সোমবার,২৩শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং,৮ই কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: বিকাল ৫:৩২

 পার্বতীপুর মডেল থানায় নতুন ওসি’র যোগদান বাগরেহাটে ২ সার ব্যবসায়ীকে ৫০ হাজার টাকা জরমিানা আজ রাত থেকে ইন্টারনেটে সমস্যা হতে পারে  আলুর উল্টোযাত্রা এ সপ্তাহেই ৩৭তম বিসিএস লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ প্রতিবাদে কাল স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ ‘বেপরোয়া’ নিয়ে জাজ ও পরিচালক সমিতির দ্বন্দ্ব

বাংলাদেশ একদিন বিশ্বকাপ জিতবে : প্রধানমন্ত্রী

shak-hasina_31676
মুক্তিনিউজ24.কম ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ক্রিকেটে বাংলাদেশ একদিন বিশ্বকাপ জিতবে। আজ রবিবার দুপুরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
বাংলাদেশের ক্রিকেটের শক্তিশালী অবস্থানের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলার রয়েল বেঙ্গল টাইগাররা টাইগার হিসেবেই নিজেদের পরিচিত করেছে। ইনশা আল্লাহ আমরা একদিন বিশ্বকাপ জয় করব।
এ সময় অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল দলেরও প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ফুটবলে মেয়েরাই সুনাম বয়ে এনেছে। বড় হয়ে এরা আরো সুনাম বয়ে আনবে। তবে মেয়েরা যা পারছে, ছেলেরা তা পারছে না। মেয়েরা ১০ গোল দেয় আর ছেলেরা ৫ গোল খেয়ে আসে। তবে এরাও (ছেলেরা) পারবে না তা নয়, একদিন এরাও পারবে।
শেখ হাসিনা বলেন, খেলাধুলায় গুরুত্ব দিচ্ছি বলেই মেয়েরা চ্যাম্বিয়ন হচ্ছে। এছাড়া প্রতিবন্ধীরাও ভালো করছে। এদের প্র্যাকটিসের জন্য জায়গায় করে দিচ্ছি। প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা কমপ্লেক্স করে দিচ্ছি। আমরা দেখছি যারা অন্ধ তারাও ট্রফি নিয়ে আসে। আমরা তাদেরও খেলায় অংশ করে নিয়েছি। খেলাধুলায় প্রশিক্ষণ সবচেয়ে জরুরি।
তিনি বলেন, ৯৬ সালে যখন ক্ষমতায় আসি তখন বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) কেবল সাপই দেখা যেতো। সেখানে আমরা উন্নয়ন করে খেলাধুলার উপযোগী করেছি। এখন প্রত্যেক বিভাগে বিকেএসপির শাখা করছি। প্রত্যেক জেলার মিনি স্টেডিয়াম করে দিচ্ছি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, গ্রামে কিছু খেলা ছিল। এগুলোর আবার চালু করতে হবে। গোল্লাছুট, হা-ডু-ডু, ডাঙ্গুলির মতো খেলাও প্র্যাকটিস করতে হবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকায় আধুনিক সুবিধা সম্পন্ন স্টেডিয়াম দরকার। পূর্বাচলে সেটা করা হবে। প্রত্যেক উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম করা হবে। এমনভাবে তৈরি করা হবে, যেন রাস্তা দিয়ে যেতেই মানুষজন খেলা দেখতে পারে। এভাবেই যেন সবাই উৎসাহ পায়। কারণ খেলাধুলা করলে আমাদের সন্তানরা সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হবে, সুস্থ চিন্তা করতে শিখবে।
শেখ কামালকে ২০১১ সালের জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার (মরণোত্তর) দেয়া হয়েছে ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে। দেশের জনপ্রিয় ক্লাব আবাহনী ক্রীড়া চক্রের প্রতিষ্ঠাতা শেখ কামাল ক্রিকেট, বাস্কেটবল ও ব্যাডমিন্টন খেলতেন। পাশাপাশি তিনি ছিলেন একজন অ্যাথলেট।
১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট সেনাবাহিনীর একদল কর্মকর্তা ও সৈনিকের হাতে জীবন দিতে হয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের। সেই রাতে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বাড়ির নিচতলায় ২৬ বছর বয়সী শেখ কামালকে গুলি করে হত্যা করে ঘাতকরা।
দেশের ক্রীড়াঙ্গনে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি দিতে ১৯৭৬ সালে জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার চালু করা হয়। ১৯ জন ক্রিকেটারসহ মোট ১৮৮ জন এ পর্যন্ত এ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।
আপনার মতামত লিখুন

জাতীয় বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ