শনিবার-২৫শে মে, ২০১৯ ইং-১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৯:১৭
কলেজে ভর্তির আবেদন এখনও করেননি আড়াই লাখ শিক্ষার্থী ডোমারে আওয়ামীলীগের ইফতার মাহফিল জলঢাকায় সড়কে ধান ও খড় শুকানোর ধুমপরেছে- চলাচলে জনগনের দূর্ভোগ বিপুল জয়ে মোদিকে বিএনপির অভিনন্দন বিপুল জয়ে মোদিকে বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন ২৫ জেলায় চলছে প্রথম ধাপের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ছে

চিরিরবন্দরে রোপা আমনের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

3 years ago , বিভাগ : কৃষি,

pic-manik-jute

মোহাম্মাদ মানিক হোসেন, চিরিরবন্দর(দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
খাদ্য শষ্যের ভান্ডার হিসাবে খ্যাত দিনাজপুরের ১৩ উপজেলার মধ্যে চিরিরবন্দর অন্যতম। উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের দিগন্তজুড়ে ফসলের মাঠে মাঠে সবুজের সমারোহ।

কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এ বছর চিরিরবন্দর উপজেলায় রোপা আমন চাষের ল্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩ হাজার ৬১ হেক্টর জমি। বিগত সময় প্রাকৃতিক দূর্যোগ ও ধানের ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় কৃষকদের যে তি হয়েছে তা পুষিয়ে নিতে এবার অনাবৃষ্টির মধ্যেও কৃষক কোমর বেঁধে নেমেছে। শেষ পর্যন্ত কৃষক গভীর ও অগভীর নলকূপ দিয়ে পানি তুলে হাড় ভাঙ্গা পরিশ্রম করে সব জমিতে রোপা আমন লাগিয়ে ল্য মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে বলে জানান কৃষক ও কৃষি বিভাগ।

চিরিরবন্দর উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ঘুরে দেখা গেছে, কৃষাণ-কিষাণীরা রোপা আমন পরিচর্যায় ব্যস্ত। উপজেলার আমন তে গুলোতে জীবন্ত ও ডেথ পার্চিং করা হয়েছে। ফলে রোগ-বালাই নেই বলে চলে। নশরতপুর গ্রামের কৃষক আজগার আলী, বলাই বাজার গ্রামের িিতশ চন্দ্র, সুকদেবপুরের আমজাদ হোসেনসহ অনেক কৃষকের সাথে কথা হলে তারা জানান, মৌসুমের শুরুতে অনাবৃষ্ঠির কারণে চারা লাগাতে আমাদের অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। এখন বৃষ্টি হওয়ার পর আমনের চেহারা ফিরে পেয়েছে।

তারা আরো জানান, কৃষি অফিসের সহযোগিতায় আমরা আমন েেত পার্চিং করেছি। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: মাহামুদুল হাসান জানান, এবার মৌসুমের শুরুতে অনাবৃষ্টির মধ্যেও নানা কৌশলে রোপা আমনের চারা লাগিয়েছে উপজেলার কৃষক। গত বছরের তুলনায় এ বছর ল্য মাত্রা ছাড়িয়েছে এবং আশানুরুপ ফলনের আশা করছি।

আপনার মতামত লিখুন

কৃষি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ