শনিবার,২৫শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং,১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সময়: বিকাল ৩:৫২
৭ মার্চের ভাষণ : আনন্দ শোভাযাত্রা শুরু পার্বতীপুরে আদিবাসি সমাজ উন্নয়ণ সমিতির সংবাদ সম্মেলন ‘আনন্দ শোভাযাত্রা’ শুরু আজ দেশজুড়ে আনন্দ শোভাযাত্রা পার্বতীপুর প্রগতি সংঘের নির্বাচন সম্পন্ন — সভাপতি আনোয়ারুল – সম্পাদক আমজাদ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ যেতে চাই: রুবেল

পৃথিবীর শেষ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকবে যে প্রাণী!

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:অদ্ভুত দর্শন এই প্রাণীকে একেবারে অমর বললেও ভুল হবে না। এরাই নাকি এই দুনিয়ার সবথেকে কঠিনতম প্রাণী। আণুবীক্ষণিক এই প্রাণীটি মাইনাস ২৭২ ডিগ্রি সেলসিয়াসেই জীবন ধারণ করতে পারে। এমনকি এর একটি প্রজাতি অত্যন্ত সক্রিয় রেডিয়েশন সহ্য করতে সক্ষম। এমনকি পৃথিবীর বাইরে মহাশূন্যে থাকতেও এদের কোনও অসুবিধা নেই। ২০০৭ সালে ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি পৃথিবীর কক্ষপথের একেবারে নিম্ন অংশে পাঠায় ৩ হাজার প্রাণীকে। আর সেখানে ‘টার্ডিগ্রেডস’ নামে এই প্রাণী সংশ্লিষ্ট ক্যাপসুলের বাইরে ১২ দিন বেঁচে ছিল।

এটি একটি প্রাচীন প্রাণী বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। প্রায় ১০০ মিলিয়ন বছর আগের ফসিল মিলেছে। গবেষকদের মতে, যতদিন সূর্য থাকবে, ততদিন বিলুপ্ত হবেনা এই প্রাণী। আট পা-ওয়ালা সেই প্রাণীটির আদরের নাম ‘ওয়াটার বিয়ার’ বা ‘জলের ভল্লুক’।

বলা হচ্ছে, তারার বিস্ফোরণ বা গ্রহাণুর আঘাতে সব চুরমার হয়ে গেলেও প্রাণের অস্তিত্ব থাকবে দুনিয়ায়। ছোট এই প্রাণীটি উচ্চতায় আধা মিলিমিটার। কোনও খাবার ও জল ছাড়াই এটি বাঁচতে পারে ত্রিশ বছর। তীব্র শীত বা সর্বোচ্চ একশত পঞ্চাশ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাও সহ্য করতে পারে এই প্রাণীটি। পৃথিবীর পরিবেশে এক ধরণের সূক্ষ্ম পরিবর্তন ঘটছে। যার প্রভাব এই প্রাণীর উপর পড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে এ ধরনের আর কোনও প্রাণীর খবর এখনও পাওয়া যায়নি। আর তাই মানুষ না থাকলেও থাকতে পারে এই প্রাণী।

আপনার মতামত লিখুন

তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ