বুধবার-১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং-১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১:০৫, English Version
সাধারণ ছুটি ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ল চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে খাবার তুলে দিলেন লেনিন প্রামাণিক চাঁপাইনবাবগঞ্জে সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ পার্বতীপুরের পত্রিকা বিক্রেতাদের হাতে তুলেন দিলেন খাদ্য সামগ্রী- উপজেলা সমাজসেবা অফিসার পলাশবাড়ীতে পৌরসভার উদ্যোগে জিবানুনাশক স্প্রে কার্যক্রম শিবগঞ্জেমৃত ব্যক্তির করোনা ভাইরাস ছিলনা ১৫ বাড়ী লক ডাউন প্রত্যাহার পলাশবাড়ীতে কর্মহীন ভাসমান বেদে পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন

ডোমারে অসুস্থ্য শিক্ষার্থীকে পাকা রাস্তায় আছাড় মারলেন সভাপতির ছেলে

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ , ৯:৫০ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : রংপুর,সারাদেশ,

রবিউল হক রতন ডোমার(নীলফামারী)প্রতিনিধি: নীলফামারী ডোমারে দুই শিক্ষার্থীর খেলা কে কেন্দ্র করে এক অসুস্থ্য শিক্ষার্থীকে পাকা রাস্তায় আছাড় মেরেগুরুতর আহত করলেন ঐ স্কুলের সভাপতির ছেলে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। অপরদিকে আহত শিক্ষার্থী কিডনী অপারেশনের রোগী হওয়ায় তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে শংকা প্রকাশ করছে তার পরিবার।
সরেজমিনে জানা গেছে ১৬ই এপ্রিল মঙ্গলবার স্কুল চলাকালীন অবস্থায় উপজেলার ডোমার সদর ইউনিয়নের দোলাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্র আব্দুর রহমানের সাথে ঐ বিদ্যালয়ের সভাপতির মেয়ে আফরিনের খেলাকে কেন্দ্র করে ঝগড়া বাধে। পরে বিষয়টি হাতা-হাতি পর্যায়ে গেলে সহপাঠীর মধ্যস্থতায় উভয়কে ছাড়াছাড়ি করে বিষয়টি নিষ্পত্তি করে দেয়। এ সময় সভাপতির মেয়ে বিষয়টি তার বাড়ীতে জানালে সভাপতির ছেলে তানজিরুল(২২) ঘটনাস্থলে এনে কিছু না শুনেই আব্দুর রহমানকে বেধরক মারপিট শুরু করে। এর এক পর্যায়ে আব্দুর রহমানকে পাকা রাস্তায় পর পর তিন বার আছাড় মারে। এতে আব্দুর রহমান জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। বিষয়টি এলাকাবাসী তার পরিবারকে জানালে তার পরিবার তাকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। আহত আব্দুর রহমানের মাতা আয়েশা সিদ্দিকা জানান আমার ছেলে পর পর তিনটি অপারেশন করা হয়েছে। তার একটি কিডনি দিয়ে জীবন চলছে। তার উপর একটি বড় ছেলে তাকে তিন তিন বার পাকা রাস্তায় আছাড় দিলে কি অবস্থা হয় তা আপনারাই অনুমান করেন। তিনি আরো বলেন ডাক্টার তাকে ভাড়ী বস্তু বহন করতে নিষেধ করেছে। এখন তাকে নিয়ে আমরা সব সময় দু:চিন্তায় থাকি। বিদ্যালয়ের প্রধাণ শিক্ষক হেমন্ত কুমার রায় বলেন,“আমি ঘটনাটি বাসায় গিয়ে বিকেলে শুনেছি। রাতে বাচ্ছাটিকে দেখতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাই। বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি। এবিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আমির হোসেন বলেন- সহকারী শিক্ষা অফিসার আব্দুস সামাদ বিষয়টি আমাকে অবগত করেন। আমি আব্দুর রহমানকে দেখতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাব। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে প্রধান শিক্ষককে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিব। এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আখতারুজ্জামান (আজাবুল) বলেন- শিশুটিকে দেখতে গিয়েছি। তবে এবিষয়ে বাকী কথা সাক্ষাতে হবে।

আপনার মতামত লিখুন

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ