বুধবার-২২শে মে, ২০১৯ ইং-৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ৩:২৪
ফুলবাড়ীতে ব্রি ধান ৫০ উৎপাদনে কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত॥ চিরিরবন্দরে উন্মুক্ত লটারির মাধ্যমে ধান সংগ্রহে কৃষকের নাম বাছাই জলঢাকায় বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু ইসলামী ব্যাংক সৈয়দপুর শাখায় শিক্ষা উপকরণ বিতরণ সৈয়দপুর পৌরসভার বৃত্তি পরীক্ষার সনদপত্র ও চেক বিতরণ অনুষ্ঠিত ফুলছড়িতে  ৫ প্রতিষ্ঠানের ৭ হাজার টাকা জরিমানা  গোবিন্দগঞ্জে গ্রীল কাটার যন্ত্রপাতি ও ইয়াবাসহ ২ জন আটক

বিচারের আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন ভুক্তভোগী পরিবার

ফুলবাড়ীতে নিজ পুকুরে যেতে প্রভাবশালী মহলের বাধা,ভুক্তভুগী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন ॥

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি;
দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে একটি প্রভাবশালী মহলের চাপে,নিজপুকুরে মাছ চাষ করে সেই মাছ ধরতে পারছেনা। উপরোন্ত পুকুরটি বেদখল করার অপচেষ্ঠা করছেন ওই প্রভাবশালী মহলটি। প্রভাবশালী মহলের হাত থেকে নিজের ছেড়ে দেয়া মাছ ও পুকুর রক্ষা করতে কর্তা ব্যক্তিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোন বিচার না পেয়ে, এখন উর্দ্ধতন মহলের সুদৃষ্টি কামনা করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী মাছ চাষি আব্দুল গফুর ও তার পরিবারের সদস্যরা।
গতকাল ২২ এপ্রিল সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ভুক্তভোগী মাছ চাষি উপজেলার বেতদিঘী ইউনিয়নের দক্ষিন রঘুনাথপুর গ্রামের মৃত দুদুতুল্যা মন্ডলের ছেলে আব্দুল সফুর ও মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে আজগর আলী মাহাবুর রহমান ও জিয়াউর রহমান ফুলবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলন করেন।
আব্দুল সফুর তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, উপজেলার বেতদিঘী মৌজার ৬৫২ নম্বর দাগের ৩ একর একটি পুকুর জমিদার জগদিশ চন্দ্র বাহাদুরের নিকট পত্তন নিয়ে তার পিতা দুদুত্যুা মন্ডল মালিক হয়ে দখল ভোগ করাকালিন মৃত্যুবরণ করলে দুদুতুল্যা মন্ডলের আব্দুস সফুর, আব্দুল গফুর গংরা প্রাপ্ত হয়ে দখল ভোগ করে আসছে। পুকুরটি এসএ রের্কড সৃষ্টি হওয়ার সময় ভুল বশত সরকারের ১নম্বর খাশ খতিয়ানে রের্কড হওয়ায় ওই রের্কড সংশোধনের জন্য তিনি (আব্দুল সফুর) বাদি হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন, সেই মামলাটি বর্তমানে উচ্চ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। তিনি বলেন উচ্চ আদালতে মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত পুকুরটি আমাদের (তাদের) দখলে থাকার জন্য আদেশ দিয়েছে। কিন্তু বেতদিঘী গ্রামের সৈয়দ জাহেরুল ইসলামের ছেলে সৈয়দ সাইফুল ইসলাম, একই এলাকার মৃত আবারকের ছেলে ইলিয়াছ আলী শহ ও মৃত আব্দুল মজিদ এর ছেলে আনিছুর রহমান, উত্ত পুকুরটি বেদখল করার জন্য ষড়যন্ত্র করছে, এবং পুকুরে যেতে বাধা সৃষ্টি করছে।
আব্দুল সফুর প্রশ্ন রেখে বলেন যদি কোন কারনে আমি বা আমরা মামলায় সরকারের নিকট হেরে যাই, তাহলে এই পুকুরটির মালিক হবে সরকার, সেখানে সাইফুল ইসলাম ইলিয়াছ আলী ও আনিছুর কেন আমাদেরকে পুকুরে যেতে বাধা সৃষ্টি করে। তিনি বলেন এই পুকুরটি পেশি শক্তি ও অর্থের জোরে বেদখল ও আত্মসাত করার জন্য তারা উঠে-পড়ে লেগেছে।
এই বিষযে সাইফুল ইসলাম ও ইলিয়াস আলীর সাথে যোগাযোগ করলে, তাহারা বলেন আমরা সরকারের পক্ষে পুকুরটি দখল নেয়ার চেষ্ঠা করছি। সরকার কি সেই দায়িত্ব আপনাদেরকে দিয়েছে, এই প্রশ্ন করা হলে, তারা বলেন আমরা সচেতন নাগরীক হিসেবে নিজ দায়িত্বে সরকারের পক্ষে কাজ করছি। তবে আইন অনুযায়ী সাইফুল ইসলাম ও ইলিয়াস আলীর দাবী অযৌক্তিক বলে উল্লেখ করেছেন, কয়েকজন আইনজীবি। তারা বলেন সরকার যদি পুকুরের মালিক হয় তাহলে সরকারী পুকুর দখলে নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগ রয়েছে, সেখানে সাধারণ মানুষের যাওয়ার কোন প্রয়োজন নাই।
এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরী ছুটিতে থাকায় কোন মতামত গ্রহন করা যায়নি।

আপনার মতামত লিখুন

দিনাজপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ