রবিবার-২১শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং-৮ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ১০:১৯
ফেরদৌসের সমালোচনায় যা বললেন মোদি তিন দিনের সরকারি সফরে ব্রুনেইয়ের পথে প্রধানমন্ত্রী প্যারোলের বিষয়ে নমনীয় খালেদা! তিন দিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী ব্রুনাই যাচ্ছেন আজ আজ পবিত্র শবেবরাত নারায়ণগঞ্জে বাহারি রঙের ঘুড়ি উৎসব পার্বতীপুর মধ্যপাড়া খনিতে ১৬ দিন ধরে পাথর উত্তোলন বন্ধ

বয়োবৃদ্ধদের সম্মানে কোরআনের শব্দচয়ন

3 months ago , বিভাগ : ধর্ম,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: ৪. সে [জাকারিয়া (আ.)] বলেছিল, হে আমার রব, আমার অস্থি দুর্বল হয়ে গেছে। বার্ধক্যে আমার মস্তক শুভ্রোজ্জ্বল হয়েছে। হে আমার রব, আপনাকে ডেকে আমি কখনো ব্যর্থ হইনি। (সুরা : মারিয়াম, আয়াত : ৪)

তাফসির : আগের আয়াতে বলা হয়েছিল, জাকারিয়া (আ.) সন্তান লাভের আশায় নিভৃতে মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করেছেন। আলোচ্য আয়াতে তাঁর দোয়ার ভাষ্য উল্লেখ করা হয়েছে। দোয়ায় তিনি নিজের অক্ষমতার সব দিক তুলে ধরেছেন, তাঁর বয়োবৃদ্ধ হওয়ার দিকে ইঙ্গিত করেছেন। বৃদ্ধকালে মানুষের অস্থি দুর্বল হয়ে যায়। অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ঢিলেঢালা হয়ে যায়। শরীরে শক্তি অনুভব হয় না। চুল ও পশমগুলো শুভ্র আকার ধারণ করে। স্বভাবতই এমন পরিস্থিতিতে পৌঁছার পর সন্তান জন্ম দেওয়ার ক্ষমতা থাকে না। সে কথাটি অত্যন্ত মার্জিত শব্দে বর্ণনা করা হয়েছে। জাকারিয়া (আ.)-এর দোয়ার ভাষ্য উল্লেখ করে কোরআনে যে শব্দগুচ্ছ ব্যবহার করা হয়েছে, সেগুলোর আলোকে বোঝা যায়, কোরআনে বৃদ্ধদের কিভাবে সম্মান দেওয়া হয়েছে।

কোরআনে বৃদ্ধদের জন্য এমন শব্দ আনা হয়েছে, যেগুলোর দিকে তাকালে শ্রদ্ধায় মাথা নুইয়ে আসে। পবিত্র কোরআনে বৃদ্ধদের জন্য বিশেষ পরিভাষা আনা হয়েছে। এই পরিভাষার ব্যবহার অন্য কোনো ভাষায় দেখা যায় না। আলোচ্য আয়াতে দেখা যায়, একজন মানুষ বৃদ্ধ হয়ে গেছে—এ বিষয়টি বোঝানোর জন্য বলা হয়েছে, ‘বার্ধক্যে আমার মস্তক শুভ্রোজ্জ্বল হয়েছে।’ এ আয়াতে এদিকে ইঙ্গিত করা হয়েছে যে চুল পেকে যাওয়া শুভ্রতা ও সৌন্দর্যের প্রতীক।

‘বয়োবৃদ্ধ’ বোঝানোর জন্য কোরআনে তিন জায়গায় শেখ বা ‘শায়খ’ শব্দ ব্যবহৃত হয়েছে। যেমন—সুরা হুদের ৭২ নম্বর আয়াতে, সুরা ইউসুফের ৭৮ নম্বর আয়াতে, সুরা কাসাসের ২৩ নম্বর আয়াতে। আরেক জায়গায় ‘শায়খ’ শব্দের বহুবচন ‘শুয়ুখুন’ ব্যবহার করা হয়েছে। এটি ব্যবহৃত হয়েছে সুরা মুমিনের ৬৭ নম্বর আয়াতে।

ইসলামের ইতিহাসে শেখ বা শায়খ শব্দটি খুবই মর্যাদাপূর্ণ শব্দ। বলা যায়, ইসলামের সর্বাধিক মর্যাদাপূর্ণ উপাধিগুলোর অন্যতম হলো শেখ বা শায়খ। ইসলামের প্রথম দুই খলিফাকে একসঙ্গে ‘শায়খাইন’ বা দুই শায়খ বলা হয়ে থাকে। হানাফি মাজহাবের দুই ইমাম—ইমাম আবু হানিফা ও ইমাম মুহাম্মদ (রহ.)-কে একসঙ্গে ‘শায়খাইন’ বা দুই শায়খ বলা হয়ে থাকে। হাদিসের প্রধান দুটি গ্রন্থ বুখারি ও মুসলিম শরিফের দুই লেখককে একসঙ্গে বলা হয় ‘শায়খাইন’। এ ছাড়া যুগে যুগে যেসব হাদিসবেত্তা হাদিসচর্চায় নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছেন, তাঁদের ‘শায়খ’ বলা হয়। এ শব্দ থেকেই এসেছে ‘শায়খুল হাদিস’ উপাধি। আর এ শব্দ থেকেই এসেছে শেখ শব্দটি। এটি আরবি পরিভাষা। আর কোনো ভাষায় এ পরিভাষার ব্যবহার নেই।

কোরআনের শিক্ষার আলোকে ইসলামী সমাজব্যবস্থায় বয়োবৃদ্ধদের অধিকার সর্বতোভাবে সংরক্ষণ করা হয়েছে। একবার মহানবী (সা.)-এর কাছে এক বৃদ্ধ এলেন। উপবিষ্টরা তাঁকে জায়গা করে দিতে একটু দেরি করে ফেলে। দেরি করাটা মহানবী (সা.)-এর পছন্দ হয়নি। তিনি সাহাবিদের কঠোর ভাষায় বলেন, ‘যে শিশুদের ভালোবাসে না এবং প্রবীণদের সম্মান করে না, সে আমার উম্মত নয়।’ (তিরমিজি, হাদিস : ১৯১৯)।

আপনার মতামত লিখুন

ধর্ম বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ