বুধবার-২৬শে জুন, ২০১৯ ইং-১২ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ২:৫০
পাইলট অভিনন্দনের গোঁফকে ‘জাতীয় গোঁফ’ ঘোষণার দাবি পার্লামেন্টে! অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্য বাংলাদেশ এখন অনন্য উচ্চতায় পার্বতীপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি’র মৌলিক ও মানবাধিকার বিষয়ে দিনব্যাপি কর্মশালা জলঢাকায় ফারাজ হোসেন এর স্মরণে ডিসিআই ও আরএসসির দিনব্যাপি ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা “ বান্দরবানের জেএসএস কর্মীকে গুলি করে হত্যা ডিজিটাল হাজিরা অনিশ্চিত মহেশপুরের ১৫২ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ঢাকায় নিয়োগ দেবে সিভিসি ফাইন্যান্স

মা‌নিকগ‌ঞ্জে শ্রেণী কক্ষের সংক‌টে মা‌ঠে ব‌সে ক্লাস ক‌রে শিক্ষাথীরা

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: মা‌নিকগ‌ঞ্জের সিংগাইর উপ‌জেলার  গোবীন্দল গোনাপাড়া মডেল উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষের সংকটে শিক্ষার্থীদের মা‌ঠে ব‌সে খোলা আকাশের নিচে ক্লাস করতে হচ্ছে।
অার বিদ্যালয়ের মাঠে পৌরসভার রাখা বড় বড় পাইপ দীর্ঘদিন ধরে ফেলে রাখায় বিদ্যাল‌য়ের ছাত্র ছাত্রীদের খেলাধুলা ও চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে।
অার এক যু‌গের ও অ‌ধিক সময় প্রে‌রি‌য়ে গে‌লেও বিদ্য‌লিয়‌টি এমপিও ভুক্ত না হওয়ায় ছাত্র ছাত্রী ও শিক্ষকদের বিভিন্ন ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে।
জানা যায়, সিংগাইর পৌরসভার গোবীন্দল  ও ঘোনা পাড়া গ্রামের ১২ জন দাতা সদস্য মিলে ২০০৩ সালে ৫০ শতাংশ জমির উপর গোবীন্দল ঘোনা পাড়া মডেল নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় নামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠা করে। যা বর্তমানে উচ্চ বিদ্যালয় উন্নীত হয়েছে। এ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ থে‌কে ১০ম শ্রেণীতে মোট ৪৮৫ জন শিক্ষার্থী পড়া শুনা করছে। কিন্তু বিদ্যালয়টি অনুমোদন পেলেও এমপিওভুক্ত না হওয়ার কারনে এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি সরকারী বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে অার ছাত্র ছাত্রী ও শিক্ষকদের বিভিন্ন ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। ।
১০ ম শ্রেণীর মানবিক বিভাগের ছাত্র সাইদুর রহমান জানায়, বিদ্যালয়ের সামনে একটি খেলার মাঠ থাকলেও সিংগাইর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ দেড় বছর যাবৎ বড় বড় পাইপ মা‌ঠে রাখাতে আমরা ঠিক মত খেলাধুলা করতে পারি না।
বিদ্যালয়‌টির ছাত্র মিজানুর রহমান জানায়, বিদ্যাল‌য়ের খেলার মাঠে কিছু স্থানীয়রা প্র‌তি‌দিন গরু বাধে এবং গোবরের গোটি শুকিয়ে দেয় এতে আমাদের বিদ্যাল‌য়ের পরিবেশও নষ্ট হচ্ছে।
‌বিদ্যাল‌য়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী শান্তা ইসলাম ও মেহেরুন নেছা জানায়, বৃষ্টি না থাক‌লে খোলা আকাশের নিচে ক্লাস করতে পারলাম। বতমা‌নে বৃষ্টি হওয়ায় আমাদের ক্লাস বন্ধ করে বসে থাকতে হচ্ছে।
বিদ্যালয়ে ক্রিয়া শিক্ষক আবুল হাসান জানায়, শ্রেণী কক্ষের অভাবে আমরা বছরের শুরুতেই প্রতিদিন ৪ টি ক্লাস খোলা আকাশের নিচে নিচে করা‌তে হয়। আবার বিজ্ঞান শাখার ক্লাস শিক্ষক মিলনায়তনে নিতে হয় এতে ছাত্র ছাত্রীদের মনযোগ নষ্ট হচ্ছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শহিদুল ইসলাম জানায়, আমার প্রতিষ্ঠানে সরকারী কোন ভবন না থাকায় শিক্ষার্থীদের শ্রেণী সংকট রয়েছে। বতর্মানে ১২ টি শ্রেণী কক্ষের প্রয়োজন থাকলেও আছে মাত্র ৮ টি । ফলে ছাত্র ছাত্রীদের রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে মা‌ঠে ব‌সে খোলা আকাশের নিচে ক্লাস করতে হচ্ছে। দীর্ঘ ১৩ বছরেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি এমপিওভুক্ত না হওয়ায় ১৩ জন শিক্ষক মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে। বিদ্যালয়‌টি‌তে সরকারী ভবন নির্মাণের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে একাধিকবার লিখিত ভাবে জানিয়ে ও কোন লাভ হয় নি।
সিংগাইর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকতা এমআবু ওবাইদা আলী জানায়, গোবীন্দল গোনাপড়া মডেল উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণের চাহিদা পত্র কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠিয়েছি। অার মাঠে দীর্ঘদিন যাবৎ সিংগাইর পৌরসভার পাইপ রাখার বিষয়ে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমাকে লিখিত ভাবে জানালে তা সরা‌রে প্রয়োজনীয় পদ‌ক্ষেব নেব।

আপনার মতামত লিখুন

ঢাকা,শিক্ষা,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ