বৃহস্পতিবার-১৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং-৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সন্ধ্যা ৭:১৭
হাতীবান্ধায় ত্রান বিতরন অব্যাহত সৈয়দপুরে দিনেদুপুরে সাংবাদিক বাসায় দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বহু অপকর্মের হুতা পারভেজ বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ অবশেষে পুলিশ হাতে আটক  ৫৫ দিনেই মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ করায় ধন্যবাদ জানালেন প্রধানমন্ত্রী বন্যায় রাজধানীর সঙ্গে ৪ জেলার রেলযোগাযোগ বন্ধ কর্মকর্তাদের অসন্তোষে বড়পুকুরিয়া খনির এমডিকে অপসারণ

সাদা চাদরে আর ‘সতীত্বের পরীক্ষা’ দিতে হবে না নববধূকে

সাদা চাদরে আর ‘সতীত্বের পরীক্ষা’ দিতে হবে না নববধূকে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: সাদা চাদরের নববধূর ‘সতীত্বের পরীক্ষা’কে যৌন নির্যাতনেরই সামিল উল্লেখ করে প্রায় চার শতাব্দী ধরে চলে আসা মধ্যযুগীয় বর্বর প্রথায় অবশেষে রাশ টানল ভারতের মহারাষ্ট্র সরকার। গোটা সমাজের পক্ষে লজ্জাজনক এবং নারীর পক্ষে চূড়ান্ত অবমাননাকর এই রীতি অবিলম্বে বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

রাজ্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রঞ্জিত পাতিল জানিয়েছেন, মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর মধ্যে এই আদিম প্রথা এখনও চলে আসছে। তার মধ্যে পুণের পিঁপরীতে কঞ্জরভাট জনগোষ্ঠীর নাম সবচেয়ে আগে আসে। অত্যন্ত অমানবিক ও লজ্জাজনক এই রীতির কারণেই সমাজের কাছে হেনস্ত হতে হয় নতুন বিবাহিতা স্ত্রীকে। সতীত্বের বৈধতা প্রমাণ করতে না পারলে তাঁর উপর শারীরিক নির্যাতনও চালানো হয়। এই প্রথা বন্ধের জন্য বহুদিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব নানা গ্রুপ। এগিয়ে এসেছে রাজ্য মহিলা কমিশনও। তাই সরকারি নির্দেশিকা জারি করে নিষ্ঠুর এই প্রথা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য ওয়ালের খবর, কঞ্জরভাট সমাজে প্রায় ৪০০ বছর ধরে চলে আসছে এই রীতি। স্বামী-স্ত্রী না চাইলেও পরীক্ষা হবেই। পঞ্চায়েত মাতব্বরদের নিদান অগ্রাহ্য করার উপায় কারওর নেই। গত বছর এই রীতির বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিলেন কঞ্জরভাট জনজাতিরই এক দম্পতি বিবেক-ঐশ্বরিয়া। ছাই চাপা আগুনের মতোই সমাজের তরুণ প্রজন্ম প্রতিবাদ চালিয়েছিল অলক্ষ্যে। সেই প্রতিবাদই এবার মান্যতা পেল। শতাব্দী প্রাচীন অভিশাপ থেকে মুক্তি পেল কঞ্জরভাট নারীরা। সূত্র: বাংলাদেশপ্রতিদিন

আপনার মতামত লিখুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ