মঙ্গলবার-৩১শে মার্চ, ২০২০ ইং-১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সন্ধ্যা ৭:৫৫, English Version
সাধারণ ছুটি ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ল চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে খাবার তুলে দিলেন লেনিন প্রামাণিক চাঁপাইনবাবগঞ্জে সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ পার্বতীপুরের পত্রিকা বিক্রেতাদের হাতে তুলেন দিলেন খাদ্য সামগ্রী- উপজেলা সমাজসেবা অফিসার পলাশবাড়ীতে পৌরসভার উদ্যোগে জিবানুনাশক স্প্রে কার্যক্রম শিবগঞ্জেমৃত ব্যক্তির করোনা ভাইরাস ছিলনা ১৫ বাড়ী লক ডাউন প্রত্যাহার পলাশবাড়ীতে কর্মহীন ভাসমান বেদে পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সফল করতে উদ্ভাবক এবং ইন্ডাস্ট্রিজকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে — মোস্তাফা জব্বার

প্রকাশ: শনিবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ৮:১৭ অপরাহ্ণ , বিভাগ : তথ্য-প্রযুক্তি,

এমএন২৪.কম ডেস্ক : ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের মেরুদণ্ড হচ্ছে ডিজিটাল সংযুক্তি। ২০২১ সালে ফাইভ জি প্রযুক্তি চালুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ এক নতুন সভ্যতার যুগে প্রবেশ করার সম্ভাব্য সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। শত শত বছরের পশ্চাৎপদতা কাটিয়ে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সফল করতে সরকারের সাথে তিনি সংশ্লিষ্ট প্রযুক্তি সংক্রান্ত উদ্ভাবক, গবেষক, শিক্ষাবিদ এবং ইন্ডাস্ট্রিজকে সমন্বিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।
মন্ত্রী আজ ঢাকায় বাংলাদেশ প্রকৌশল ও কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এ আইইই কমিউনিকেশন্স সোসাইটি বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের উদ্যোগে আয়োজিত টেলিকমিউনিকেশন্স এন্ড ফটোনিক্স শীর্ষক আইইই আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী অপটিক্যাল ফাইবার এবং মোবাইল যোগাযোগ ব্যবস্থার বিকাশে টেলিকমিউনিকেশন্স এবং ফটোনিক্স প্রযুক্তিকে অত্যন্ত কার্যকর একটি প্রযুক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন। নাইজেরিয়ায় ল্যাপটপ এবং যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ কম্পিউটার রপ্তানি করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ৯০০টি ডিজিটাল সেবা জনগণের কাছে পৌঁছানো প্রয়োজন। এসব সেবা যাতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পৌঁছানো যায় সরকার সে লক্ষ্যে কাজ করছে। তিনি বলেন, দেশের উৎপাদিত ৯টি মোবাইল কারখানা দেশের শতকরা ৫০ ভাগ চাহিদা মেটাতে সক্ষম।
টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, বুয়েট দক্ষ জনসম্পদ তৈরি করে। চতুর্থ শিল্প বিপ্øবে যারা কাজ করে তারা যথাযথভাবে ইন্ডাস্ট্রিজের সাথে মিলে কাজ করলে পিছিয়ে থাকার সুযোগ নেই। আমরা যদি আমাদের ছেলে মেয়েদের উদ্ভাবন কাজে লাগাতে পারি তবে আমাদের দ্রুত এগিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। তিনি উদ্ভাবকদেরকে তাদের উদ্ভাবনী মেধাস্বত্ব যথাযথভাবে সংরক্ষণের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। মন্ত্রী আগামী ১৬ থেকে ১৮ জানুয়ারি ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিতব্য ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলায় সাধারণ মানুষের সাথে ফাইভ জি প্রযুক্তির সেতুবন্ধ গড়ার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন।
বুয়েট উপাচার্য প্রফেসর সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে লন্ডনের সিটি ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক প্রফেসর বিএম আজিজুর রহমান, ইউনাইটেড ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক প্রফেসর রকিবুল মোস্তাফা এবং বুয়েট অধ্যাপক প্রফেসর সত্য প্রসাদ মজুমদার প্রমুখ বক্তৃতা করেন। সূত্র-পিআইডি

আপনার মতামত লিখুন

তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ