বৃহস্পতিবার-২৭শে জুন, ২০১৯ ইং-১৩ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ২:৫১
রোহিঙ্গারা অতিদ্রুত ফেরত না গেলে স্থিতিশীলতা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা ডিজিটাল সংসদ গড়তে এমপিদের ল্যাপটপ দেওয়া হবে : পলক বাবরের সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের জয়, কিউইদের প্রথম হার পাইলট অভিনন্দনের গোঁফকে ‘জাতীয় গোঁফ’ ঘোষণার দাবি পার্লামেন্টে! অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্য বাংলাদেশ এখন অনন্য উচ্চতায় পার্বতীপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি’র মৌলিক ও মানবাধিকার বিষয়ে দিনব্যাপি কর্মশালা জলঢাকায় ফারাজ হোসেন এর স্মরণে ডিসিআই ও আরএসসির দিনব্যাপি ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা “

সৈয়দপুরের পত্রিকা বিক্রেতা গাফফারের পাশে দাঁড়ান

মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥
৩০ বছর যাবত কাকডাকা ভোরে সংবাদপত্র হাতে নিয়ে ছুটে বেড়ানোই তার পেশা, রোদ বৃষ্টি ঝড় উপেক্ষা করে ছুটে চলা মানুষটি আজ অসুস্থ। নীলফামারীর সৈয়দপুরের পত্রিকা বিক্রেতা আব্দুল গাফফারের বয়স এখন ৬০ বছর। ভাড়া বাড়িতে থাকেন মুন্সিপাড়ায়। স্ত্রী, দু’কন্যা আর ১ ছেলেকে নিয়ে তার বসবাস। বয়স এবং অসুস্থতা তাকে গ্রাস করেছে আস্টে পৃস্টে। গত ফেব্রুয়ারী মাসে ব্রেইন স্ট্রোক করে ভর্তি হন পাবর্তীপুর ল্যাম্ব হাসপাতালে। সেখানে কিছুটা সুস্থ হলেও অবস হয়ে গেছে বাম হাত। চিকিৎসা ব্যয় বহন করতে না পেরে অসুস্থ শরীর নিয়ে চলে আসতে হয়েছে হাসপাতাল থেকে। একমাত্র ছেলেটি খুব সামান্য আয় করে। সেই থেকেই বাবার চিকিৎসা করিয়েছেন। এখন তার পক্ষে আর সম্ভব হচ্ছে না।
নিজের শারীরিক অবস্থা ক্রমেই খারাপ হয়ে যাচ্ছে তার উপরন্ত দুটি অবিবাহিত মেয়েকে নিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে অসহায় মানুষটি। ডাক্তার বলেছে, দূত উন্নত চিকিৎসা করাতে না পারলে ব্রেইন পুরোপুরি ড্যামেজ হয়ে যেতে পারে।
পত্রিকা বিক্রেতা আব্দুল গাফফার জানান, আমি ৩০ বছর যাবত সংবাদপত্র বিক্রি করে আসছি। আমি অন্য কোন কাজ করতে পারি না। আমার বয়স হয়েছে এখন আর শরীরে শক্তি পাইনা। পত্রিকা নিয়ে আর ছুটতে পারি না। চিকিৎসা করার মত অর্থ নেই আমার। সমাজের বিত্ত্ববানদের কাছে আহবান আমাকে চিকিৎসা করার জন্য আর্থিক সাহায্য করেন। আমি আবার পত্রিকা বিক্রয় করে জীবিকা নির্বাহ করতে চাই। বিকাশ: ০১৯৯২১৪৮৪৯৮।

আপনার মতামত লিখুন

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ