সোমবার,২৩শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং,৮ই কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: ভোর ৫:০১

উদ্বিগ্ন ভারত, রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতেই হবে: সুষমা পাঁচবিবির আটাপাড়া সীমান্তে সাড়ে ৬ লাখ টাকাসহ তালিকাভূক্ত হুন্ডি ব্যাবসায়ী আটক ফুলবাড়ীতে “জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস” পালিত ॥ স্ত্রীর অধিকার পেতে চাই : মিলা ফকিরহাটে অবিরাম বৃষ্টির ফলে শত শত পরিবার সহ কৃষি জমি পানিতে নিমজ্জিত সংস্কারের অভাবে দুমকির এলজিইডির ফুট ব্রিজটি এখন মরণ ফাঁদ ॥ চিরিরবন্দরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত

শায়েস্তাগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনা এমপি আবু জাহিরের মধ্যস্থতায় নিষ্পত্তি পশ্চিম উবাহাটাকে ৮ লাখ টাকা ও বিরামচরকে ২ লাখ টাকা জরিমানা

download (4)এম এ আই সজিব ॥ শায়েস্তাগঞ্জ পুরানবাজারে বিরামচরের মহলুলসুনাম ও পুরানবাজার প্রকাশ পশ্চিম উবাহাটা গ্রামের সংঘর্ষের ঘটনা এমপি আবু জাহিরের মধ্যস্থতায় সালিশ বৈঠকে নিষ্পত্তি করা হয়েছে। সালিশ বৈঠকে উভয় পকে জরিমানা ও সতর্ক করে দেয়া হয়। গতকাল শুক্রবার বিকেলে শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় হলরুমে হবিগঞ্জ-লাখাই আসনের এমপি জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এডভোকেট মোঃ আবু জাহিরের সভাপতিত্বে এ সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে উভয়পরে বক্তব্য গ্রহণ করে সর্বসম্মতিক্রমে হবিগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমদুল হকের সমন্বয়ে ১১ জনের একটি বোর্ড গঠন করে দেন এমপি আবু হাজির। বোর্ড উভয় পরে বক্তব্যসহ নানা দিক পর্যালোচনা করে ১০ জুন রাতের সংঘর্ষের জন্য পুরানবাজার প্রকাশ পশ্চিম উবাহাটাকে ৮ লাখ টাকা ও বিরামচরের মহলুলসুনাম গ্রামকে ২ লাখ টাকা জরিমানার প্রস্তাব করেন। এছাড়া এ সংঘর্ষের পূর্বে পুরানবাজার প্রকাশ পশ্চিম উবাহাটার বাসিন্দা এমদাদুল হক মিলনকে মারধর করার ঘটনায় বিরামচরের বাসিন্দা জায়েদ আলীকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা দেয়ার জন্য গঠিত এ বোর্ড প্রস্তাব দেয়। বোর্ডের প্রস্তাবের প্রেেিত আবু জাহির এমপি সালিশের চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করেন। রায়ে আগামী ১৫ দিনে মধ্যে জরিমানার টাকা পরিশোধ ও সংঘর্ষের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলা উভয়পরে নিজ নিজ খরচে তুলে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। সভায় সভাপতির বক্তব্যে এমপি আবু জাহির বলেন, পুরানবাজারের ব্যবসায়িক নিরাপত্তার স্বার্থে আর কোন সংঘর্ষে হলে উভয় পকে ২ লাখ টাকা করে মুচলেকা দিতে হবে। তাছাড়া এক মাসের মধ্যে পুরানবাজারে আহবায়ক কমিটি গঠন করে দিতে উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমদুল হককে দায়িত্ব দেন তিনি। সন্ধ্যা পর্যন্ত চলা এ বৈঠকে উপস্থিত সকলের কাছে মা প্রার্থনা করেন- উভয় সংঘর্ষের হোতা ইকবাল, মহিদ ও জায়েদ আলী। এদিকে, বিষয়টি সুষ্ঠুভাবে মীমাংসা করে দেয়ার জন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন পুরানবাজার পশ্চিম উবাহাটা গ্রামের পে হাজী আব্দুল মজিদ ও বৃহত্তর বিরামচরের মহলুলসুনাম গ্রামের পে সৈয়দ ভানভীর আহমেদ জুয়েল। এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমদুল হক, আব্দুল হাই, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির লস্কর, আব্দুল কাদির চৌধুরী, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান আউয়াল, শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি মোঃ ইয়াছিনুল হক, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বেলাল, সাবেক চেয়ারম্যান আলী আহমেদ খান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল আহাদ ফারুক, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ সরদারসহ বিভিন্ন এলাকার শত শত গণ্যমান্য ব্যক্তি। উল্লেখ্য, ১০ জুন শুক্রবার দিবাগত রাতে বৃহত্তর বিরামচরের মহলুলসুনামের ইকবাল ও পুরানবাজার প্রকাশ পশ্চিম উবাহাটা গ্রামের মুহিতের মধ্যে ঝগড়াকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষে শতাধিক লোক আহত ও ৩০টি দোকান ভাংচুরসহ লুটপাট হয়।

আপনার মতামত লিখুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ