রবিবার-২০শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং-৫ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৮:৫১
গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানা ২২ পিছ ফেনসিডিল সহ ১ মহিলা আটক ৫ দফা দাবীতে ফারিয়া গোবিন্দগঞ্জ শাখার মানববন্ধন অনুষ্ঠিত শৈলকুপায় দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ১০, আটক-৩ আইএফসি’র বিনিয়োগে বাংলাদেশে কর্মসংস্থান আরো বাড়বে    — অর্থমন্ত্রী নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে হবে    — মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী প্রাথমিক শিক্ষকদের সুখবর দিলো মন্ত্রণালয় গাইবান্ধার ব্রম্মপুত্র নদে মোবাইল কোর্ট পারিচালনায় ১০ জনকে আটক

ভারতে এবার বিমান হাইজ্যাকের হুমকি!

প্রকাশ: রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ , ৫:৩১ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : আন্তর্জাতিক,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: একটি ফোন। আর তাতেই হুলুস্থুলু পড়ে গেছে ভারতের সব বিমানবন্দরে। ফোনের এই হুমকির জেরে সব বিমানবন্দরে জারি করা হয়েছে সর্বোচ্চ সতর্কতা (হাই অ্যালার্ট)। প্রতিটি বিমানবন্দরে বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে নিরাপত্তা। বিমানবন্দরে ঢোকা সব গাড়ির উপর রাখা হচ্ছে বাড়তি নজর। সন্দেহজনক কিছু দেখলেই ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, মুম্বাইয়ের এয়ার ইন্ডিয়ার কন্ট্রোল রুমে একটি উড়ো ফোন আসে। হুমকি দিয়ে বলা হয় কান্দাহারের মতো ফের হাইজ্যাক করা হবে ভারতীয় কোনও বিমান। এই ধরনের হুমকি ফোনকে সচরাচর হালকাভাবে নেওয়া হয় না। এক্ষেত্রেও নেওয়া হয়নি। তবে হুমকি ফোন চিন্তায় ফেলে দিয়েছে মুম্বাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে। কিছুদিন আগেই পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার মতো ভয়াবহ ঘটনা ঘটেছে। এই পরিস্থিতিতে বিমান হাইজ্যাকের হুমকি কপালে চিন্তার ভাজ ফেলে দিতে বাধ্য। তারপরেই নিরাপত্তা এজেন্সি দেশের সব বিমানবন্দরে হাই অ্যালার্ট জারি করেছে।
বিষয়টি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল এক ব্যক্তি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, প্রতিটি বিমানবন্দরের প্রবেশ ও বাইরের পথে অতিরিক্ত নিরাপত্তা কর্মী মোতায়েন করতে বলা হয়েছে। বিমানবন্দর সংলগ্ন রাস্তায় নিরাপত্তা বাড়াতে বলা হয়েছে। কয়েকটি এয়ারলাইন্সের বিমানগুলোতে বিশেষ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। বিশেষ করে পাকিস্তানের আকাশ ছুঁয়ে যে বিমানগুলো গাল্ফ যায় সেই বিমানগুলোকে বাড়তি সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

দেশের অধিকাংশ বিমানবন্দরগুলোতে নিরাপত্তা দেয় সিআইএসএফ। তাদের পক্ষ থেকে বিমানবন্দরগুলোতে নিরাপত্তা বাড়ানোর কথা স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে।

এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, বিমানবন্দরের প্রবেশ পথে স্পিড ব্রেকার বসানো হয়েছে। প্রতিটি চেক পয়েন্টে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া এয়ারলাইন্সগুলোকে অনুরোধ করা হয়েছে সেকেন্ডারি ল্যাডার পয়েন্ট চেকিং ব্যবস্থা শুরু করার। যাত্রীদের নির্ধারিত সময়ের চেয়ে একটু আগে বিমানবন্দরে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে। কেননা এতগুলো নিরাপত্তা স্তর পেরোতে সময় লাগবে।

এছাড়া সুইপিং স্কোয়াডকে নামানো হয়েছে। যাদের কাজ হল সন্দেহভাজন যাত্রীদের চিহ্নিত করা। সব বিমানবন্দরে এদের নামানো হয়েছে। সেই সঙ্গে ডগ স্কোয়াড ও বম্ব স্কোয়াডকে তৈরি থাকতে বলা হয়েছে।সূত্র: বাংলাদেশপ্রতিদিন

আপনার মতামত লিখুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ