বুধবার,২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং,৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:২৫

কলকাতায় আনা হল ব্র্যাডম্যানের ব্যাট অনেক কিছুই দেওয়ার ছিল আমার: মাশরাফি বাংলাদেশ কঠিন প্রতিপক্ষ, বললেন দক্ষিণ আফ্রিকার হেড কোচ স্বর্ণের দাম কমল পার্বতীপুরে খরায় পুড়ছে রোপা আমন বৃষ্টিপাত না হওয়ায় কৃষকরা দিশেহারা ‘মিয়ানমারকে অবশ্যই তাদের নাগরিকদের ফেরত নিতে হবে’ রোহিঙ্গা নিধন বন্ধে মুসলিম দেশগুলোকে এক হওয়ার আহ্বান

বাংলাদেশ ব্যাংকের কার্যক্রমকে আধুনিকীকরণ করা হচ্ছে : অর্থমন্ত্রী

8_22440মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেক্স: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, ব্যাংকে জালিয়াতি রোধে এবং আর্থিক শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শন কার্যক্রমকে আধুনিকীকরণ করার পাশাপাশি আরও শক্তিশালী করা হচ্ছে।

তিনি আজ সংসদে সরকারি দলের সদস্য মোহাঃ গোলাম রাব্বানীর এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, এর ধারাবাহিকতা ভবিষ্যতেও অক্ষুণœ রাখা হবে।।
মন্ত্রী বলেন, প্রচলিত পরিদর্শন কার্যক্রমের পরিবর্তে ঝুঁকি ভিত্তিক পরিদর্শন কার্যক্রম পরিচালনার পদক্ষেপ গৃহীত হয়েছে। এতে করে ব্যাংকগুলোর যে কোন ঝুঁকিপূর্ণ কার্যক্রমকে আগেভাগেই সনাক্তকরণ করে প্রতিকারের উদ্দেশ্যে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা যাবে। যার ফলে ব্যাংকগুলোতে অনিয়ম বা জালিয়াতির সুযোগ কমে আসবে।

মুহিত বলেন, তবে জালিয়াতি বা অনিয়ম সনাক্তকরণ এবং তা প্রতিরোধের প্রাথমিক দায়িত্ব মূলতঃ সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলোর উপর বর্তায়। এ পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাংকগুলোর অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা শক্তিশালীকরণে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে এবং ভবিষ্যতেও এরূপ নির্দেশনা জারি করা হবে।
অর্থমন্ত্রী বলেন, আর্থিক খাতের অনিয়ম বা জালিয়াতি রোধে এবং এ খাতের সার্বিক শৃংখলা বজায় রেখে আমানতকারীদের স্বার্থ অক্ষুণœ রাখতে সময়ে সময়ে বিভিন্ন নীতিমালা প্রণীত হচ্ছে এবং ব্যাংকগুলো এসব নীতিমালা পরিপালন করছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, প্রযোজ্য আইন এবং নীতিমালা পরিপালনে কোন ব্যাংক ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সে ব্যাংকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

মন্ত্রী বলেন, এছাড়া অনিয়ম বা জালিয়াতির সাথে জড়িত ব্যাংক কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনের আওতায় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণে বাংলাদেশ ব্যাংক সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা প্রদান করে থাকে।

মুহিত বলেন, এক্ষেত্রে দুর্নীতি দমন কমিশনসহ বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের ক্ষেত্র আরও প্রসারিত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে প্রয়োজন অনুযায়ী ভবিষ্যতে আইন ও বিধিসমূহ সংশোধন অথবা নতুন আইন বা বিধি-বিধান প্রণয়নের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ