শুক্রবার-১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং-৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ৩:২৭
সেবা না পেয়ে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি এ্যম্বুলেন্স ভাংচুর। ফুলবাড়ীতে মৎস্য সপ্তাহ উদ্ভোধন। গোবিন্দগঞ্জে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ- ১ ডোমারে স্কুল ছাত্র সুমন নিখোঁজ সন্ধান চায় পরিবার। আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শনিবার বুবলীই থাকছেন শাকিবের ‘বীর’ ছবির নায়িকা ছাতকে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’র উদ্বোধন উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

কৃষকের মুখে হাসি

লালমনিরহাটে বোরো ধান কাটা শুরু

মো: লাভলু শেখ, লালমনিরহাট,
কৃষকের মুখে হাসি লালমনিরহাটে বোরো ধান কাটা মাড়াই শুরু করায় ক্ষেতে ক্ষেতে দুলছে সোনালী বোরো ধান। রমজান মাসের পূর্বে চালের মুল্য বৃদ্ধির মূহুর্তে আগাম ধান পাকায় খুশি কৃষকরা। ধান-কাটা ও মাড়াই কাজে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে কৃষান-কৃষানীরা। মাড়াইয়ের কাজে ২৫০/- টাকা থেকে ৩০০/- টাকা মজুরী পেয়ে কৃষি শ্রমিকদের সংসার চলছে খুব ভালো ভাবে। ক্ষেত খামারে ধান কাটার কাজ করতে খুশি কৃষক-কৃষানীরাও। খুশি হলেও দুচিন্তায় রয়েছে কৃষক ধানের ন্যায্য মুল্য নিয়ে। বোরো চাষাবাদের সময় বৃষ্টির অভাবে সেচ দিয়ে ক্ষেতে পানি দেয়ায় ও সার কীটনাশকের মুল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় ,ধান চাষ করে ন্যায্য মুল্য নিয়ে হতাশায় রয়েছে কৃষক। লালমনিরহাট সদর, আদিতমারী, কালীগঞ্জ, হাতিবান্ধা ও পাটগ্রাম উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ক্ষেতে অনেকাংশে বোরো ধান আগাম কাটতে দেখা গেছে কৃষকদের। হাট-বাজারে যে মুহুর্তে চালের কেজি ৩৭/- টাকা ঠিক সেই মুহুর্তে লালমনিরহাটের কৃষকরা অসময়ে আগাম ধান পেয়ে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছে । তবে বাজারে ৫ শত টাকা প্রতিমন ধানের মুল্যতে কৃষকরা হতাশা। চলতি মৌসুমে বৃষ্টি না হওয়ার কারনে কৃষকরা শ্যালো ও মটার দিয়ে ক্ষেতে পানি দেওয়ায় ধান চাষে কৃষকের ব্যয় হয়েছে বেশি। সার, তেল, কীটনাশকসহ অনান্য উপকরনের মুল্য বৃদ্ধির কারনে প্রতি বিঘায় বোরো ধান চাষে খরচ হয়েছে ৬ হাজার টাকা বলে জানিয়েছেন জেলা সদরের কৃষক আবুল মিয়া। অধিক ব্যয়ে ধান উৎপাদন হলেও তার উপর ন্যায্য মুল্য না থাকায় বোরো ধান চাষ করে উৎপাদন খরচ তুলতে পারছেনা কৃষকরা। ফলে বোরো চাষে উৎসাহ হারাচ্ছে এ অঞ্চলের কৃষকরা। এ বিষয়ে লালমনিরহাট কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বিধু ভূষন রায় জানান, লালমনিরহাট জেলায় চলতি বোরো মৌসুমে ৪৮ হাজার ৮শত ৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষাবাদ হয়েছে । সে থেকে ২ লাখ মেট্রিক টন চাউল উৎপাদনের টার্গেট করেছে কৃষি বিভাগ। আগাম ধান পাকতে শুরু করায় কৃষকের পাশাপাশি কৃষি বিভাগও খুশি রয়েছে। তবে মাঠ পর্যায়ে কৃষকের দাবি ধান চাষে উৎপাদন খরচ কমাতে ন্যায্য মূল্যে সার, কীটনাশকসহ কৃষি উপকরন নিশ্চিত করার দাবি উঠেছে। এই মৌসমে সরকারি ভাবে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান ক্রয় করার দাবী জানান কৃষকরা।

আপনার মতামত লিখুন

রাজশাহী,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ