শুক্রবার,২৩শে জুন, ২০১৭ ইং,৯ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: ভোর ৫:৫১

নাটোরের গুরুদাসপুর পৌরসভার সাড়ে ১৮ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা বাগাতিপাড়ার দরিদ্র মেধাবী সজনীকে ল্যাপটপ দিলেন ইউএনও পাঁচবিবিতে নগত অর্থ বিতরণ সৈয়দপুরে সুবিধা বঞ্চিতদের পাশে খুচরা পয়সা সংগঠন ইটভাটার কালোধোঁয়ায় ফসলের তিপূরণের দাবিতে কৃষকদের মানববন্ধন লালমনিরহাটে হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় ১ম স্থান অধিকার বায়তুল মুকাররমে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজের সময়সূচি

ফরাসি পার্লামেন্ট নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেল ম্যাক্রোঁর দল

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: ফ্রান্সে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার মাত্র কয়েক সপ্তাহ পর তার রাজনৈতিক দল সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।

ফরাসি সংসদ নির্বাচনের প্রায় সব ভোট গণনা হওয়ার পর দেখা যাচ্ছে ৫৭৭টি আসনের মধ্যে ৩০০টিরও বেশি আসন জিততে যাচ্ছে ম্যাক্রোঁর দল এবং তাদের মিত্ররা। তবে ধারণা করা হচ্ছিল লা রিপাবলিক এন মার্শ আরও বেশি আসন পাবে।
যদিও দলটি গঠন হয়েছে মাত্র এক বছর আগে এবং দলের অধিকাংশ প্রার্থীরই রাজনৈতিক কোনো অভিজ্ঞতা নেই। এই জয়ের ফলে মূলধারার দলগুলো অনেকটাই কোণঠাসা হয়ে পড়েছে এবং প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ তার ইইউপন্থি এবং ব্যবসাবন্ধব নীতি বাস্তবায়নের কর্তৃত্ব পেলেন।
সংসদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপটিতে অবশ্য ভোট প্রদানের হার ছিল ৪২ শতাংশ। গত নির্বাচনের তুলনায় যা অনেকটা কম।
গত ১১ জুন প্রথম দফার ভোটের ফলাফলে মাত্র চার আসনের প্রার্থী ৫০ শতাংশ ভোট পেতে সমর্থ হন। রীতি অনুযায়ী ওই ৪ আসন বাদ রেখে বাকী আসনগুলোতে দ্বিতীয় দফার ভোট অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন শীর্ষ ভোটপ্রাপ্ত দুই প্রার্থী  এবং যারা  নিবন্ধিত ভোটারদের অন্তত সাড়ে ১২ শতাংশের ভোট পেয়েছেন।
ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মতো করেই পার্লামেন্টের ভোটও অনুষ্ঠিত হয় দুই দফায়। কেউ যদি প্রথম দফাতেই ৫০ শতাংশের বেশি পরিমাণ ভোট পেয়ে যান, তবে প্রথম দফার ভোটেই তিনি পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হন। আর যেসব আসনে কোনও প্রার্থী ৫০ শতাংশ ভোট পাবেন না সেসব আসনের শীর্ষ দুই বিজয়ীর মধ্যে দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে লড়াই হয়। প্রথম দফার নির্বাচনে ম্যাক্রোঁর দল এলআরইম এবং মোডেম এ দুটি দল একসঙ্গে ৩২.৩ শতাংশ ভোট পেয়েছিল। মধ্যম ডানপন্থি রিপাবলিকানরা পেয়েছে ২১.৫ শতাংশ ভোট। রবিবারের দ্বিতীয় দফার নির্বাচনী ফলাফলে দেখা যায়, ম্যাক্রোঁর দল রিপাবলিক অন দ্য মুভ এবং তাদের জোটসঙ্গী মোডেমের প্রার্থীরা দুই-তৃতীয়াংশের বেশি আসনে জয় পেয়েছেন।
ফ্রান্সের পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হলে একটি দলকে ৫৭৭টি আসনের মধ্যে ২৮৯টি আসন পেতে হয়। জনমত জরিপগুলো আভাস দিয়েছিল, নির্বাচনে ম্যাক্রোঁর দল এলআরইএম ৭৫-৮০ শতাংশ আসনে জয় পাবে। অর্থাৎ পার্লামেন্টে ৪০০টিরও বেশি আসন পাবে তারা। জরিপের আভাস সত্যি হয়েছে। সর্বশেষ ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির ৫৭৭ আসনের মধ্যে ম্যাক্রোঁর দল রিপাবলিক অন দ্য মুভ ৩০০ টিরও বেশি আসনে জয় পেয়েছে। অন্যদিকে,  তার জোটসঙ্গী মোডেমের প্রার্থীরা জিতেছে আরও ৪০টি আসনে। এ নিয়ে ম্যাক্রোঁর দল ইতোমধ্যে ৩৪০ টিরও বেশি আসনে জয় পেয়েছে।
গত মে মাসে আধুনিক ফ্রান্সের কনিষ্ঠতম প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করেন ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। ফ্রান্সের রাজনীতিতে বাম ও ডানপন্থী রাজনৈতিক প্রধান দু’টি ধারার বাইরে ১৯৫৮ সালের পর ম্যাক্রোঁই প্রথম ব্যক্তি, যিনি দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। নির্বাচনি প্রচারণায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে সুসম্পর্কের মধ্য দিয়েই ফ্রান্সকে এগিয়ে নেওয়ার অঙ্গীকার করেছিলেন ম্যাক্রোঁ। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সন্ত্রাসবাদ ও জলবায়ু পরিবর্তনের হুমকি মোকাবেলায় কাজ করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন তিনি। ম্যাক্রোঁর সমর্থকদের আশা, পার্লামেন্টে দলটির নিরঙ্কুশ বিজয়ের মধ্য দিয়ে নিজস্ব নীতিমালাগুলো সহজে পাস করাতে পারবেন ম্যাক্রোঁ।
আপনার মতামত লিখুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ