বৃহস্পতিবার,১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং,৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ১০:৩৪
অবকাঠামো ও জ্বালানি খাতে ফরাসি বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পার্বতীপুরে শিক্ষক সমিতির ত্রিবার্ষিক কাউন্সিল সম্পন্ন সৈয়দপুরে স্কুল মাঠে পাথড় ও পিচ গলানো হচ্ছে পার্বতীপুরে মধ্যপাড়া পাথর খনির ৪৫ শ্রমিক পুরস্কৃত এবার হাইকোর্টে ক্ষমা চাইলেন লক্ষ্মীপুরের সেই এডিসি মগবাজারে গ্যাসের আগুনে দগ্ধ ৩ সেলুনকর্মী তাঁরা এলেন ‘ম্যাজিস্ট্রেট’ হয়ে, গেলেন আসামি হয়ে

ভারতে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চায় না পাকিস্তান

4 months ago , বিভাগ : খেলাধুলা,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: চলতি বছরের নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। তবে ভারতে এ টুর্নামেন্ট আয়োজনের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে গেছে তাদের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান। চলতি সপ্তাহে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) সভায় এই বিরোধিতা তুলে ধরবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। নিরাপত্তাজনিত কারণে ভারত থেকে টুর্নামেন্টে সরিয়ে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে স্থানান্তর চায় পিসিবি।

এএফপিকে দয়া এক সাক্ষাৎকারে পিসিবির নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান নাজাম শেঠি বলেন, ‘শনিবার কলম্বোতে অনুষ্ঠেয় এসিসির সভায় আমরা বিষয়টি তুলবো। আমাদের মনে হয় টুর্নামেন্টটি (অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ) ভারত ও পাকিস্তানের বাইরে অন্য কোনো নিরপেক্ষ ভেন্যুতে হওয়া উচিত।’

রাজনৈতিক বৈরিতার কারণে ২০০৭ সাল থেকে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলা এক প্রকার বন্ধই আছে। যদিও ২০১২-১৩ সালে একটি সংক্ষিপ্ত সিরিজ খেলতে ভারত গিয়েছিল পাকিস্তান দল। সে সিরিজে ২টি টি-টুয়েন্টি ও ৩টি ওয়ানডে থাকলেও ছিলো না কোনো টেস্ট ম্যাচ।

দুই দেশের মধ্যে দ্বন্দ্ব থাকলেও মূলত মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসী হামলার পর থেকেই ক্রীড়া ক্ষেত্রেও বিভাজন সৃষ্টি হয়। এরপর থেকেই দুই দেশের খেলা মানে বাড়তি টেনশন কাজ করে। ২০১৩ সালে নারী বিশ্বকাপে নিরাপত্তাজনিত কারণে মুম্বাই থেকে পাকিস্তানের খেলা স্থানান্তর করতে বাধ্য হয় তারা। একই বছরে একই কারণে হকি লিগেও অংশ নেয়নি পাকিস্তান।

২০১৬ সালে আবারও পাকিস্তান অভিযোগ করে ভারতের বিরুদ্ধে। জুনিয়র বিশ্বকাপে পাকিস্তানী খেলোয়াড়দের ভিসা দিতে দেরি করে ভারত। যে কারণে পাকিস্তানের ওই আসরে অংশ নেওয়া হয়নি। সে বছরের শুরুতে ভিসা জটিলতার কারণে পাকিস্তানী স্কোয়াশ খেলোয়াড়রা একটি টুর্নামেন্ট বর্জন করে।

এছাড়াও পিসিবি ভারতের বিরুদ্ধে তাদের পর্যাপ্ত সন্মান না দেওয়ায় এবং নির্ধারিত দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না খেলায় আইনী প্রক্রিয়ায় যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ২০১৪ সাল থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত এ দুইই দেশের ৬টি পুর্ণাঙ্গ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার কথা ছিল। দিল্লি থেকে অনুমতি না পাওয়ায় এ সিরিজগুলো হচ্ছে না। তাই ক্ষতিপূরণ চায় পিসিবি।

২০১৫ সালে প্রথমবার দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজনের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয় পিসিবি এবং চলতি বছরের নভেম্বর-ডিসেম্বরে দ্বিতীয় দফা খেলার কথা থাকলেও তা বাতিল করে দেওয়া হয়। গত সপ্তাহেই পিসিবি জানিয়েছে ভারতের বিপক্ষে ১ বিলিয়ন রুপির ক্ষতিপূরণ দাবি করবে তারা।   এ বিষয়ে পিসিবির চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান জানিয়েছেন, ‘আইসিসির বিরোধ নিস্পত্তির কমিটিতে এ মামলা খুব শিগগিরই উত্থাপন করা হবে।’

আপনার মতামত লিখুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ