মঙ্গলবার-২৩শে জুলাই, ২০১৯ ইং-৮ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সন্ধ্যা ৭:০৬
ছেলে ধরা আতংক গুজব থেকে সচেতনতা বাড়াতে শহর জুড়ে পুলিশের মাইকিং।। লালপুরে ওয়ালিয়া তরুণ সমাজের ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির দুর্নীতির দায়ে দুদুকের চার্জশিট দাখিল ॥ ডোমারে আরসিসি রাস্তা নির্মানের দাবীতে মানববন্ধন। কলাপাড়ায় পুকুরে ডুবে দুই ভাই-বোনের মৃত্যু।। গোবিন্দগঞ্জে বাঁধ ভেঙ্গে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত শৈলকুপায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার!

লালপুরে গ্রামীন রাস্তার বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ চরমে!

মোঃ আশিকুর রহমান টুটুল, নাটোর প্রতিনিধি
নাটোরের লালপুর উপজেলার কদিমচিলান ইউপির হোসেনপুর থেকে পালোহারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত দুই কিলোমিটার গ্রামীন রাস্তাটির বেহাল দশা যেন দেখার কেউ নেই। গ্রীষ্মের তীব্র খরায় রাস্তায় যেমন ধুলার সৃষ্টি হয় তেমনি একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে দুই কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে কাঁদায় মাখামাখি হয়। আর এই শুকনোর ধুলা ও বর্ষার কাঁদা পানি মাড়িয়েই রাস্তাদিয়ে প্রতিনিয়তই এইভাবেই চলাচল করেন হোসেনপুর ও তার পাশ^বর্তী গ্রামের কোমলমতি শিক্ষার্থীসহ কয়েক হাজার জনসাধারণ। এতে গ্রীষ্ম ও বর্ষা দুই মৌসুমেই রাস্তায় চলাচলকারী পথচারীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়। শুধু এই রাস্তাই শেষ নয় পাশ^বর্তী পানঘাটা থেকে নাওদাড়া ও ভবানিপুর থেকে ছোট পাল্লার রাস্তটিরও এই চিত্র।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বৃষ্টির পানি জমে রাস্তায় কাঁদা মাখামাখি আর এই কাঁদা মাড়িয়ে কয়েকজন কোমলমতি শিক্ষার্থীরা এক হাতে বই আর অন্য হাত দিয়ে কেউ স্কুল ড্রেস কেউ বা পায়ের সেন্ডেল নিয়ে স্কুলের দিকে আসছেন। এদিকে পায়ের কাঁদা ছিটকে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্কুল ড্রেস গুলি নোংড়া হয়ে যাচ্ছে তার পরেও শিক্ষা গ্রহণের জন্য ছুটে আসছেন বিদ্যালয়ের দিকে।
এসময় কথা হয় কয়েকজন কোমলমতি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তারা বলেন, ‘রোদ হলে রাস্তায় ধুলা হয় আর বাতাসে সেই ধুলা সমস্ত শীরীরে লেগে যায়। আবার বৃষ্টি হলে রাস্তায় এতো কাঁদা হয় যে স্কুলে আসার সময় স্কুল ড্রেস নষ্ট হয় । স্কুলে আসতে আমাদের অনেক কষ্ট হয়।’
কথা হয় নুরুল ইসলাম নামের এক পথচারীর সঙ্গে তিনি বলেন, ‘রাস্তটি দিয়ে পাশ^বর্তী কয়েকটি গ্রামের মানুষ চলাচল করে । একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় পানি জমে হাঁটু পরিমান কাঁদার সৃষ্টি হয়, আর এই কাঁদা মাড়িয়েই শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসেন। তবে সবচেয়ে বেশি বিপদে পরেন অসুস্থ ও প্রসূতি রোগীরা।’
এব্যাপারে পালোহারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘বৃষ্টি হলে এই রাস্তায় হাঁটু পরিমান কাঁদা হয়। বর্ষা কালে কাঁদা হওয়ায় অনেক শিক্ষার্থী স্কুলে আসেনা। রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করা প্রয়োজন।’
তবে জনদুর্ভোগের কথা স্বীকার করে ১০ নং কদিমচিলান ইউপির চেয়ারম্যান সেলিম রেজা বলেন, ‘এই রাস্তার জন্য (এলজিইডি) তে অনেক বার প্রকল্প দেওয়া হয়েছে কিন্তু এখন পর্যন্ত তা পাশ হয়নি। প্রকল্প পাশ হলে রাস্তটি সংস্কার করা হবে বলে জানান তিনি।’
লালপুর উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আক্কাস আলী বলেন, ‘আমি নতুন এসেছি, রাস্তটি জনগুরুত্বপূর্ন হওয়ায় পাকাকরণ করা প্রয়োজন বলে তিনি জানান’।

আপনার মতামত লিখুন

রাজশাহী,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ