মঙ্গলবার,২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং,১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১১:০৯
পাঁচ দিনের সফরে সিঙ্গাপুর গেলেন এরশাদ গোল বলের কোনো বিশ্বাস নাই: মোস্তাফিজ মায়ের কোলে চড়ে ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় পাশ পাস কোর্স থাকবে না ঢাবির ৭ কলেজে ৩৩ মডেল মাদরাসা সরকারিকরণ দাবি পোশাক শিল্পের মাধ্যমে লাখো শ্রমিক দারিদ্র্য মুক্ত’ শিক্ষা খাতে আরো বেশি বেসরকারি বিনিয়োগকারীদের সম্পৃক্ত করতে হবে

বড়পুকুরিয়া খনিতে চীনা শ্রমিক দিয়ে কয়লা উৎপাদন শুরু

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: দেশীয় শ্রমিকদের চলমান আন্দোলনের মুখে চীনা শ্রমিক দিয়ে ৮ দিন পর বড়পুকুরিয়া খনিতে কয়লা উৎপাদন শুরু হয়েছে। সোমবার (২১ মে) সকাল ৬ টা থেকে খনির এমপিএমঅ্যান্ডপি (উৎপাদন, ব্যবস্থাপনা, রক্ষণাবেক্ষণ ও প্রভিশনিং সার্ভিসেস) চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিএমসি-এক্সএমসি কনসোর্টিয়াম চীনা শ্রমিক দিয়ে কয়লা উৎপাদন শুরু করে।এদিকে, খনি শ্রমিকরা নবম দিনের মত কর্মবিরতি অব্যাহত রেখেছে।বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএমসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান- খনিতে তিন শতাধিক চীনা শ্রমিক-প্রকৌশলী রয়েছে। দেশীয় শ্রমিক ৮ দিনেও কাজে না ফেরায় চীনা শ্রমিক-প্রকৌশলী দিয়েই প্রতিদিন এক শিফটে কয়লা উৎপাদনের সিদ্ধান্ত নেয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিএমসি-এক্সএমসি কনসোর্টিয়াম।

এমডি আরও বলেন শ্রমিকদের চলমান আন্দোলন নিয়ে সরকারে উচ্চ পর্যায়ে রোববার (২০ মে) আলোচনা হয়েছে। স্থানীয় সাংসদ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এমপি, জ্বালানি সচিব, পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান সহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে শ্রমিকদের সাথে আলোচনার জন্য উচ্চ পর্যায়ের ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সদস্যরা এসে শ্রমিকদের সাথে আলোচনায় বসবেন। তার আগে শ্রমিকদের কাজে ফিরতে হবে বলে তিনি জানান।উল্লেখ্য, ১৩ দফা দাবিতে ১৩ মে থেকে খনি গেটের সামনে অবস্থান নিয়ে খনি শ্রমিকরা অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি পালন করে আসছে। ১৫ মে শ্রমিকদের সাথে খনি কর্মকর্তাদের এক সংঘর্ষ হয়। এতে খনির ৯ কর্মকর্তা, ৫ শ্রমিক, ২ পুলিশ সদস্য সহ ২০ জন গুরুত্বর আহত হয়। এর আগে ১৪ মে শ্রমিকদের হামলায় এক খনি কর্মচারী আহত হয়।এ দুটি ঘটনায় খনির ব্যবস্থাপক (নিরাপত্তা) সৈয়দ ইমাম হাসান বাদি হয়ে শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন সভাপতি রবিউল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আবু সুফিয়ান, সাবেক সভাপতি ওয়াজেদ আলী, খনি এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির সদস্য মশিউর রহমান বুলবুল, মিজানুর রহমান সহ ৪০ জনের নামে এবং অজ্ঞাতনামা ৭০ সহ ১১০ জন আসামীকে আসামী করে ১৬ মে পার্বতীপুর মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করে। একই ঘটনায় বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আবু সুফিয়ান খনির ১৪ জন কর্মকর্তাকে আসামী করে দিনাজপুর চিপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলাটি দায়ের করেন রোববার (২০ মে)।

আপনার মতামত লিখুন

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ