মঙ্গলবার-১৮ই জুন, ২০১৯ ইং-৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:১০
সোনার দাম কমছে নওগাঁয় ৯৩৩ কোটি টাকার আম উৎপাদন বিকাশ-রকেটের ব্যালান্স জানাতে মোবাইল কম্পানিকে ৪০ পয়সা করে দিতে হবে বাংলাদেশি মসলা ও কৃষিপণ্যের প্রচুর চাহিদা ব্রিটেনে মানহানির দুই মামলায় খালেদার জামিন বিষয়ে আদেশ আজ ওসি মোয়াজ্জেম কারাগারে শিবগঞ্জে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ছাত্র সংঘর্ষ, ছুরিকাঘাতে আহত ২

অবশেষে কাল হচ্ছে প্রথম ধাপের প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

4 weeks ago , বিভাগ : শিক্ষা,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: কয়েক দফা তারিখ পরিবর্তনের পর অবশেষে হতে যাচ্ছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা। প্রথম ধাপের লিখিত পরীক্ষা হবে আগামীকাল শুক্রবার।

পরীক্ষার ৩০ মিনিট আগে প্রতিটি কেন্দ্রে প্রশ্ন পৌঁছে দেওয়া হবে বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, গত রোববার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের (ডিপিই) ওয়েবসাইটে প্রথম ধাপের পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র সংযুক্ত করা হয়েছে। পরীক্ষার্থীরা ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করছেন। প্রথম ধাপে মোট ২৫ জেলায় লিখিত পরীক্ষা হবে।

লিখিত পরীক্ষা প্রধম ধাপে ২৪ মে, দ্বিতীয় ধাপে ৩১ মে, তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা ২১ জুন এবং চতুর্থ ধাপে ২৮ জুন হবে। তিন পার্বত্য জেলা বাদে ৬১ জেলার ২৪ লাখ ১ হাজার ৯১৯ জন প্রার্থী প্রায় ১২ হাজার পদের বিপরীতে পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন জানান, ২৪ মে প্রথম ধাপে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা হবে। প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও বিতরণের জন্য ১৪ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। মোট ৯ সেট প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করা হবে। এর মধ্যে লটারির মাধ্যমে একটি সেট নির্ধারণ হবে।

সচিব বলেন, প্রশ্নফাঁস রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছি। এবারের পরীক্ষায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। যদি কেউ প্রশ্নপত্র ফাঁস বা গুজব ছাড়ায় তবে তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেওয়া হবে। এজন্য পর্যাপ্ত মনিটরিং বসানো হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, পরীক্ষার মাধ্যমে ১০ হাজারের বেশি শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। এ পরীক্ষা চলাকালীন নতুন করে আরো ১০ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশে ডিপিইকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, এবার নিয়োগ পরীক্ষা বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) তত্ত্বাবধানে সম্পূর্ণ ডিজিটাল পদ্ধতিতে নেওয়া হবে। নির্ধারিত জেলায় পরীক্ষার আগের রাতে ইন্টারনেটের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের (ডিসি) কাছে প্রশ্নপত্রের সব সেট পাঠানো হবে। পরীক্ষার দিন সকাল ৮টায় প্রশ্নপত্র ছাপিয়ে তা কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়া হবে। পৌর এলাকার মধ্যে এবার পরীক্ষা নেওয়া হবে।

আবেদনকারীর আসন বুয়েট অত্যাধুনিক সফটওয়্যারের মাধ্যমে নির্ধারণ করবে। একই সঙ্গে আবেদনকারীর আসন বণ্টন অনুযায়ী প্রশ্নের সেট নির্ধারণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ