সোমবার-১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং-৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৭:০৭, English Version
সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির নীতিমালা প্রকাশ মিয়ানমারের পেঁয়াজ টিসিবিতে বিক্রি শুরু, কেজি ৪৫ টাকা লালপুরে নিজের পাওয়ার ট্রলির চাপায় চালক নিহত! আরামকোর দাম দেড় লক্ষ কোটি ডলার ছাড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর গ্রান্ড দুবাই এয়ারশো ২০১৯-এ যোগদান পার্বতীপুরে গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়নে ৫৬ প্রকল্পের কাজ শুরু ৩ হাজার ২ জন অতিদরিদ্র নারী-পুরুষের কর্মসংস্থান চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার শিবগঞ্জ আদর্শ হাসপাতালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ডা: মাহাফুজ জামান এমবিবিএস এমডি

পাঁচবিবিতে মহীপুর হাজী মহসীন সরকারি কলেজে শিক্ষক সংকট

প্রকাশ: রবিবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৬ , ৬:০৫ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : রাজশাহী,সারাদেশ,

1593566মোস্তাকিম হোসেন, পাঁচবিবি (জয়পুরহাট): জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মহীপুর হাজী মহসীন সরকারি কলেজে শিক্ষক সংকটের কারণে পাঠদান ব্যাহত হওয়ায় ফলাফল বিপর্যয় দেখা দিয়েছে।
১৯৬৯ সালে মাওলানা আব্দুল হামিদ খাঁন ভাসানী কলেজটি প্রতিষ্টা করেন। ১৯৮২ সালে কলেজটি জাতীয় করণ করা হয়। উচ্চ মাধ্যমিকের পাশাপাশি বাংলা, ইংরেজী,রাষ্ট্র বিজ্ঞান, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, দর্শন, হিসাব বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ে অর্নাস কোর্স চালু রয়েছে। শিক্ষক সংকটের কারণে প্রায় ৫ হাজার শিক্ষার্থীর পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। ২২ প্রভাষকের মধ্য রয়েছেন মাত্র ৩ জন। ১৯ প্রভাষকের পদ খালি রয়েছে। পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগে কোন শিক্ষক নেই। ইংরেজী বিভাগে ৪ জনের মধ্যে ২ জন নেই। অর্থনীতি বিভাগে ৪ জনের মধ্যে ২ জন নেই। দর্শন বিভাগে ৪ জনের মধ্যে ২ জন নেই। রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগে ৪ জনের মধ্যে ২ জন নেই। ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ৪ জনের মধ্যে ২ জন নেই। হিসাব বিজ্ঞান বিভাগে ৪ জনের মধ্যে ২ জন নেই। ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৪ জনের মধ্যে  ২ জন নেই। রসায়ন বিভাগে ৩ জনের মধ্যে ১ জন নেই। উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগে ৩ জনের মধ্যে ১ জন নেই। প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ৩ জনের মধ্যে ১ জন নেই। গণিত বিভাগে ২ জনের মধ্যে ১ জন নেই। কৃষি বিজ্ঞান বিভাগে ২জনের মধ্যে ১ জন নেই। এছাড়া প্রর্দশকে ৪ টি, ক্রীড়া বিভাগে ১টি ও গ্রন্থাগারিকে ২ টি পদ যুগ যুগ ধরে খালি রয়েছে। শিক্ষক সংকটের কারণে কাস ঠিক মতো হয় না। ফলে বেলা ১২ টার মধ্যে কলেজ ক্যাম্পস ফাঁকা হয়ে যায়। সম্মান শ্রেণির শিক্ষার্থীরা মাঝে মধ্যে কলেজে এসে ইনকোর্স পরীক্ষার খোঁজ খবর নিয়ে থাকেন। নিয়মিত কাস না হওয়ায় গাইড বই পড়ে পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে হয়। অধ্যক্ষ বরজাহান আলী বলেন, শিক্ষক সংকটের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে প্রতি মাসে প্রতিবেদন আকারে জানানো হয়ে থাকে।

আপনার মতামত লিখুন

রাজশাহী,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ