শুক্রবার,২০শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং,৫ই কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১০:২৭

নারায়ণগঞ্জে জাহাজ কারখানায় সিলিন্ডার বিস্ফোরণ: দগ্ধ ৪ শ্রমিকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে আ.ফ.ম রুহুল হক এমপি বেতনে বিশ্বের চতুর্থ হাথুরুসিংহে মিয়ানমারে পুলিশের সাথে সংঘর্ষ: নিহত ৫ শতাধিক হলে ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ চট্টগ্রামে বাস-কভার্ড ভ্যান সংঘর্ষে নিহত ২ বড়াইগ্রাম ট্রাজেডির আজ তৃতীয় বর্ষপূর্তি হতাহতের পরিবারে আহাজারি থামেনি

৩৬ ও ৩৭তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল অক্টোবরে

মুক্তিনিউজ24.কম ডেস্ক: চলতি সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে ৩৬তম বিসিএসের চূড়ান্ত ও ৩৭তম বিসিএস লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের কথা থাকলেও নানা সীমাবদ্ধতায় তা পিছিয়ে আগামী অক্টোবর মাসে করা হবে। নভেম্বরে হবে ৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা। আজ বৃহস্পতিবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এ পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।

বিজ্ঞপ্তিতে পিএসসি বলছে, মূলত আর্থিক স্বাধীনতা না থাকায় তাদের বিভিন্ন কার্যক্রম অনেক সময়ই বাধার মুখে পড়ে।

পিএসসি সূত্র জানিয়েছে, আর্থিক স্বাধীনতা অন্যান্য সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোর থাকলেও পিএসসির ক্ষেত্রে নেই। এজন্য নানা প্রতিকূলতার মধ্যদিয়ে কাজ করতে হয় পিএসসির। শত প্রতিকূলতার মাঝেও কাছাকাছি সময়ে ৩৬তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল এবং ৩৭তম বিসিএসের লিখিত ফলাফল প্রকাশ করবে কমিশন। ৩৬তম বিসিএসের ফল প্রকাশ করে ৩৭তম বিসিএসের ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত রয়েছে।  ফলাফল প্রকাশের  বিষয়ে জানতে চাইলে পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন, ‘একসঙ্গে বর্তমানে তিনটি বিসিএস পরীক্ষা নিয়ে আমরা কাজ করছি। পরীক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে যত দ্রুত সম্ভব ফলাফল প্রকাশের সব চেষ্টা করা হচ্ছে। আশা করছি অক্টোবরে কাছাকাছি সময়ে ৩৬ ও ৩৭ তম বিসিএসের ফলাফল প্রকাশ করতে পারবো আমরা।’

তিনি আরও বলেন, ‘৩৬তম বিসিএসের চূড়ান্ত এবং ৩৭তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর ৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা গ্রহণের পরিকল্পনা করা হয়েছে। তবে ৩৮তম বিসিএসে রেকর্ড সংখ্যক পরীক্ষার্থী আবেদন করায় প্রিলি পরীক্ষা নিতে বিলম্ব হচ্ছে। বিশেষ করে বিপুলসংখ্যক পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়ার স্থান, প্রশ্নপত্র ও উত্তরপত্র ছাপানোসহ সব মিলে বিশাল এক কর্মযজ্ঞ’।

তবে নভেম্বরের মধ্যেই ৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এই বিসিএসের জন্য ৩ লাখ ৮৯ হাজার ৪৬৮ জন প্রার্থীর আবেদন পেয়েছে পিএসসি। গত ১০ জুলাই থেকে আবেদন গ্রহণ শুরু হয়ে গত ১০ আগস্ট শেষ হয়।

উল্লেখ্য, গত ২০ জুন ২৪ ক্যাডারে ২ হাজার ২৪টি শূন্য পদে নিয়োগের সুপারিশ করতে ৩৮তম বিসিএসের সার্কুলার জারি করে পিএসসি। এই বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারে ৩০০, পুলিশে ১০০সহ সাধারণ ক্যাডারে ৫২০টি, কারিগরি ও পেশাগত ক্যাডারে ৫৪৯টি এবং শিক্ষা ক্যাডারে ৯৫৫টি পদে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হবে।

বিসিএস পরীক্ষায় ২০০ নম্বরের বাংলাদেশ ইতিহাস থেকে ৫০ নম্বর কমিয়ে আনা হয়েছে। সেখানে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস যুক্ত করে ৫০ নম্বর নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। বাংলার পাশাপাশি এবার ইংরেজিতেও প্রশ্ন প্রণয়ন করা হবে। সাত বিভাগের পাশাপাশি এবার নতুন বিভাগ ময়মনসিংহেও পরীক্ষা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ