রবিবার-২১শে জুলাই, ২০১৯ ইং-৬ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৬:১৫
পঞ্চগড়ে মাদক বিরোধী শোভাযাত্রা পাঁচবিবিতে চাচাতো ভাইয়ের লাঠির আঘাতে ভাইয়ের মৃত্যু পঞ্চগড়ে ১০ দিনব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন পর্যায়ক্রমে সব অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করা হবে -হবিগঞ্জে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জলঢকায় ফলদ বৃক্ষমেলার সমাপ্ত ও বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরন ডোমারের সন্তান বন্ধন জেনেটিকস্ লিঃ এর পরিচালক আনোয়ারের সাথে থাইল্যান্ড কোম্পানী সমঝোতা ও বানিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর। মোকামতলায় পুলিশের বিশেষ অভিযানে বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য উদ্ধার, আটক ৩

আধুনিক হাসপাতাল দালালে ভরা !

আধুনিক হাসপাতাল দালালে ভরা !

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে দীর্ঘদিন ধরেই দালালদের শক্তিশালী সিন্ডিকেট সক্রিয় রয়েছে। বেশ কয়েকবার উদ্যোগ নিলেও তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হয়নি। তখন কথা ওঠে, হাসপাতালে কর্তব্যরতদের যোগসাজশেই দালালরা এখানে তৎপরতা চালাচ্ছে। এ নিয়ে অনেক আলোচনা-সমালোচনার পর অবশেষে সেই দালালদের তালিকা করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

গত সোমবার এই তালিকা তৈরি করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা. মিঠুন দাশ। এখন এই তালিকা হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক, পুলিশ সুপার ও সদর মডেল থানায় পাঠানো হবে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে দালালদের উৎপাতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠছিল রোগী ও তাদের স্বজনরা। প্রতিদিনই প্রতারিত হচ্ছিল প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে আসা সহজ-সরল সেবাপ্রার্থীরা। দালালদের খপ্পরে পড়ে অনেক রোগীর প্রাণহানির ঘটনাও ঘটে। শহরের বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকের পৃষ্ঠপোষকতায় সক্রিয় ছিল এই দালালগোষ্ঠী।

গত বছরের ৪ নভেম্বর সদর হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় দালাল নির্মূলে কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। অবশেষে তিন মাস পর সেই দালালদের তালিকা করা হলো।

হাসপাতালের দালাল নির্মূল উপকমিটির সভাপতি ডা. মিঠুন রায়সহ তিনজন স্বাক্ষরিত তালিকা অনুযায়ী দালালরা হলো সদরের ছোট বহুলা গ্রামের ইউনুছ মিয়া, মোহনপুর এলাকার সেলিম মিয়া, বানিয়াচং উপজেলার শাহিন মিয়া, একই উপজেলার কান্দিপাড়া গ্রামের অসিত দাশ, শহরের শংকরের মুখ এলাকার সজল দাশ, সদরের হাতিরথান গ্রামের নুরুল মিয়া, লাখাই উপজেলার বুল্লা গ্রামের সাদিকুন্নেছা, শহরের মোহনপুর এলাকার ছায়া বেগম, ছোট বহুলা গ্রামের রেজিনা বেগম, ইনাতাবাদ এলাকার সিরাজ মিয়া, বড় বহুলা গ্রামের জাফর মিয়া, চুনারুঘাট উপজেলার মাসুক মিয়া, মির্জাপুর গ্রামের শাহিন মিয়া, অনন্তপুর আবাসিক এলাকার আব্দুস সালাম, একই এলাকার আব্দুল মালেক, বানিয়াচং উপজেলার হিয়াল গ্রামের সেলিম মিয়া, অনন্তপুর এলাকার আব্দুল খালেক, অসিত, উত্তর সাঙ্গর গ্রামের সুজন, একই গ্রামের চয়ন, আজমিরীগঞ্জ উপজেলার মাছুম, লাখাই উপজেলার করাব গ্রামের হাছান, চুনারুঘাট উপজেলার রেহেনা, সদরের যাত্রাবড়বাড়ী এলাকার টেনু মিয়া, বানিয়াচংয়ের মিজান, চুনারুঘাটের মাসুক ও শহরের রাজনগর এলাকার দীনুল ইসলাম।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. রতীন্দ্র চন্দ্র দেব জানান, তালিকাটি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে পাঠানো হচ্ছে। শিগগিরই এই হাসপাতাল দালালমুক্ত হবে বলে আশা করেন তিনি।

হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা বলেন, ‘তালিকাটা এখনো আমার হাতে এসে পৌঁছায়নি। তালিকা হাতে পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন বাপার আজীবন সদস্য ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জহিরুল হক শাকিল বলেন, হাসপাতালের দালালের তালিকা তৈরি করে ব্যবস্থা গ্রহণ একটি ভালো উদ্যোগ। তবে হাসপাতালটির সার্বিক পরিবেশ উন্নয়নের দিকেও নজর দিতে হবে। সূত্র: কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

সারাদেশ,সিলেট বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ