বুধবার-১৯শে জুন, ২০১৯ ইং-৫ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:১৩
প্রেমের টানে স্বামী-সংসার ফেলে খুলনায় জার্মান নারী যাত্রাবাড়ীতে ছুরিকাঘাতে স্বর্ণকার নিহত পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্রে কর্মরত চীনা নাগরিকের মৃত্যু ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে বিদেশি বিনিয়োগে ডুমুরিয়ার এএসআই সাময়িক বরখাস্ত ১৬ ঘণ্টা পর নদীতে ভেসে উঠল নিখোঁজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ দিনাজপুরে দেশের প্রথম লোহার খনি আবিষ্কার

ছাত্রলীগ নিয়ে সমাধান খুব শিগগিরই : কাদের

2 weeks ago , বিভাগ : রাজনীতি,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: ছাত্রলীগের আন্দোলনকারীদের নিয়ে মুখ খুলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি পুনর্গঠনের আন্দোলনের সমাধান খুব শিগগিরই হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনালে পরিদর্শনে গেলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সম্মেলনের এক বছর পর গত ১৩ মে ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হলে তা পুনর্গঠনের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন পদ না পাওয়া এবং প্রত্যাশিত পদ না পাওয়া নেতারা। পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার দিনই মধুর ক্যান্টিনে এ নিয়ে কয়েক দফা মারামারিও হয় নিজেদের মধ্যে।

পরে বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দিয়ে অভিযুক্ত ১৯টি পদ শূন্য ঘোষণা করা হয়। পরবর্তী সময়ে যাচাই-বাছাই করে পদগুলো পূর্ণ করা হবে বলে জানান কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

এর মধ্যে গত ২৭ মে সকালে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী নতুন কমিটির সদস্যদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর কর্মসূচি নেওয়ার পর ২৬ মে রাতেই বিক্ষুব্ধ অংশটি বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করে।

এই সমস্যার সমাধান কবে নাগাদ হতে পারে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আমার অনুপস্থিতিতে ছাত্রলীগের কমিটির ব্যাপারে নেত্রী আমাদের দলের চারজন নেতাকে দায়িত্ব দিয়েছেন; তাদের কমিটি গঠন, অভ্যন্তরীণ কোন্দল বা সাংগঠনিক সমস্যা সমাধানে। তাদের সঙ্গে আমার কথাবর্তা হয়েছে। যোগাযোগ হচ্ছে। যারা আন্দোলন প্রতিবাদ করছে, তাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা হচ্ছে। আমি আশা করি বিষয়টি অচিরেই সমাধান হবে।

সরকার রাজনৈতিক স্বার্থে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখেছে এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়াকে বন্দি রেখেছে কে? সরকার না মামলা? তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মামলার কারণে সাজাপ্রাপ্ত হয়ে আদালতের রায়ে কারাগারে আছেন। যদি সরকারকে দায়ী করেন; তাহলে তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে দায়ী করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশে আইন আছে, বিচার ব্যবস্থা আছে। আইন অনুযায়ী তিনি আদালতে গেছেন। আদালত তাকে দোষীসাবস্ত করেছেন; সাজা দিয়েছেন। সেভাবেই তিনি জেলে আছেন। আইনি লড়াই করে বিএনপির নেতারা তাঁকে মুক্ত করে আনতে পারে; এখানে সরকারের কোনো করণীয় নেই। বিষয়টি আদালতের এখতিয়ার। আর বিএনপি বলছে, খালেদা জিয়া আন্দোলন করে মুক্ত করবে। খালেদা জিয়ার সাজা পাওয়ার এতদিন চলে গেল, আজ পর্যন্ত বিএনপির আন্দোলনের বিন্দু উত্তাপ রাজপথে নেই। এটা তাদের ব্যর্থতা। খালেদা জিয়াকে যদি বিএনপি আন্দোলন করে মুক্ত করতে চায়, তারা কিন্তু আন্দোলন করবে সরকারের বিরুদ্ধে। অথচ সাজা দিয়েছেন আদালত; আদালতের বিরুদ্ধে তারা আন্দোলন করতে পারে। এতে সরকারের কিছু করার নেই।

আপনার মতামত লিখুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ