শুক্রবার-১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং-৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৯:২৮
সেবা না পেয়ে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি এ্যম্বুলেন্স ভাংচুর। ফুলবাড়ীতে মৎস্য সপ্তাহ উদ্ভোধন। গোবিন্দগঞ্জে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ- ১ ডোমারে স্কুল ছাত্র সুমন নিখোঁজ সন্ধান চায় পরিবার। আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শনিবার বুবলীই থাকছেন শাকিবের ‘বীর’ ছবির নায়িকা ছাতকে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’র উদ্বোধন উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

এসএসসি পাশের মিষ্টি কিনে ফেরার পথেই বাসে পিষ্ট, শিক্ষার্থীদের বাসে আগুন

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: এসএসসি উত্তীর্ণ চার শিক্ষার্থী স্টেশনের দোকানে মিষ্টি কিনে ঘরে ফেরার পথে যাত্রীবাহী হানিফ পরিবহনের একটি বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে একজন নিহত এবং অপর তিনজন আহত হয়েছেন। কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ঈদগাঁওর কলেজ গেইট এলাকায় আজ মঙ্গলবার সকালে ঘটেছে এমন মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি। এ ঘটনায় মুমূর্ষাবস্থায় দুইজনকে চকরিয়ার মালুমঘাট খ্রিষ্টান হাসপাতালে এবং অপর একজনকে পাঠানো হয়েছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। আহতদের অবস্থাও আশংকাজনক। তারা সকলেই কক্সবাজারের ঈদগাঁহ কেজি স্কুলের শিক্ষার্থী।

দুর্ঘটনার পর পরই বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা ঘাতক হানিফ পরিবহনের বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এছাড়াও বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ঈদগাঁও বাস স্টেশনস্থ কেজি স্কুলের সামনে টায়ার ও অন্যান্য দ্রব্য এনে আগুন ধরিয়ে দিলে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। এতে উভয় পাশে প্রায় ২ ঘণ্টা যানবাহন আটকে থাকে।

নিহত ছাত্র ইমরান (১৮) কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওর কালিরছরা উত্তরপাড়ার প্রবাসী আবু তাহেরের ছেলে ও ঈদগাহ কেজি স্কুল থেকে সদ্য এসএসসি উত্তীর্ণ। আহত অন্যান্যরা হলেন, কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওর কালিরছরা গ্রামের শামীমুর রহমান (১৭), শামীমুল আলম রাহুল (১৭) ও জয়নাল আবেদীন (১৭)। তারা সবাই ঈদগাহ কেজি স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী। তাদের মাঝে শামীমকে আশংকাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এলাকার লোকজন জানান জানান, আজ মঙ্গলবার সকালের দিকে এক মোটরসাইকেলে চার শিক্ষার্থী মিষ্টি কিনতে ঈদগাঁও বাস স্টেশনে যায়। মিষ্টি নিয়ে বাসায় ফেরার সময় কলেজ গেইট এলাকায় চট্টগ্রামমুখী হানিফ পরিবহণের (চট্টমেট্টো-ব-১১-০২৪৩) বাসটি রং সাইডে এসে মোটর সাইকেলকে চাপা দেয়। এতে আরোহীসহ মোটর সাইকেলটি বাসের নিচে ঢুকে যায়। বাসের চাপায় আরোহীদের মাঝে ইমরান ঘটনাস্থলে মারা যায়। স্থানীয়রা দ্রুত এসে বাসের নিচ থেকে মোটরসাকেল আরোহীদের বের করে হাসপাতালে নিয়ে যান। দুর্ঘটনার সাথে সাথেই বাসটি সড়কের একপাশে রেখে চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়।

এদিকে শিক্ষার্থী নিহতের খবর ছড়িয়ে পড়ায় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা ঘটনাস্থলে এসে বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ার ভয়ে বাস ষ্টেশনটিতে ভিতীকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সড়কের দুই পার্শ্বে প্রচুর যানবাহন আটকা পড়ে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঈদগাহ আদর্শ শিক্ষা নিকেতন (কেজি স্কুল)’র প্রধান শিক্ষক এ কে এম আলমগীর জানান, নিহত ইমরান সোমবারের প্রকাশিত ফলাফলে এসএসসি পাশ করেছে। তার স্বজনদের জন্য মিষ্টি কিনতে গিয়েছিল পাড়ার শিক্ষার্থী বন্ধুদের নিয়ে। সেখানেই দূর্ঘটনায় পড়েছে তারা।

ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) উপ পরিদর্শক সনজিদ জানান, দুর্ঘটনায় এক শিক্ষার্থী মারা গেছেন এবং আহত হয়েছেন আরো ক’জন। আগুনে পোড়া ঘাতক বাস ও মোটর সাইকেলটি জব্দ করে রামু ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশকে জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

ঢাকা,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ