বুধবার-২৯শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং-১৬ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সন্ধ্যা ৭:৫৫, English Version
পার্বতীপুরে এক ধান ব্যবসায়ীর রহস্যজনক মৃত্যু গোবিন্দগঞ্জে মাদকসেবীর হাতে স্বামী নিহত স্ত্রী আহত হিলি চেকপোষ্টে করোনা ভাইরাস সম্পকে পরামর্শ দিচ্ছে মেডিকেল টীম। মুজিববর্ষ উপলক্ষে চলচ্চিত্র লীগের র‌্যালিতে তথ্যমন্ত্রী লালপুরে দুই বিড়ির লেবেল বিক্রেতা আটক! পলাশবাড়ীতে অপহৃত যুবক উদ্ধার আটক তিন অপহরণকারী সুপার ওভারে সিরিজ জিতলো ভারত

লালপুরে পাওয়ার ক্রাশার বন্ধে মাঠে নেমেছে নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল!

প্রকাশ: সোমবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ২:৩১ অপরাহ্ণ , বিভাগ : রাজশাহী,সারাদেশ,

মো.আশিকুর রহমান টুটুল, নাটোর প্রতিনিধি
নাটোরের লালপুর উপজেলার নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল এলাকায় পাওয়ার ক্রাশারে (যন্ত্রচালিত আখ মাড়াই কল) আখ মাড়াই বন্ধে ২০১৯-২০ আখ মাড়াই মৌসুম শুরুর আগেই মাঠে নেমেছে সুগার মিল প্রশাসন। তারা সভা সমাবেশ ছাড়াও নানা ভাবে আখচাষীদের সাথে মতবিনিময় করে চলেছেন। মিল প্রশাসন বলছে চলতি মৌসুমে মিল জোন এলাকায় পর্যাপ্ত আখ রয়েছে। প্রতি বছরের ন্যায় অসাধু ব্যবসায়ীরা যদি অবৈধভাবে পাওয়ার ক্রাশারে আখ মাড়াই শুরু করে তবে মিলটির আখ মাড়াই লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহত হবে।
নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল সূত্রে জানাযায়, মিলের নিজস্ব খামারে উৎপাদিত আখসহ এবছর মিল জোনের ২৪ হাজার একর জমিতে আখের আবাদ হয়েছে। চলতি ২০১৯-২০ আখ মাড়াই মৌসুমে ২ লাখ ৯৬ হাজার মে.টন আখ মাড়াই করে ২৫ হাজার মে.টন চিনি উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করা হয়েছে। নভেম্বরের শুরুতেই সুগার মিলে আখ মাড়াই শুরু হবে। কাঙ্খিত আখ না পেলে মিলটিতে লোকসান অবধারিত।
নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলের মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) আনোয়ার হোসেন জানান, যন্ত্রচালিত আখ মাড়াই কলে আখ মাড়ায়ের ফলে চিনিকল লক্ষমাত্রা অর্জনে ব্যার্থ হয়। ফলে লোকসান গুনতে হয়।
মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ আব্দুল কাদের জানান, চাষীদের কাছ থেকে ক্রয়কৃত আখের মূল্য সময়মত পরিশোধসহ আখচাষীদের সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করণে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের (বিএসএফআইসি) চেয়ারম্যান অজিত কুমার পাল জানান, চিনিশিল্পকে লাভ জনক করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। চিনিকলে পর্যাপ্ত আখ প্রাপ্তি নিশ্চত হলেই কেবল সেগুলো বাস্তবায়ন সম্ভব।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দূতি জানান, মিল জোনে অবৈধ পাওয়ার ক্রাশার চলতে দেওয়া হবে না। চাষীরা যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেজন্য তাদেরকে আগে থেকেই সতর্ক করে দেওয়া হচ্ছে।
এদিকে মিল এলাকায় পাওয়ার ক্রাশারে আখমাড়াই, গুড় তৈরী ও গুড় পরিবহন বন্ধে প্রচারণা শুরু করেছে নাটোর জেলা প্রশাসন।

আপনার মতামত লিখুন

রাজশাহী,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ