বৃহস্পতিবার-১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং-২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: বিকাল ৩:৪১
চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ সুপার অতিরিক্ত (এডিশনাল ডিআইজি)। অভিযুক্ত ২৫ জন প্রাইমারি স্কুলের সভাপতি হতে থাকতে হবে স্নাতক ডিগ্রি কলাপাড়ায় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থ্য চারশ পরিবারকে সরকারি ত্রান সহায়তা।। বরিশালে খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের পাঠদান হিলিতে পানিতে ডুবে দুই বছরের এক শিশুর মৃত্যু শৈলকুপায় জেএসসি পরীক্ষার্থী বহিস্কার

পার্বতীপুরে বৃদ্ধের পোটলায় মিললো জাতীয় পতাকা!

প্রকাশ: রবিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ১০:০৯ অপরাহ্ণ , বিভাগ : রংপুর,সারাদেশ,

এমএন২৪.কম ডেস্ক:
বৃদ্ধের নাম পরিচয় জানে না কেউ। রোগ আর পুষ্টির অভাবে শরীরের চামড়া লেগে গেছে হাড্ডির সাথে। কথাও বলতে পারেন না তিনি। পথচারীদের দেওয়া খাবার ও সাহয্যে চলতো বৃদ্ধের জীবন। ঝড় বৃষ্টি আর প্রখর রোদ মাথায় নিয়ে পার্বতীপুর রেল স্টেশনের পূর্ব টিকেট কাউন্টারের বারান্দায় পড়ে থাকতেন তিনি। তার চার পাশে থাকতো হরেরক রকম নোংরা কাপড়ের পোটলা। গতকাল রোববার দুপুরে ওই অসহায় বৃদ্ধের আশ্রয় হয়েছে পার্বতীপুর উপজেলা সংলঘœ হাসিনা নগর গ্লোরী সমাজ উন্নয়ন সংস্থায়। পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহনাজ মিথুন মুন্নি ও ইয়ং স্টার কাব সভাপতি আমজাদ হোসেন গ্লোরীর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মারুফ কেইনের হাতে তুলে দেন সত্তোর উর্ধো ওই বৃদ্ধকে। সবার উপস্থিতিতে বৃদ্ধের সাথে থাকা পোটলা গুলো খুলতে থাকনে গ্লোরীর প্রতিষ্ঠাতা। পোটলা গুলো খুলে কিছু পাওয়া না গেলেও একটি পোটলায় পাওয়া গেল নতুন একটি জাতীয় পতাকা। যা তিনি পরম যতœ করে আগলে রেখেছেন।
গ্লোরীর প্রতিষ্ঠাতা মারুফ খান জানান, আর্তমানবতার সেবার জন্য প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তুলেছেন তিনি। রাস্তা, স্টেশন, বাজার এলাকায় পড়ে থাকা পরিচয়হীন রোগাক্রান্ত নারী-পুরুষ ও শিশুদের গ্লোরীতে এনে সুন্দর পরিবেশে তত্বাবধায়ন করা হয়। এদের মধ্যে পার্বতীপুর রেল জংশনে পড়ে থাকা অসহায় মানুষের সংখ্যা বেশি। তাদের নিজ হাতে গোসল করিয়ে পরিয়ে দেওয়া হয় নতুন পোষাক। তিন বেলা খাবারের পাশাপাশি করেন প্রয়োজনীয় চিকিৎসা। খোঁজ মিললে তুলে দেওয়া হয় পরিবারের হাতে। খোঁজ না পেলে মৃত্যু পর্যন্ত থাকতে পারেন সেখানে। বর্তমানে ১৭ জন অসহায় নারী-পুরুষ আছে গ্লোরীতে। খরচ চলে নানা জনের সহায়তায়।
পরে গ্লোরী পরিদর্শনে যান উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক। তিনি ৪টি সিলিং ফ্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহনাজ মিথুন মুন্নি নগদ অর্থ ও আমজাদ হোসেন একটি হুইল চেয়ার প্রদান করনে। উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন তিনি অভিভূত হয়েছেন গ্লোরী দেখে। তিনি এই সংস্থাটিকে আরো আধুনিক করতে সহায়তা অব্যাহত রাখবেন বলে জানান।

আপনার মতামত লিখুন

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ