শনিবার,১৯শে আগস্ট, ২০১৭ ইং,৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:২৯

সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে গ্যালাক্সি এস৮ পর্নোগ্রাফি ও শিল্পের মধ্যে পার্থক্য করতে ব্যর্থ ফেবু ‘রোবট’ ওজন কমাতে চাইলে এই ৫ খাবারকে ‘না’ বলুন ডাবের পানির উপকারিতা শিশুর সামনে ঝগড়া নয় আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি মানুষকে কাছে এনেছে : অধ্যাপক আবদুল মান্নান গরু আমদানী বন্ধের দাবি মাংস ব্যবসায়ী সমিতির

বনানীতে দুই তরুণী ধর্ষণ : অভিযোগ গঠনের শুনানি ৯ জুলাই

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই তরুণীকে ধর্ষণের মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদ ও তার দুই বন্ধুসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি হবে ৯ জুলাই।

আলোচিত এ মামলায় পুলিশের দেয়া অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে ঢাকার দুই নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ সফিউল আজম আজ সোমবার অভিযোগ গঠনের শুনানির এই দিন ঠিক করে দেন।
আদালতে উপস্থিত ৫ আসামির পক্ষে আইনজীবীরা এদিন জামিনের আবেদন করলেও বিচারক তা নাকচ করে দেন বলে এ আদালতের রাষ্ট্রেপক্ষের কৌঁসুলি আলী আকবর জানান।
অভিযোগ আমলে নেয়ার শুনানিতে বাদীপক্ষে ছিলেন জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির ফাহমিদা আক্তার রিংকি। অন্যদিকে আসামি পক্ষে শুনানি করেন মাহবুব আহমেদ, কাজী নজিবুল্লাহ হিরু ও আবদুর রহমান হাওলাদার।
মামলার আসামিরা হলেন- আপন জুয়েলার্সের অন্যতম মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, তার বন্ধু ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান ‘ই-মেকার্স’ এর কর্মকর্তা নাঈম আশরাফ, ঢাকার পিকাসো রেস্তারাঁর অন্যতম মালিক রেগনাম গ্রুপের এমডি মোহাম্মদ হোসেন জনির ছেলে সাদমান সাকিফ এবং সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন ও দেহরক্ষী রহমত আলী।
তাদের মধ্যে সাফাত ও নাঈম ধর্ষণে সরাসরি অংশ নেন এবং বাকি ৩ জন তাদের সহযোগিতা করেন অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের পরিদর্শক ইসমত আরা এমি।
গত ৬ মে বনানী থানায় অভিযোগ দায়েরের পর ৮ জুন ঢাকার হাকিম আদালতে এই অভিযোগপত্র দেন তিনি। সেখানে বাদীপক্ষে মোট ৪৭ জনকে সাক্ষী করা হয়।
গত ২৮ মার্চ রাতে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণের শিকার হন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী। ঘটনার প্রায় ৪০ দিন পর গত ৬ মে তারা বনানী থানায় মামলা করেন। মামলায় সাফাত আহমেদ, সাদমান সাকিফ, নাঈম আশরাফ, সাফাতের গাড়ি চালক বিল্লাল হোসেন ও বডিগার্ড রহমত আলী ওরফে আজাদকে আসামি করা হয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সব আসামিকে গ্রেফতার করেছে। তারা পুলিশি হেফাজতে রয়েছে।
আপনার মতামত লিখুন

ঢাকা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ