শুক্রবার-৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং-২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ১০:৩৮, English Version
মহামারি করোনায় ওমর সানি প্রশ্ন করলনে—শাকিব তুই চুপ কেন পলাশবাড়ীতে নিরলসভাবে কাজ করছে ক্যাপ্টেন সাদিকের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী টিম সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সেনাবাহিনীর আহ্বান লালমনিনরহাটের পঞ্চগ্রামের হাট বাজার ও রাস্তা গুলোতে ঔষধ ছিটানো হচ্ছে বাগেরহাটে সামাজিক দূরত্বে কৃষি কাজ অসহায় ও অসচ্ছলদের পাশে দাঁড়িয়েছেন-অপু বিশ্বাস করোনার ভ্যাকসিন তৈরির পথে অস্ট্রেলিয়া

গাইবান্ধায় ২০০ টাকার জন্য প্রাণ গেল যুবকের

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: গাইবান্ধায় মাত্র ২০০ টাকার জন্য । তা ছাড়া নাটোরে প্রতিশ্রুত টাকা না পেয়ে যুবকের হাত কেটে নিল পাওনাদাররা।

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে পাওনা ২০০ টাকা নিয়ে বাগিবতণ্ডার জের ধরে প্রতিপক্ষের মারধরে আব্দুর রহিম (৪০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু ঘটেছে। এ সময় আহত হয়েছেন নিহতের স্ত্রী রাশিদা বেগম। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলা সদরের কালুগাড়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গতকাল বুধবার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত আব্দুর রহিম ওই গ্রামের খোকা মিয়ার ছেলে।

হাসপাতালে চিকিত্সাধীন নিহতের স্ত্রী রশিদা বেগম জানান, প্রতিবেশী মেহের আলীর ছেলে জুয়েল মিয়া, জায়দালের ছেলে আনারুল হকসহ আব্দুর রহিম ঢাকায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে রিকশা চালাতেন। তাঁদের ঘরভাড়ার ২০০ টাকা নিয়ে জুয়েল ও আনারুলের সঙ্গে রহিমের বিরোধ ছিল। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে দুই-তিনজন সঙ্গীসহ আনারুল ও জুয়েল তাঁদের বাড়ি আসেন। এ সময় ঝগড়ার একপর্যায়ে তাঁরা রহিমকে মারধর করেন। বাধা দিলে তাঁরা রশিদাকেও মারধর করেন। একপর্যায়ে রহিম মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

পলাশবাড়ী থানার ওসি হিফজুর আলম মুন্সি জানান, খবর পেয়ে গতকাল লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় রহিমের স্ত্রী বাদী হয়ে পলাশবাড়ী থানায় মামলা করেছেন।

এদিকে নাটোরে প্রতিশ্রুত টাকা না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে কোপ দিলে আব্দুল আওয়াল নামের একজনের ডান হাত শরীর থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। গতকাল সকালে সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের পারহালসা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, আওয়াল ও সুমন বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে বিদেশে লোক পাঠান। পাশের ধানুড়া গ্রামের রাজনকে কিছুদিন আগে সৌদি আরব পাঠান তাঁরা। সে ক্ষেত্রে আওয়ালের কাছে তাঁরা আরো ১০ হাজার টাকা দাবি করে আসছিলেন। তবে আওয়াল ওই টাকা দিতে গড়িমসি করছিলেন।

গতকাল টাকা নিয়ে আবারও বাগিবতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে সুমন ধারালো অস্ত্র দিয়ে আওয়ালকে আঘাত করেন। তাতে আওয়ালের ডান হাত শরীর থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ সময় লোকজন এগিয়ে এলে সুমনরা পালিয়ে যান। স্থানীয়রা আওয়ালকে উদ্ধার করে প্রথমে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নাটোর সদর থানার ওসি (তদন্ত) ফরিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ জানায়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সূত্র:কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

Uncategorized,রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ