিনা আকতার দিনাজপুর জেলা জজ আদালতের অ্যাডভোকেট আবু সাঈদের মাধ্যমে দিনাজপুরের নোটারী পাবলিক ও অ্যাড. জাহানারা বেগম মোনা চৌধুরীর কাছে একটি এফিডেভিট স্বাক্ষর করে।
রেজিনার ভাই মেহেরাজ, বাবা রিয়াজ উদ্দীন ও স্থানীয় লোকজন জানায়- সম্প্রতি অভিযুক্ত আল আমিনের বোন জামাই শুকরু ও খালু ছাবর আল আমিনকে নিয়ে দিনাজপুর আদালতে ঘোরাঘুরি করছে। তারা চেষ্টা চালাচ্ছে, কি ভাবে আদালতের মাধ্যমে রেজিনাকে তালাক দেয়া যায়। এ খবর জানতে পেরে রেজিনা খাতুন তার সন্তানকে নিয়ে আল আমিনের বাড়ীতে অবস্থান নিয়েছে।
অব্যাহত শৈত্য প্রবাহ ও প্রচন্ড কনকনে শীতের মধ্যে রেজিনা খাতুন ওরফে মোছাঃ এমিনা আকতার তার আড়াই মাস বয়সী শিশু কন্যাকে বুকে নিয়ে গত দুই সপ্তাহ ধরে শ্বশুর বাড়ীর খোলা বারান্দায় অবস্থান করছেন। তার এ দুঃসময়ে রেজিনা নিজের ও তার সন্তানের অধিকার প্রতিষ্ঠার কাজে সকল মানবাধিকার কর্মী ও সংগঠন, জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও উপজেলা প্রশাসনের কাছে তার পাশে দাড়ানোর জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ