বুধবার-১৯শে জুন, ২০১৯ ইং-৫ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:৪১
প্রেমের টানে স্বামী-সংসার ফেলে খুলনায় জার্মান নারী যাত্রাবাড়ীতে ছুরিকাঘাতে স্বর্ণকার নিহত পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্রে কর্মরত চীনা নাগরিকের মৃত্যু ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে বিদেশি বিনিয়োগে ডুমুরিয়ার এএসআই সাময়িক বরখাস্ত ১৬ ঘণ্টা পর নদীতে ভেসে উঠল নিখোঁজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ দিনাজপুরে দেশের প্রথম লোহার খনি আবিষ্কার

বাঘ-সিংহের লড়াইয়ে আজ এগিয়ে থাকবে কে?

2 weeks ago , বিভাগ : খেলাধুলা,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক : বাংলাদেশ টাইগার্স হ্যাভ নকড দ্যা ইংল্যান্ড লায়ন্স আউট অফ দ্যা ওয়ার্ল্ডকাপ”- এই লাইনটি কম হলেও ১০০বার শোনেননি এমন বাংলাদেশি সাপোর্টার খুঁজে পাওয়া কঠিন। বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা মুহূর্ত ধরা হয় এটিকে, তাও সাথে বাংলাদেশের নাম। গর্বের ব্যাপার অবশ্যই। তাই বাংলাদেশ ক্রিকেট সমর্থকদের কাছে ২০১৫ ক্রিকেট বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের সাথের ম্যাচটি বিশেষ গুরুত্ব বহন করে। এর সাথে আছে কার্ডিফে দুই ম্যাচ খেলে দুটিতেই জয় এবং গত দুই বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারানোর সুখস্মৃতি। তাই টাইগাররা চাইবে আজ হ্যাট্ট্রিক পূরণ করে ফেলতে। তবে ইংল্যান্ডও বসে নেই। গত বিশ্বকাপের বাজে অভিজ্ঞতা পেছনে ফেলে গত চার বছরে ক্রমেই তারা হয়ে উঠেছে অপ্রতিরোধ্য ভয়ডরহীন এক দল। তাই আজ বাঘে-সিংহের লড়াইটা হবে সমানে সমানে।

বাংলাদেশ দলের বড় শক্তির জায়গা দলীয় নৈপুণ্য। প্রায় প্রতি ম্যাচেই দল হয়ে খেলেই সাফল্য পাচ্ছে মাশরাফি বাহিনী। স্পিনে ভরসার কথা গতকাল প্রেস কনফারেন্সে বারবার বলেছেন মাশরাফি। ইংল্যান্ডকে হারাতে হলে স্কোর বোর্ডে লাগবে যথেষ্ট রান। আগে ব্যাট করে ৩২০ এর আশেপাশে থাকলে বোলারদের ডিফেন্ড করার সুযোগ থাকবেই। আর পরে ব্যাট করতে হলে ইংল্যান্ডকে আটকাতে হবে ৩০০’র মধ্যে। কাজটা কঠিন, সেটা জানা মাশরাফিসহ গোটা দলেরই, কিন্তু অসম্ভব তো নয়।

ইংল্যান্ড এগিয়ে থাকবে তাদের পাওয়ার হিটিং দক্ষতা ও পেস অ্যাটাকের জন্য। দলের শেষ ব্যাটসম্যানও সজোরে ব্যাট ঘোরাতে পারেন। পেস অ্যাটাকে রয়েছে জফরা আর্চার, মার্ক উড, ক্রিস ওকস, বেন স্টোক্সের মত বোলার। সাথে আদিল রশিদের লেগ স্পিন বাড়তি সুবিধা দিচ্ছে ইংলিশদের।

ইংলিশদের সাম্প্রতিক রেকর্ড বলছে, ৩৫০-৩৬০ রানও তাড়া করে যেকোনো সময় ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ফেলতে পারে তারা। চাপে পড়া অবস্থায় ঘুরে দাঁড়ানোর মন্ত্র বেশ ভালো করেই জানা এই দলটির।

শক্তিমত্তা দুর্বলতা রয়েছে দুই দলেরই। বাংলাদেশ পিছিয়ে থাকবে পাওয়ার হিটিংয়ে। তবে যেকোনো পিচে টাইগারদের স্পিন অ্যাটাক সমীহ করার মত। সাথে আছে গত ম্যাচে শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করে যাওয়ার আত্ববিশ্বাস, যেটি দারুণভাবে কাজে দেবে দলকে। ইংল্যান্ড দল অলআউট অ্যাটাক খেললেও বাংলাদেশ নিজেদের মত ধীরে ধীরে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করবে।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয়লাভ করলেও দুই দলই হেরেছে দ্বিতীয় ম্যাচে। তাই আজকের ম্যাচে জয় ভিন্ন কিছু ভাবছে না কোনো দল, যেটি লড়াইটিকে আরো জমিয়ে তুলবে। এই ম্যাচে দুই দলের একাদশেই আসতে পারে পরিবর্তন। ইএসপিএন ক্রিকইনফোর দাবি, ইংলিশ দলে লেগস্পিনার আদিল রশিদের বদলে দলে ঢুকবেন অভিজ্ঞ পেসার লিয়াম প্লাংকেট। আর বাংলাদেশ দলে রুবেলের প্রয়োজনীয়তা দারুণভাবে উপলদ্ধি করেছে দল, সেক্ষেত্রে বসতে হতে পারে মোহাম্মদ মিথুন বা মুস্তাফিজকে।

ক্রিকইনফোর মতে দুই দলের সম্ভাব্য একাদশ-
ইংল্যান্ডঃ জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, ইওইন মরগ্যান, বেন স্টোক্স, জস বাটলার, মঈন আলী, ক্রিস ওকস, লিয়াম প্লাংকেট, জফরা আর্চার, মার্ক উড।

বাংলাদেশঃ তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদি হাসান মিরাজ, সাইফুদ্দিন, মাশরাফি বিন মর্তুজা, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান।

আপনার মতামত লিখুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ