বৃহস্পতিবার-১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং-৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১২:১৭
অধিগ্রহণকৃত ২৯১ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আত্মীকরণের আদেশ দ্রুত জারি করা হবে রিফাত হত্যা : পলাতক ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাদারীপুরে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ প্রকাশ্যে আসছে আইয়ুব বাচ্চুর ‘রুপালি গিটার’ ফিলিপাইনে ট্রাক খাদে পড়ে নিহত ২০ দলের কেউ অন্যায় বা দুর্নীতি করলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা: কাদের মাহমুদল্লার ব্যাটে লড়াকু সংগ্রহ বাংলাদেশের

৩৭০ ধারা বাতিলের পর কাশ্মীরে গ্রেপ্তার ৪ হাজার: দ্য গার্ডিয়ান

প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৭ আগস্ট, ২০১৯ , ৯:৩৯ অপরাহ্ণ , বিভাগ : আন্তর্জাতিক,

এমএন২৪.কম ডেস্ক: ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল এবং অঞ্চলটি অবরোধ করার পর এ পর্যন্ত দুই হাজার ৩০০ থেকে চার হাজার মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দুটি আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থার বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের শীর্ষস্থানীয় দৈনিক পত্রিকা দ্য গার্ডিয়ান।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি) এবং ফ্রান্সের এএফপির আলাদাভাবে সংগ্রহ করা তথ্যের ভিত্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যমটি।

কাশ্মীরের তিন সাবেক মুখ্যমন্ত্রীসহ একাধিক বিশিষ্ট রাজনীতিক, ব্যবসায়ী ও আইনজীবীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে গ্রেপ্তারকৃতদের বেশির ভাগই তরুণ।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবর অনুসারে, কিছু গ্রেপ্তারকৃতকে বিমানে করে কাশ্মীর থেকে লখনৌ, বরেলি ও আগ্রায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
গত দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যেও অঞ্চলটিতে ভারতীয় সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ অব্যাহত আছে।

একটি নিষিদ্ধ রাজনৈতিক গোষ্ঠীর প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে এক কাশ্মীরি নাম না প্রকাশের শর্তে ব্রিটিশ গণমাধ্যমটিকে বলেন, কাশ্মীর জ্বলন্ত আগ্নেয়গিরি। যেকোনো সময় বিস্ফোরিত হবে।

এদিকে ভারতীয় সরকার কাশ্মীরের মানুষকে নীরব থাকতে বাধ্য করছে বলে অভিযোগ করেছে যুক্তরাজ্যের মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিশেষজ্ঞরা গত সপ্তাহে কাশ্মীরের পরিস্থিতি সম্পর্কে গভীরভাবে উদ্বেগ প্রকাশ করেনে। শঙ্কা প্রকাশ করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ নামের যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার সংস্থাও।

গত ৫ আগস্ট রাষ্ট্রপতির নির্দেশ জারির মাধ্যমে ভারত সরকার সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ এবং কাশ্মীর ভেঙে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ নামের দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করে।

ভারতের এসব পদক্ষেপের প্রেক্ষিতে ৭ আগস্ট পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে দেশটির ন্যাশনাল সিকিউরিটি কমিটি (এনএসসি) পাঁচটি সিদ্ধান্ত নেয়।

সিদ্ধান্তগুলো হলো- ভারতের সঙ্গে সব দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য স্থগিত করা, দেশটির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক সীমিত করা; পাকিস্তান ও ভারতের দ্বিপক্ষীয় কর্মসূচিগুলো পর্যালোচনা করা; বিষয়টি জাতিসংঘে নিয়ে যাওয়া এবং পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে কাশ্মীরিদের প্রতি সংহতি জানানোর পাশাপাশি ভারতের স্বাধীনতা দিবসকে কালো দিবস হিসেবে পালন করা।

এছাড়া পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেন, আমাদের রাষ্ট্রদূতরা আর নয়াদিল্লিতে থাকবেন না এবং তাদের রাষ্ট্রদূতদেরকে ফেরত পাঠানো হবে।

আপনার মতামত লিখুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ