মঙ্গলবার-১৮ই জুন, ২০১৯ ইং-৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:০৬
সোনার দাম কমছে নওগাঁয় ৯৩৩ কোটি টাকার আম উৎপাদন বিকাশ-রকেটের ব্যালান্স জানাতে মোবাইল কম্পানিকে ৪০ পয়সা করে দিতে হবে বাংলাদেশি মসলা ও কৃষিপণ্যের প্রচুর চাহিদা ব্রিটেনে মানহানির দুই মামলায় খালেদার জামিন বিষয়ে আদেশ আজ ওসি মোয়াজ্জেম কারাগারে শিবগঞ্জে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ছাত্র সংঘর্ষ, ছুরিকাঘাতে আহত ২

রমজানে ওমরাহ করলে হজের সওয়াব

1 month ago , বিভাগ : ধর্ম,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: হাদিসে রমজান মাসে যেসব আমলের তাগিদ পাওয়া যায় ওমরাহ তার অন্যতম। রাসুলে আকরাম (সা.) বলেছেন, রমজানে ওমরাহ করলে আমার সঙ্গে হজ করার সওয়াব পাওয়া যাবে। তাই সামর্থ্যবান মুসলিমদের ওমরাহ করা উচিত। আমি মনে করি, তা বারবার করা উচিত। হজ ও ওমরাহ পালনের মাধ্যমে মানুষের ভেতর দ্বিনি অনুপ্রেরণা তৈরি হয়।

আল্লাহ ও তাঁর রাসুল (সা.)-এর প্রতি ভালোবাসা তৈরি হয়।

মক্কা-মদিনার পবিত্র ভূমিকে আল্লাহ তার নিদর্শন হিসেবে উল্লেখ করেছেন। কারণ, এ ভূমিতে ইসলামের আগমন হয়েছে এবং ইসলামের প্রতিষ্ঠাকালীন সংগ্রামের স্মৃতি বহন করছে এই ভূমি। তাই মক্কা-মদিনা জিয়ারত করলে মানুষের ঈমান জাগ্রত হয়। ভালো কাজের অনুপ্রেরণা সৃষ্টি হয় এবং মন্দ কাজ থেকে বিরত থাকার সাহস পাওয়া যায়।

অনেকেই বলেন, বারবার হজ-ওমরাহ না করে সেই টাকা গরিব-অসহায়ের মাঝে দান করতে। আমার মনে হয়, এটা অনুচিত। দুটিই ভালো কাজ। দুটি কাজের ব্যাপারেই হাদিসে তাগিদ এসেছে। সুতরাং একটি আমলকে গুরুত্ব প্রদানে অন্যটিকে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। বরং আমরা বলব, আপনি ওমরাহ করুন। ঠিকমতো জাকাত দিন। মানুষকে সহযোগিতা করুন।

হ্যাঁ, হজ-ওমরাহর ক্ষেত্রে রিয়া বা প্রদর্শনপ্রিয়তা একটি ব্যাধি হিসেবে দেখা দিয়েছে। মানুষ ওমরাহ করতে যায় এবং তা ব্যাপকভাবে প্রচার করে, অন্যরা তার প্রচার করুক সেটাও প্রত্যাশা। এটা পরিহারযোগ্য। প্রদর্শন সব আমলেই পরিহারযোগ্য।  আল্লাহ তাআলা আমাদের রিয়ামুক্ত আমল করার তাওফিক দান করুন।

লেখক : অধ্যক্ষ, দারুন নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসা, ঢাকা।সূত্র: কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

ধর্ম বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ