শনিবার,২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং,৮ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: সকাল ১১:৩৮

শাবিপ্রবিতে গবেষণা খাতে ২৫ লাখ টাকা দিল পূবালী ব্যাংক পাকিস্তানি অভিনেত্রীর প্রেমে পড়েছেন রণবীর ‘গোলমাল অ্যাগেইনে’র ট্রেইলার প্রকাশ স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য অনন্ত জলিলের দ্বারস্থ এফআই মানিক পাকিস্তানের এনবিপি ব্যাংকের দুর্নীতিতে কয়েকজন বাংলাদেশি জড়িত? চট্টগ্রামে কমার্স ব্যাংকের নতুন শাখার উদ্বোধন চুক্তি লঙ্ঘন করায় পাকিস্তানকে কড়া হুঁশিয়ারি দিল ভারত

বহির্গমন ছাড়পত্র ও স্মার্ট কার্ড সেবা উদ্বোধন আজ

file (8)মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেক্স:  দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী বন্দর নগরী চট্টগ্রামে আজ রবিবার বহির্গমন ছাড়পত্র ও স্মার্ট কার্ডের সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হচ্ছে। আজ আনুষ্ঠানিকভাবে এ সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বিএসসি এমপি। এ কার্যক্রম চালু হলে বিদেশগামী শ্রমিক ও কর্মীদের বহির্গমন ছাড়পত্র ও স্মার্ট কার্ডের জন্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের বিদেশগামী শ্রমিক ও কর্মীদের আর ঢাকায় ছুটতে হবে না। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, সরকার পর্যায়ক্রমে সকল বিভাগীয় শহর এবং বিদেশগামী শ্রমঘন জেলা শহরে এ সেবা কার্যক্রম চালু করবে। আগামীকাল চট্টগ্রামের জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি কার্যালয় থেকে এই সেবা পাওয়া যাবে।
চট্টগ্রাম জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার জানান, ঢাকার বাইরে প্রথমবারের মতো চট্টগ্রামে এ সুবিধা চালু করা হচ্ছে। এতে বিদেশগামী শ্রমিকদের ঢাকা-চট্টগ্রাম যাতায়াতের ভোগান্তি কমবে। তিনি বলেন, কাজের জন্য বিদেশে যাওয়ার আগে শ্রমিকদের নিবন্ধন, আঙুলের ছাপের (ফিঙ্গার ইমপ্রেশন) পাশাপাশি স্মার্ট কার্ড ও বহির্গমন ছাড়পত্র নেওয়া বাধ্যতামূলক। কাজের জন্য একজন বিদেশগামী কর্মীকে স্মার্ট কার্ডের জন্য ৩ হাজার ৭৫০ টাকা প্রদান করতে হয়। এই টাকা প্রবাসী কল্যাণ তহবিলে জমা হয় । পরবর্তীতে প্রবাসী কর্মীরা এই কল্যাণ তহবিলের সুযোগ সুবিধা ভোগ করে থাকেন।
জহিরুল আলম জানান, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে শ্রমিকদের এ প্রক্রিয়ায় সহায়তা দেয় জনশক্তি রপ্তানিকারক কোনো প্রতিষ্ঠান। চট্টগ্রাম ও এর আশপাশের জেলার বিদেশগামী শ্রমিকদের ঢাকায় গিয়ে জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) প্রধান কার্যালয় থেকে স্মার্ট কার্ড ও বহির্গমন ছাড়পত্র সংগ্রহ করতে হয়। আগামীকাল চট্টগ্রাম থেকে বহির্গমন ছাড়পত্রের সুবিধা চালু হলে বিদেশগামী কর্মীদের সময় ও অর্থের অনেক সাশ্রয় হবে। দেশের যেসব জেলা থেকে অধিকসংখ্যক শ্রমিক বিদেশে যান, পর্যায়ক্রমে সেসব এলাকায় এই সেবা কার্যক্রম চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে তিনি জানান।
স্মার্ট কার্ড বা কম্পিউটার ম্যাগনেটিক চিপ কার্ডে বিদেশগামী একজন শ্রমিকের ছবি, আঙ্গুলের ছাপসহ ১৮ ধরনের তথ্য থাকে। আবেদন করার সর্বোচ্চ দুই কর্মদিবসের মধ্যে একজন শ্রমিককে স্মার্ট কার্ড সরবরাহ করা হয়। বহির্গমন ছাড়পত্রের অংশ হিসেবে এই কার্ড দেয়া হয়। চট্টগ্রাম জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল বলেন, চট্টগ্রামে বসবাসরত দেশের যেকোনো অঞ্চলের মানুষ বহির্গমন ছাড়পত্র পাওয়ার জন্য এখানে আবেদন করতে পারবেন। প্রাথমিকভাবে কেবল একক ভিসার ক্ষেত্রে এই সুবিধা পাওয়া যাবে।
বিএমইটির তথ্য অনুযায়ী, ১০ বছর ধরে বিদেশে জনশক্তি রপ্তানির ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম জেলার স্থান দ্বিতীয়। প্রথম স্থানে রয়েছে কুমিল্লা। ২৪ জলাই পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে মোট ৪ লাখ ২ হাজার ৮৯১জন কর্মী কাজের জন্য বিদেশ গেছেন। গত বছর চট্টগ্রাম জেলা থেকে ৩২ হাজার ৩৯৯ জন শ্রমিক বিদেশে গেছেন। তাদের মধ্যে ১ হাজার ৪১১ জন নারী শ্রমিক। ২০০৫ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত এক দশকে চট্টগ্রাম থেকে ৫ লাখ ৪১ হাজার ১১২ জন কর্মী কাজের জন্য বিদেশ গেছেন বলেও জনশক্তি কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক উল্লেখ করেন।

আপনার মতামত লিখুন

তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ