বুধবার,১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং,৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, সময়: রাত ১২:০৩
বাউয়েটের প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্যের বিদায় সংবর্ধনা সারাদেশে ১ হাজার ১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে কাজ করবে সেনাবাহিনী মধ্যপাড়া পাথর খনিতে সেরা খনি শ্রমিক হিসেবে ৫৫ জন পুরস্কৃত আপনাদের সেবক হিসেবে পাশে ছিলাম -এমপি মানিক ভুলভ্রান্তি হলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন: শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের আরো পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকা প্রয়োজন : প্রধানমন্ত্রী

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা ২৯ জুলাই শুরু

5 months ago , বিভাগ : শিক্ষা,

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৪’ মৌখিক পরীক্ষার সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী ২৯ জুলাই থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত মৌখিক পরীক্ষা হবে বলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই) সূত্রে জানা গেছে।

ডিপিই জানায়, রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৪ দীর্ঘদিন স্থগিত থাকার পর গত ২০ এপ্রিল লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়। চারটি ধাপে সারা দেশের ৬১টি জেলায় শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মোট ৬ লাখ ১৬ হাজার ৬৪ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ২৯ হাজার ৫৫৫ জন উত্তীর্ণ হন। নিয়োগ বিধিমালা অনুযায়ী আসন প্রতি তিনজন প্রার্থী লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তার মধ্যে দুইজন নারী ও একজন পুরুষ প্রার্থী রয়েছেন। গত ৮ জুলাই সারা দেশের সব জেলার লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়।

জানা গেছে, আগামী ২৯ জুলাই থেকে মৌখিক পরীক্ষা শুরু হবে। দেশের ৬১ জেলার মৌখিক পরীক্ষার জন্য জেলা প্রশাসকের সমন্বয়ে ৬১টি আলাদা ‘ভাইবা কমিটি’ গঠন করা হয়েছে। আগামী ১০ আগস্টের মধ্যে মৌখিক পরীক্ষা শেষ হবে। পরবর্তী দুই মাসের মধ্যে চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করে অক্টোবরের মধ্যে নিয়োগ কার্যক্রম শেষ করা হবে। সব প্রার্থীর মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে মৌখিক পরীক্ষার সময় জানিয়ে দেয়া হবে। এ সময়ের মধ্যে বাকি তিন জেলাও (পার্বত্য তিন অঞ্চল) স্থানীয়ভাবে মৌখিক পরীক্ষা ও নিয়োগ কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিপিই’র মহাপরিচালক আবু হেনা মোস্তফা কামাল  বলেন, শিক্ষক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষার সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী ২৯ জুলাই থেকে শুরু হয়ে ১০ আগস্ট পর্যন্ত চলবে এ পরীক্ষা।

তিনি বলেন, মৌখিক পরীক্ষার জন্য প্রতিটি জেলা প্রশাসকের সমন্বয়ে তিন সদস্যের একটি করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। ২০ নম্বরে মৌখিক পরীক্ষা হবে। তার মধ্যে ৫ নম্বর একাডেমিক সনদে দেয়া হবে, বাকি ১৫ নম্বর কমিটির সদস্যরা মূল্যায়ন করবেন।সূত্র: দৈনিক শিক্ষা

আপনার মতামত লিখুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ