সোমবার,২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং,৯ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ৯:৪৯
লালমনিরহাটে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মাদক বিক্রেতা আটক পালাতে গিয়ে নদীতে ঝাঁপ দেয়া যুবকের মরদেহ উদ্ধার এক মিনিটের জন্যেও বাইরে থাকতে পারছিলাম না’ কাউখালীতে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে সাজানো গুম মামলা ॥ ভিকটিম যুবক উদ্ধার নাটোরে সাংবাদিককে হত্যার হুমকি॥ থানায় জিডি লালপুরে সাপ কামড়ে মৃত্যু! মাদকবিরোধী ক্লাস নিলেন র‌্যাব কর্মকর্তা

সরকার সুষম খাদ্যের যোগান নিশ্চিত করতে কাজ করছে : প্রধানমন্ত্রী

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ দানাদার খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। সরকার এখন সুষম খাদ্যের যোগান ও পুষ্টিমান নিশ্চিত করতে কাজ করছে। জাতীয় মৌ মেলা ২০১৮ উপলক্ষে আজ শনিবার দেওয়া এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার কৃষিবান্ধব নীতি গ্রহণ করে ২০০৯ সাল থেকে কৃষিখাতের উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। ফলে দেশ খাদ্য উৎপাদনে স¦য়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে।’

তিনি বলেন, ‘কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ‘জাতীয় মৌ মেলা-২০১৮’ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। এবারের মৌ মেলার প্রতিপাদ্য ‘ফসলের মাঠে মৌ পালন, অর্থ পুষ্টি বাড়বে ফলন’ যথার্থ হয়েছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, মধুতে এন্টি অক্সিডেন্টসহ ১৮১টি রাসায়নিক উপাদান আছে, যা মানবদেহের বৃদ্ধি ও মেধা বিকাশে অবদান রাখে। বাংলাদেশের সুন্দরবন, সিলেটের বন, পাহাড়ি এলাকার বনজঙ্গল এবং গ্রাম অঞ্চলে প্রাকৃতিকভাবে মৌমাছি বাসা বাঁধতো এবং সেখান থেকে মধু আহরণ করা হতো। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বিসিক, কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এবং অন্যান্য বেসরকারি সংস্থা আধুনিক মৌচাষ উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সারাদেশে মৌচাষ বিস্তারে ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। মৌচাষ বিষয়ে প্রশিক্ষিত জনবলসহ উদ্যোক্তা তৈরির ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হয়েছে। মৌচাষের মাধ্যমে মধু উৎপাদনের পাশাপাশি পরাগায়নের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট ফসলের শতকরা ২০ থেকে ৩০ ভাগ ফলন বৃদ্ধি করা যায়।

তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে মধু উৎপাদনের সম্ভাবনার তুলনায় মাত্র ১০ ভাগ মধু উৎপাদন হচ্ছে। মধু উৎপাদন বৃদ্ধি করতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অচিরেই মধুর কাঙ্খিত উৎপাদন বৃদ্ধি করতে সক্ষম হব।

সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মধুসহ কৃষির সামগ্রিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে পুষ্টিসমৃদ্ধ ও মেধাবী জাতি গঠনের মাধ্যমে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে সক্ষম হবে বলে প্রধানমন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি ‘জাতীয় মৌ মেলা-২০১৮’ এর সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।

আপনার মতামত লিখুন

জাতীয়,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ