শনিবার,১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং,১লা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১০:০২
নেতা নয়, সেবক হতে চাই: শেখ তন্ময় ভোটকক্ষে সাংবাদিকরা যা করতে পারবেন, যা পারবেন না ফখর উদ্দিন মোহাম্মদ স্বপনের শেরে-বাংলা পদক লাভ ঈশ্বরদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কলমাকান্দা ইউএনও’র অনন্য নজির জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রস্তুত, থাকবে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় ক্রিকেটে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার আশাবাদ প্রধানমন্ত্রীর

প্রার্থীতা বাতিলে স্বেচ্ছাচারী আচরণ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে

2 weeks ago , বিভাগ : রাজনীতি,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইকালে সংশোধনযোগ্য ত্রুটি সংশোধনের সুযোগ না দিয়ে প্রার্থীতা বাতিলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। জোটের সভায় বলা হয়েছে, অনেক স্থানে রিটার্নিং অফিসারদের স্বেচ্ছাচারী আচরণ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে। যা গ্রহণযোগ্য নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করবে। তাই সভা থেকে কারও আজ্ঞাবহ না হয়ে সামান্য ও সংশোধনযোগ্য ভুলের সংশোধন করে সংশ্লিষ্টদের প্রার্থী হওয়ার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

গতকাল সোমবার বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন জোটের সমন্বয়ক সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম। উপস্থিত ছিলেন বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শুভ্রাংশু চক্রবর্তী ও ফখরুদ্দিন কবির আতিক, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ ও রাজেকুজ্জামান রতন, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের মোশারেফ হোসেন নান্নু ও আব্দুস সাত্তার, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির মোশরেফা মিশু ও মমিনুর রহমান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য আকবর খান, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা মনির উদ্দিন পাপ্পু, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহবায়ক হামিদুল হক প্রমুখ।

সভায় বলা হয়, সরকারি দলের প্রার্থী ও নেতাকর্মীরা দেশের বিভিন্ন স্থানে আচরণবিধি লংঘন করে শোডাউন, সভা-সমাবেশ করছে, ভোট চাইছে, অথচ নির্বাচন কমিশন এক্ষেত্রে নিরব। বিরোধী দলসমূহের প্রতি নির্বাচন কমিশনের আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলা হয়, নির্বাচন কমিশন সরকারি দলের ইচ্ছার প্রতিফলন করতে ‘উটপাখির নীতি’ নিয়ে চলছে। এর অবসান না হলে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব না। সভায় সাতক্ষীরার তালার বাম জোটের নেতা-কর্মীদের পুলিশি হয়রানির তীব্র নিন্দা জানানো হয়।

সভায় বলা হয়, সোস্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা ও শোনা গেছে যে, চট্টগ্রামের প্যানেল মেয়র আসন্ন নির্বাচন সম্পর্কে ‘নীল নকশা’র কথা বলেছেন। এতে মনে হয়েছে, সরকার নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনের দিকেই এগুচ্ছে। সভায় অবিলম্বে এ প্যানেল মেয়রকে অপসারণ ও গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়। সূত্র: কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ