বৃহস্পতিবার,২৩শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং,৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: সন্ধ্যা ৭:১৮
পার্বতীপুরে মধ্যপাড়া পাথর খনির ২৫ শ্রমিক পুরস্কৃত আক্রোশের বলি কোমলমতি পরীার্থীরা হবিগঞ্জে মাইক্রোবাস মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ৩ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের সাথে পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষে ৪ জন আহত তুচ্ছ ঘটনায় দিনাজপুরে ২টি বাসে আগুন ॥ সমঝোতা বৈঠক সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ ॥ অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট ॥ চরম দুর্ভোগে জনসাধারণ ফুলবাড়ীতে আন্ত : সম্পর্ক উন্নয়ন সভা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে পুলিশের হাতে মাদক সহ ২ মহিলা আটক ॥ উন্মুক্ত হলো ঠাকুরগাঁও বিজিবি হাসপাতাল

প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন শুরু

pm_21522মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেক্স:  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়েছে। আজ রবিবার বিকেল ৪ টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়। ১১তম এশিয়া-ইউরোপ মিটিং বা আসেম শীর্ষ সম্মেলনে যোগদান উপলক্ষে মঙ্গোলিয়ায় ৩ দিনের সরকারি সফর নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মঙ্গোলিয়া সফর ও সেখানে আসেম সম্মেলনে অংশগ্রহণ এবং সম্মেলনের ফাঁকে বিশ্বনেতাদের সাথে অনুষ্ঠিত বৈঠক নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী। এদিকে আসেম শীর্ষ সম্মেলন শেষে প্রধানমন্ত্রী গতকাল সন্ধ্যায় দেশে ফিরেছেন। প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস-এর একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট শনিবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটে ঢাকায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। এ সময় মন্ত্রীবর্গ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাবৃন্দ, ৩ বাহিনীর প্রধানগণ, কূটনৈতিক কোরের ডীনসহ উর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানানোর জন্য বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে আসেম শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নিতে গত ১৪ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে মঙ্গোলিয়ার উলানবাটরে যান প্রধানমন্ত্রী। সেখানে আসেমের উদ্বোধনী ও প্লেনারি অধিবেশনে অংশগ্রহণ ছাড়াও শেখ হাসিনা রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ, জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনঝো আবেসহ বিশ্বের বেশ ক’জন শীর্ষ নেতার সঙ্গে বৈঠক করেন। ৩ দিনের ব্যস্ততা শেষে শনিবার বিকেলেই দেশের উদ্দেশে উলানবাটর ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা। এদিন সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিশেষ ফ্লাইটটি বিমানবন্দরে অবতরণ করে।
এবারের দুদিনব্যাপী আসেম- সম্মেলনে ১১টি দেশের প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্ট, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ২৩টি দেশের প্রধানমন্ত্রী, ১৬ জন পররাষ্ট্রমন্ত্রী তথা ইউরোপিয়ান কাউন্সিল ও ইউরোপিয়ান কমিশনের সভাপতি এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলোর সংগঠন আসিয়ান-এর মহাসচিব প্রমুখ অংশগ্রহণ করেন। এটাই ছিল মঙ্গোলিয়ায় আয়োজিত সর্বোচ্চ পর্যায়ের আন্তর্জাতিক কোন অনুষ্ঠান।
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দুটি প্লেনারি মিটিংসহ আসেম- সম্মেলনের উদ্বোধনী, সমাপনী এবং অন্যান্য অধিবেশনগুলোতে যোগদান করেন। দ্বিতীয় প্লেনারিতে, তিনি ‘প্রমোটিং আসেম পার্টনারশিপ অব গ্রেটার কানেকটিভিটি’ শীর্ষক একটি বিবৃতি দেন। সম্মেলনের পাশাপাশি শেখ হাসিনা জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে, রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ-এর সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। পাশাপাশি, ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পাওলো জেন্টিলোনি সিলভেরি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেন। অধিকতর ভারসাম্যপূর্ণ রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিশ্ব গড়ার লক্ষ্য নিয়ে এশিয়া ও ইউরোপের সম্পর্ক গভীরতর করার উদ্দেশ্যে এশিয়া ও ইউরোপের ৫১টি দেশ ও দুটি আঞ্চলিক সংস্থার ফোরাম আসেম গঠিত হয়। বাংলাদেশ ২০১২ সালে আসেম-এ যোগদান করে। এশীয় ও ইউরোপীয় দেশগুলোর ফোরাম আসেম- ১৯৯৬ সালের ১ মার্চ থাইল্যান্ডের ব্যাংককে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়।
প্রসঙ্গ দুদিনব্যাপী ১১তম এশিয়া-ইউরোপ মিটিং (আসেম ১১, সম্মেলন) মঙ্গোলিয়ার রাজধানী উলানবাটোর-এর সাংগ্রি-লা হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়। এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য ছিল- আসেম-এর ২০ বছর : যোগাযোগের মাধ্যমে ভবিষ্যতের অংশীদারিত্ব।

আপনার মতামত লিখুন

জাতীয় বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ