- মুক্তিনিউজ24.কম - https://www.muktinews24.com -

বরিশালে সড়ক সংস্কারের দাবিতে শিার্থীদের মানববন্ধন


মনির হোসেন,বরিশাল ব্যুরো ॥ জেলার মুলাদী উপজেলার বেলতলা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ থেকে গালর্স স্কুল পর্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ সংযোগ সড়ক সংস্কারের দাবিতে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে স্মারকলিপি পেশ করেছেন গফুর মল্লিক বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিার্থীরা।
বিদ্যালয়ের সহকারী শিক দিদারুল আহসান খান জানান, ১৯৯৫ সালে তৎকালীন সংসদ সদস্য মুলাদীর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ থেকে গফুর মল্লিক বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত সড়ক সংস্কার করেন। এরপর দুই যুগ অতিবাহিত হলেও গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি নির্মাণ কিংবা সংস্কার করা হয়নি। ফলে সড়কের বিভিন্নস্থানে খানা-খন্দের সৃষ্টি হয়ে চলাচলের জন্য সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পরেছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছয় শতাধিক ছাত্রীরা সড়কের কাঁদা-পানি পেরিয়ে প্রতিদিন স্কুলে যাতায়াত করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। প্রায় প্রতিদিনই সড়কের কাঁদা ও পানিতে অধিকাংশ শিার্থীদের ইউনিফর্ম নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তারা কাস না করে বাড়িতে ফিরে যেতে বাধ্য হচ্ছে।
স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ২০০১ সালে মুলাদী পৌরসভা গঠিত হলেও অদ্যবর্ধি পৌর সদরের গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। ২০১৫ সালে মুলাদী পৌরসভা ‘ক’ শ্রেণিতে উন্নীত হলেও সড়কটির কোনো পরিবর্তন না হয়ে ধীরে ধীরে যান ও সাধারণ মানুষের চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পরে। বিদ্যালয়ের শিার্থীরা দীর্ঘদিন থেকে সড়ক সংস্কারের দাবী জানিয়ে ব্যর্থ হয়ে মঙ্গলবার মানববন্ধন করেছে।
এসময় বিক্ষুব্ধ শিার্থীরা সড়কে জমে থাকা পানিতে বঁড়শি ফেলে প্রতিকী মাছ ধরে সড়ক সংস্কার না হওয়ার ােভ প্রকাশ করেন। বিদ্যালয়ের প্রধানশিক মোঃ এনায়েত হোসেন জানান, বর্ষা মৌসুমের শুরুতে ভাঙ্গা সড়কের খাদে পরে ইতোমধ্যে কয়েকজন ছাত্রী আহত হয়েছে। সড়কের খাদে পানি জমে থাকার কারণে ছাত্রীরা বিদ্যালয়ে আসতে চাইছে না। ফলে শিার্থীদের উপস্থিতি দিন দিন কমে যাচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন জানান, শিাথীদের দেয়া স্মারকলিপির বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মুলাদী পৌরসভার মেয়র মহোদয়ের কাছে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে পৌর মেয়র মোঃ শফিক উজ্জামান রুবেল জানান, সড়কটির নির্মাণ কাজ চলিতেছে কিন্তু গফুর মল্লিক বালিকা বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান তারিকুল হাসান মিঠু খান মতার অপব্যবহার করে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে শিার্থীদের রাস্তায় নামিয়ে মানববন্ধন করিয়ে আমার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টা করছেন।

আপনার মতামত লিখুন