শুক্রবার-১৫ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং-৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:২৪
অবহেলায় বিলুপ্তির পথে স্থাপত্যকলার অনন্য নিদর্শন কয়ারপাড়া জামে মসজিদ গাইবান্ধার পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে প্রবেশ, সাত শিক্ষার্থী বহিষ্কার গোবিন্দগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এসিল্যান্ড নিহত হওয়ার ঘটনায় পিবিআইর তদন্তের নির্দেশ শিবগঞ্জে সড়ক পরিবহন আইন ও সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক সচেতনামূলক লিফলেট বিতরণ লালমনিরহাটে নতুন সড়ক আইন প্রচারণায় পুলিশের লিফলেট বিতরণ হিলিতে এইচআইভি এইডস প্রতিরোধে জনসচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ে বাল্যবিবাহের চেষ্টা, কাজী ও বরকে কারাদণ্ড

লিবিয়ায় আটক ১৭১ বাংলাদেশিকে দেশে ফেরাচ্ছে সরকার

প্রকাশ: শনিবার, ৯ নভেম্বর, ২০১৯ , ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : আন্তর্জাতিক,

এমএন২৪.কম ডেস্ক: অবৈধভাবে সমুদ্র পথে নৌকায় চেপে ইউরোপ যাওয়ার সময় উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়া উপকূল থেকে ১৭১ বাংলাদেশিসহ অন্তত দুই শতাধিক শরণার্থীকে আটক করেছে দেশটির কোস্টগার্ড। গত ৩০ অক্টোবর আটককৃত সেই বাংলাদেশিদের এবার দেশে ফেরানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) দিনগত রাত একটা ২২ মিনিটে দেশটিতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের একটি ফেসবুক পোস্টে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

পোস্টে বলা হয়, লিবিয়ার সংশ্লিষ্ট মানবাধিকার সংস্থার সহযোগিতায় ভূমধ্যসাগর থেকে আটক সব বাংলাদেশি শরণার্থীর রেজিস্ট্রেশন এরই মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। উপকূল থেকে আটক সেসব অভিবাসন প্রত্যাশীদের দ্রুত দেশে ফেরাতে বাংলাদেশ সরকারের অনুমতিতে স্থানীয় রাষ্ট্রদূত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করে যাচ্ছেন। যেখানে আরও বলা হয়, দেশটিতে চলমান যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে স্থানীয় অভিবাসন কেন্দ্রে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের চেষ্টা অব্যাহত আছে। তাছাড়া সকলের নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে লিবিয়ার সরকারের বিভিন্ন দপ্তর এবং আইওএমের সঙ্গে সর্বক্ষণ যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। এর আগে গত ৩ নভেম্বর দূতাবাসের অপর এক ফেসবুক পোস্টে বলা হয়েছিল, লিবিয়ার কোস্টগার্ড ভূমধ্যসাগর থেকে ৩০ অক্টোবর দিবাগত রাতে ১৭১ বাংলাদেশিসহ প্রায় দুই শতাধিক অভিবাসন প্রত্যাশীকে আটক করেছে। পরবর্তীকালে তাদের রাজধানী ত্রিপলির নিকটবর্তী দুটি ডিটেনশন সেন্টারে হস্তান্তর করা হয়। দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত শেখ সিকান্দার আলী গণমাধ্যমকে জানান, উপকূল থেকে বাংলাদেশি অভিবাসীদের উদ্ধার করার খবর পেয়ে আমাদের দূতাবাস থেকে তাৎক্ষণিক স্থানীয় অবৈধ অভিবাসন নিয়ন্ত্রণ সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। যার প্রেক্ষিতে ডিটেনশন সেন্টার দুটি পরিদর্শন এবং উদ্ধারকৃত বাংলাদেশি নাগরিকদের সাক্ষাৎকার গ্রহণের অনুমতি নেওয়া হয় তিনি আরও জানান, গত ৩১ অক্টোবর দূতাবাসের পক্ষ থেকে জানজুর ডিটেনশন সেন্টার পরিদর্শন করা হয়। এ সময় সেখানে মোট ৪৩ জন বাংলাদেশি নাগরিককে পাওয়া যায়। পরবর্তীকালে সেন্টারগুলোতে আটক সকল বাংলাদেশি নাগরিকদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়।

আপনার মতামত লিখুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ